সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ৩০ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কমলগঞ্জে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন জনতা: ডাকাতি আতঙ্কে রাত জেগে পাহারা

01. daily sylhet Kamalgonj news2কুলাউড়া অফিস:
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় সম্প্রতি সময়ে চুরি, ডাকাতি, অজ্ঞান পার্টির তৎপরতা, ছিনতাইয়ের ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়ছে চা বাগান ও বস্তির লোকজন। এসব ঘটনার পাশাপাশি ভারতীয় মাদক পাচার ও সেবনকারী, জুয়া, অসামাজিক কার্যকলাপসহ বিভিন্ন ঘটনায় গোটা এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে জনতা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ছেন। চুরি, ডাকাতি প্রতিরোধে কমলগঞ্জের কয়েকটি চা বাগানে রাত জেগে পাহারা চলছে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলার চা বাগান ও বস্তির বিভিন্ন স্থানে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনিত দেখা দিয়েছে। ২ আগষ্ট মঙ্গলবার গভীর রাতে ডানকান ব্রাদার্স শমশেরনগর চা বাগানের ফাঁড়ি দেওছড়া চা বাগানে মুখোশধারী ডাকাত দল বাগানের ৩ জন পাহারাদারকে বেঁধে ও সুদর্শন গড় (৩৫) কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কূপিয়ে গুরুতর আহত করে। আহত সুদর্শনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। বাগানের শ্রমিকরা জেগে উঠলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

অপরদিকে ৭ আগষ্ট রবিবার ভোর রাতে ঢাকা সিলেট মহাসড়কের ভৈরব বাজার নামক স্থানের পাশে ডানকান টি কোং লিঃ এর মাজডিহি চা বাগানের সহকারী ম্যানেজার প্রবীর কুমার হাওলাদারের বাংলোতে পাহারাদারকে বেঁধে দুধর্ষ ডাকাতি ঘটনায় বিভিন্ন চা বাগানে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। ১০ জুলাই রোববার সন্ধ্যায় কমলগঞ্জের উত্তর বালিগাঁও গ্রামে মণিপুরী সম্প্রদায়ের মনি ঠাকুরের বাড়িতে হুমকি দিয়ে একটি উড়ো চিঠিতে মন্দির সরিয়ে নিতে ও ধর্ম পরিবর্তন করার কথাও উল্লেখ করা হয়। ১৫ জুলাই শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর ফুলবাড়ি চা বাগানের এক শ্রমিক বস্তিতে হাত বোমা বানাতে গিয়ে চাঁন মিয়ার কিশোর ছেলে রজব মিয়ার বাম হাতের দুটি আঙ্গুল উড়ে যায়। ঘটনার পর গোপনে আহত কিশোরকে নাম পরিবর্তন করে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার দুই দিন পরও থানার পুলিশ বিষয়টি জানে না বলে জানালেও মৌলভীবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসারত কিশোর রজবকে পুলিশ আটক করে।

১৭ জুলাই রোববার দিবাগত রাতে কমলগঞ্জ পৌরসভা সদরের সার্বজনিন দুর্গা বাড়ির মন্দিরের তালা ভেঙ্গে দুধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়। দ্বিতীয় বিয়ের অনুমতি না দেওয়ায় একই দিন সন্ধ্যায় আদমপুর ইউনিয়নের আধকানি গ্রামে স্বামী, শ্বাশুড়ি, দেবর ও ননদের দা, লাটিসোটার আঘাতে হাসনা বেগম নামের চার সন্তানের এক জননী আহত হয়। ২১ জুলাই বৃহস্পতিবার গভীর রাতে শমশেরনগর ইউনিয়নে সাংবাদিক মুজিবুর রহমানের বাসার দোতলার একটি কক্ষে তালা ভেঙ্গে দুঃসাহসিক চুরি এবং শমশেরনগর বিমান বাহিনী ইউনিটের এক এমওডিসি বাসায় ফেরার পথে দুবৃত্তরা রাস্তায় আক্রমন করে এমওডিসিকে গুরুতর আহত করে। ২৪ জুলাই রোববার দিনে দুপুরে মৃর্ত্তিঙ্গা চা বাগানে হরিকিশোর তাঁতি কুড়াল দিয়ে কূপিয়ে নিজ স্ত্রী চার সন্তানের জননী রমনী তাঁতিকে খুন করে পালিয়ে যায়।

২৫ জুলাই সোমবার বেলা ১টায় পতনউষার ইউনিয়নের বৈদ্যনাথপুর গ্রামে দিনমজুর মাইন উল্যার মানসিক প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষন করে একই গ্রামের দুই সন্তানের জনক জসিম উদ্দীন। বাসায় লোকজন না থাকায় ২৬ জুলাই মঙ্গলবার কমলগঞ্জ থানার অদুরে দিনের বেলা স্কুল শিক্ষিকা ব্রজমনি সিনহার বাসার জানালার গ্রীল ভেঙ্গে ও ২৭ জুলাই বুধবার বিকালে শমশেরনগরের বড়চেগ গ্রামের ব্যবসায়ী নিয়াজ আহমদের বাড়ির একটি কক্ষের দরজা ভেঙ্গে দুঃসাহসিক চুরি সংঘটিত হয়। ২৫ জুলাই সোমবার দিবাগত রাতে পতনউষার ইউনিয়নের ধোপাটিলা গ্রামে ব্যবসায়ী দেলওয়ার হোসেনের বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত হয়। ডাকাতের দায়ের কোপে ব্যবসায়ী দেলওয়ার গুরুতরভাবে আহত হন।

মঙ্গলবার শমশেরনগর বাজার থেকে জনতা অজ্ঞান পার্টির ৩ সদস্যকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। ৫ আগষ্ট শুক্রবার সকাল সাড়ে সাত টায় কমলগঞ্জ থানার আড়াইশ’ গজ দুরে ধলাই পুরাতন সেতু এলাকায় বেকারী মালিক মোহাম্মদ হোসেন এর গলায় দা ধরে দুবৃত্তরা নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন লুটে নেয়। এছাড়াও ভারতীয় মাদক পাচার, মাদকসেবী, জুয়া, গাছ চুরি, অসামাজিক কার্যকলাপে যুবসমাজ ও সাধারন মানুষ অতিষ্ট হয়ে উঠছেন। দেওছড়া চা বাগানের শ্রমিক দেওরাজ রবিদাস, বিদ্যাবতী রবিদাস, শমশেরনগর চা বাগানের ইউপি সদস্য সীতারাম বীন বলেন, চা বাগানে ডাকাত আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। ফলে স্বেচ্ছায় শ্রমিকরা কানিহাটি, দেওছড়া, বাঘিছড়া ও শমশেরনগর চা বাগানে রাত জেগে পাহারা বসিয়েছেন। আলীনগর চা বাগানসহ অন্যান্য চা বাগান সমুহেও রাতের পাহারা জোরদার করা হয়েছে।

মৌলভীবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন বলেন, আসলে ক্রিমিনালরা বিভিন্ন সময়ে জামিনে বেরিয়ে এসে এসব অপরাধ সংঘটিত করছে। এদের গ্রেফতার করা হচ্ছে এবং আইন শৃঙ্খলা উন্নয়নে পুলিশ কঠোর দায়িত্ব পালন করছে। বস্তি ও চা বাগানে লোকজন সতর্কতা অবলম্বন করলে অপরাধীদের আটক করতে সহজ হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: