সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৩৫ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

উইমেন্স মডেল কলেজে জঙ্গিবাদ বিরুধী সভা সঠিক ধর্মীয় জ্ঞানই পারে জঙ্গিবাদ রুখে দিতে —-এস এম রুকন উদ্দিন

unnamed (6)সিলেট মেট্রাপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার এস এম রুকন উদ্দিন বলেছেন ধর্মের অর্থ সঠিকভাবে না বোঝার কারণে কিছু ভ্রান্ত মতবাদে বিশ্বাসী হয়ে একটি গোষ্ঠী বা সংগঠনের কিছু মানুষ সারাদেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করার পায়তারা করছে।

তিনি বলেন শুধু মুখস্থ না করে অর্থবোঝে ধর্মগ্রন্থ পাঠ করা উচিত। বাস্তব জীবনে ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চললে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গি নির্মূল করা সম্ভব হবে। পৃথিবীতে কোন ধর্মই মানুষ হত্যা কিংবা সন্ত্রাস অথবা জঙ্গিবাদের শিক্ষা দেয় না। সকল ধর্মের মূলমন্ত্র হচ্ছে মানুষের কল্যাণ ও শান্তি। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশ আরোও বলেন, যথাযথ দেশপ্রেম ব্যতীত দেশের উন্নয়ন কখনই সম্ভব নয়। সেজন্য দেশকে ভালোবাসতে হবে, দেশের কথা ভাবতে হবে। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল কোরআনের বিভিন্ন সূরা এবং আয়াতের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, ইসলাম কখনও সন্ত্রাস বা জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না। বরং ইসলামে মানুষ হত্যা দ্বিতীয় মহাপাপ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে, সে যে ধর্মেরই হোক না কেন। নিজস্ব বিচার বুদ্ধি দিয়ে যেকোন বিষয়কে বিশ্লেষণ করে ভালো কিংবা খারাপ এই পার্থক্যটুকু বোঝতে হবে। যেকোন ব্যক্তি কোন কিছু বলামাত্রই গ্রহণ করা যাবে না। ভালো অংশটুকু সর্বদাই অনুকরণ করতে হবে।

তিনি বলেন শুধু আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ নির্মূল করা সম্ভব নয়, তারজন্য প্রয়োজন সামাজিক সচেতনতা। প্রত্যেক ব্যক্তি যদি তার নিজ নিজ জায়গা থেকে সচেতন হয় তাহলে আমরা সত্যিকার অর্থেই সোনার বাংলাদেশ গড়তে পারব। যারা দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করার চেষ্টা করছে তাদের সংখ্যা অতি নগন্য। সবাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতা করলে দেশের সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদ নির্মূল করা সম্ভব। যখনই কোন মানুষের অস্বাভাবিক কর্মকান্ড চোখে পড়ে সঙ্গে সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে জানানোর জন্য অনুরোধ জানান।

তিনি গতকাল রোববার “রুখি জঙ্গিবাদ, গড়ি সোনার বাংলাদেশ” এই স্লোগানকে সামনে রেখে উইমেন্স মডেল কলেজ, সিলেট কর্তৃক আয়োজিত মানববন্ধন পরবর্তী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে কথাগুলো বলেন।
কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক ইয়াসিন আহমেদ খান এর উপস্থাপনায় এবং কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল ওয়াদুদ তাপাদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জনাব সালেহ আহমেদ, শিক্ষকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রভাষক ইশতিয়াক হোসেন মুন্সি, ধ্রুব রঞ্জন রায় ও ফারজানা রহমান। শিক্ষাথীর মধ্যে বক্তব্য রাখেন একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী মারজানা আল রশিদ ও তহুরা ফেরদৌসী।
এর আগে সকাল ১০.০০ থেকে ১১.০০ পর্যন্ত কলেজের প্রায় ৫০০ শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক ও অভিভাবকরা কুমারপাড়া পয়েন্ট থেকে কলেজের সম্মুখ হয়ে মানিকপীর টিলা পর্যন্ত বিভিন্ন স্লোগান সংবলিত ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধন চলাকালীন পথ সভায় বক্তব্য রাখেন প্রভাষক ইশতিয়াক হোসেন মুন্সি, ইয়াসিন আহমদ খান, মো. আব্দুল করিম ও কলেজ অধ্যক্ষ আব্দুল ওয়াদুদ তাপাদার।

বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: