সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তিন বোনকে পর্যায়ক্রমে ধর্ষণ করে চিকিৎসক!

201508নিউজ ডেস্ক: চিকিৎসা দেয়ার সুযোগকে ব্যবহার করে একে একে তিন বোনকে ধর্ষণ করেছেন একজন নিউরো-লিঙ্গুস্টিক প্রোগ্রামিং (এনএলপি) থেরাপিস্ট। ঘটনা জানাজানি হলে ওই চিকিৎসককে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এমন ঘটনার জন্ম দিয়েছেন ইসরাইলের ৫০ বছর বয়সী থেরাপিস্ট আলোন শামির। দুই সপ্তাহ আগে তাকে গ্রেফতার করে হাজতে রাখা হয়েছিল। রোববার অভিযোগ গঠনের পর তাকে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। সুত্র-এই সময়

অভিযোগপত্র থেকে জানা যায়, আলোন শামির ওই তিন বোনের পরিবারের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিল। ২০১৫ সালে নিপীড়িত তিন বোন নিজেদের দুঃখজনক অভিজ্ঞতার কথা পরষ্পরের সঙ্গে বলাবলির পর শামিরের জঘন্য চরিত্রের বিষয়টি ফাঁস হয়ে যায়।
২০০৬ সালে শামিল ইমেজারি থেরাপিস্ট হিসেবে ধর্ষিত তিন বোনের মধ্যে সবার বড়জনের চিকিৎসা শুরু করেন। ওই সময় মেয়েটির বয়স ছিল ১৭ বছর।
পরে ২০১৩ সালে শামির এনএলপি থেরাপিস্ট হিসেবে উত্তীর্ণ হন। এর পরের বছর তিনি দ্বিতীয় বোনের চিকিৎসা শুরু করেন। সর্বশেষ ২০১৫ সালে তিনি তৃতীয় বোনটির চিকিৎসা করেন।
চিকিৎসাকালে শামির তিন বোনকে পর্যায়ক্রমে ধর্ষণ করে। বর্তমানে বোনদের বয়স যথাক্রমে ২৭, ২৫ ও ২০ বছর।
জানা গেছে, থেরাপিস্ট শামির রোগীদের সঙ্গে তার বাড়ি, পার্ক ও গাড়িসহ বিভিন্ন স্থানে দেখা করতেন। এ সময় থেরাপি দেয়ার নাম করে নারী রোগীদের ফাঁদে ফেলে যৌন সম্পর্ক করতেন। যাদের ক্ষেত্রে পারতেন না তাদের মারধর ও ধর্ষণ করতেন।
অবশ্য শামিরের আইনজীবী শিরান গোলবারির দাবি, তিনি নিদোর্ষ, আমরা নিশ্চিত তথ্যপ্রমাণের মাধ্যমেই সব কিছু স্পষ্ট হবে এবং তিনি অভিযোগমুক্ত হবেন।
উল্লেখ্য, এনএলপি থেরাপির কোনও বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। বিশেষজ্ঞদের মতো এটি বিজ্ঞানের নামে প্রতারণা।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: