সর্বশেষ আপডেট : ১৭ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে গালি দেওয়ার জন্য ক্ষমা চাইবেন না রদ্রিগো দুতের্তে

Philippine-President-_-amir-550x289 (1)নিউজ ডেস্ক : ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তে তার দেশের মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে যৌনবৈষম্যপূর্ণ গালি দেওয়ার জন্য ক্ষমা চাইবেন না বলে জানিয়েছেন। শুক্রবার টেলিভিশনে প্রকাশিত এক বক্তব্যে দুতের্তে মার্কিন রাষ্ট্রদূত ফিলিপ গোল্ডবার্গ সম্পর্কে তার তীব্র অপছন্দের কথা বলতে গিয়ে তাকে গালি দেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান খবরটি নিশ্চিত করেছে।
মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর সোমবার দুতের্তের ওই মন্তব্যের বিষয়ে আলোচনা করতে ওয়াশিংটনে ফিলিপাইনের রাষ্ট্রদূত প্যাট্রিক দুয়াসোটোকে তলব করে জানিয়েছে, ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের ওই মন্তব্য ‘অযাচিত এবং অগ্রহণযোগ্য’।

তবে প্রেসিডেন্ট দুতের্তে তার পাল্টা বক্তব্যে বলেছেন, আমি কোনও কিছুর জন্যই ক্ষমা চাইব না। আমাদের সাক্ষাতের সময় তিনি (ফিলিপ গোল্ডবার্গ) আমার কাছে ক্ষমা চাননি। আমি কেন তার কাছে ক্ষমা চাইব?’
ফিলিপাইনের মার্কিন দূতাবাস সতর্ক করেছে, দুতের্তে অপরাধ নিয়ন্ত্রণের জন্য যে ‘রক্তাক্ত যুদ্ধ’ শুরু করেছেন, তাতে মানবাধিকার ক্ষুণ্য হচ্ছে। আর এমনটা চলতে থাকলে ফিলিপাইনকে দেওয়া মার্কিন সাহায্য ফিরিয়ে নেওয়া হতে পারে।
ফিলিপাইন পুলিশ জানিয়েছে, দুতের্র্তে প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকে শুরু হওয়া মাদক-বিরোধী অভিযানে এখন পর্যন্ত ৫৫০ জন সন্দেহভাজন নিহত হয়েছেন।

ফিলিপাইনের মার্কিন দূতাবাস জানিয়েছে, সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ফিলিপাইনকে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী আধুনিকায়নের জন্য শর্ত সাপেক্ষে ৩২ মিলিয়ন ডলার অনুদান পাঠিয়েছে। দূতাবাসের বক্তব্য, ‘আমরা প্রশিক্ষণ, দক্ষতা বৃদ্ধি, সঠিক প্রক্রিয়া অনুসরণ এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার মধ্যদিয়ে মানবাধিকার রক্ষার জন্যই এই অনুদান দিয়েছি।’ যুক্তরাষ্ট্র ও ফিলিপাইনের অংশীদারিত্বমূলক সম্পর্ক পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার ওপর ভিত্তি করেই প্রতিষ্ঠিত বলে দূতাবাস উল্লেখ করেছে।
উল্লেখ্য, একটি অনুষ্ঠানে করা দুতের্তের বক্তব্যকে কেন্দ্র করে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয় মার্কিন রাষ্ট্রদূতের। ওই অনুষ্ঠানে দুতের্তে বলেছিলেন, তিনি অস্ট্রেলীয় মিশনারির এক ‘সুন্দরী’ নারী, যাকে ১৯৮৯ সালে দাভাও কারা-বিদ্রোহের সময় যৌন নির্যাতন ও হত্যা করা হয়েছিল, তাকে ধর্ষণ করতে চেয়েছিলেন। তখন গোল্ডবার্গ এবং অস্ট্রেলীয় রাষ্ট্রদূত দুতের্তের বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন।

এরপর শুক্রবার দুয়ার্তে একেবারে সরাসরি যৌনবৈষম্যপূর্ণ মন্তব্য করেন মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে নিয়ে। বলেন, ‘আপনারা যেমনটা জানেন, আমি লড়ছি মার্কিন রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে। তার ৃ (আমরা যৌনবৈষম্যপূর্ণ মন্তব্য প্রকাশ করি না বলে দুতের্তে বলা কথাটি উল্লেখ করা হলো না: বি.স) বিরুদ্ধে। তিনি আমার কাজে বাধা দিচ্ছেন। তিনি (গোল্ডবার্গ) নির্বাচনের সময় এখানে-সেখানে বিবৃতি দিয়ে গেছেন। কিন্তু তার তা করা উচিত হয়নি।’-সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: