সর্বশেষ আপডেট : ৮ মিনিট ৯ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তাহিরপুর-বাদাঘাট সড়কে চলাচলে চরম দূর্ভোগ

unnamed (2)জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া :: সুনামগঞ্জের অবহেলিত জনপদ তাহিরপুর উপজেলার গুরুত্বপূর্ন তাহিরপুর-বাদাঘাট সড়কে এবারের বন্যায় ব্যাপক হারে ভাঙ্গনের কারনে চরম দূর্ভোগের শিকার উপজেলার লক্ষাধিক জনসাধরন। স্বাধীনতার ৪৪বছর পার হলেও এ সড়কে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের চোঁয়া লাগেনি। অথছ এ উপজেলা থেকে সরকার প্রচুর পরিমান রাজ্যস্ব পাচ্ছে প্রতি বছর। যে সরকার এসেছে তারাই নিজেদের আখের গোঁচাতেই ব্যাস্থ থাকে যার ফলে এ সড়কটির দিকে কারো নজর নেই যেন দেখার কেউ নেই।

জানা যায়,উপজেলা সদর থেকে বাদাঘাট ইউনিয়নের দূরত্ব মাত্র ৮কিলোমিটার। আর উপজেলার ব্যাবসা বানিজ্যের প্রান কেন্দ্র বাদাঘাট,উত্তর বড়দল,দক্ষিন বড়দল,তাহিরপুর সদর ইউনিয়ন,৩টি শুল্ক ষ্টেশন,উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স,১টি কলেজ ও ছোট ছোট অর্ধশতাধিক গ্রামের জনসাধারনের চলাচলের এক মাত্র সড়ক। গত বছর ও এবছর বন্যায় ৬টি স্থানে বড় বড় ভাঙ্গন থাকায় এখন যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গলার কাটা হয়ে দাড়িয়েছে উপজেলা বাসীর। ৮বছর পূর্বে এ সড়কে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতির জন্য টাকাটুকিয়ায় কোটি টাকায় একটি ব্রীজ নির্মান করে ও পাতার গাঁওয়ের সমুখে অপরিকল্পিতি ভাবে ছোট ছোট তিনটি ব্রীজ নির্মান করে। পরে এ অপরিকল্পিতি তিনটি ব্রীজকে আবার একত্রে যুক্ত করে। সেই ব্রীজের দু-পাশের সংযোগ মাটি ও হুসনারঘাট,পাতাঁরগাঁও এর পূর্ব দিকে সড়কের প্রতি বছর পাহাড়ী ঢলের পানিতে মাটি সড়ে গিয়ে সংযোগ বিচ্ছিন্ন গেছে। বর্তমানে এই সড়ক দিয়ে চলাচল করা একবারেই বন্ধ রয়েছে। ফলে বিকল্প ব্যবস্থা হিসাবে ফেরী নৌকা ও ইঞ্জিন চালিত নৌকাই ভরসা।

এ সড়কের পাতাঁরগাঁও থেকে বাদাঘাট যাওয়ার রাস্তাটিও ভাঙ্গা,ছোঁড়া ও বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে রিক্সা,টমটম,ঠেলাগাড়ি ও মটর সাইকেল চলাচল করায় প্রতিদিনেই গঠছে নানা রকমের দূর্ঘটনা। এছাড়াও গুরুত্বপূর্ন তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তাহিরপুর-বাদাঘাট সড়কের সংযোগ রাস্তাটি নিছু থাকার কারনে বর্ষায় ডুবে যায় ও ভেঙ্গে চলাচলে অযোগ্য হয়ে পরেছে। জরুরী বিত্তিতে কোন রোগীকে যানবাহনে করে হাসপাতালে যাওয়া যাচ্ছে না। এছাড়াও উপজেলা বিভিন্ন সড়কে বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর (এলজিইডি) তাহিরপুর উপজেলা কার্য্যালয় সূত্রে জানাযায়-১৯৯৩সালে এলজিইডি তাহিরপুর-বাদাঘাট সড়কটি নির্মানের উদ্দ্যোগ গ্রহন করেন। পরে প্রতি বছর নাম মাত্র সংস্কার করার পরে বিভিন্ন চড়াই উতরাই পেরিয়ে ২০১১-১২অর্থ বছর পযর্ন্ত সড়কের ৬কিলোমিটার কাজ পাকা করা হয়েছে। এর পর আর কোন সংস্কার কাজ হয় নি এই সড়কে।

সর্বস্তরের চলাচলকারী জনসাধারন,শিক্ষক,ছাত্র-ছাত্রী,অবিভাবকগন বলেন-এই রাস্তাটি খুবেই গুরুত্বপূর্ন বর্তমানে এই সড়ক দিয়ে চলাচল করা যাচ্ছে না চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে আমাদের সবাইকে। গুরুত্বের সাথে জরুরী বৃত্তিতে সংস্কার করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার দাবী জানাই সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে।

তাহিরপুর বাজারের ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম,সাদেক আলী সহ স্থানীয় এলাকাবাসী জানান-তাহিরপুর-বাদাঘাট রাস্তাটি আসা যাওয়ায় একমাত্র রাস্তা ভাঙ্গা ছোড়া থাকায় যাতায়াতে মালামাল পরিবহনে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে আর অতিরিক্ত টাকা দিতে হচ্ছে।

তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী শাহ মোহাম্মদ ওয়াদুদ জানান,তাহিরপুর-বাদাঘাট সড়কটি খুবেই গুরুত্বপূর্ন গত বছর ও এবার বর্ষায় ব্যাপক ভাঙ্গনের ফলে চলাচলে দূর্ভোগ পোহচ্ছে এলাকাবাসী। বিষয়টি উর্ধবতন কর্মকর্তাদের লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।

তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ খালেদুর রহমান জানান,উপজেলার গুরুত্বর্পূন তাহিরপুর-বাদাঘাট সড়ক সহ বন্যায় ব্যাপক ভাঙ্গনের শিকার অন্যান্য সড়ক গুলোর বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষে কে জানানো হয়েছে। পানি কমলেই সংস্কারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল জানান-তাহিরপুর-বাদাঘাট সড়ক একটি গুরুত্বপূর্ন সড়ক। গত বছর বর্ষায় ৩দফায় বন্যায় ৬টি ভাঙ্গন ও এবার আরো বর্ষায় ভাঙ্গনের কারনে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে ৪টি ইউনিয়ন বাসী কে। জনসাধারনের চলাচলের স্বার্থে এ সড়কটি কে গুরুত্ব সহকারে সংস্কার করা খুবেই প্রয়োজন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: