সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মাহা-ইমজা মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট : দৈনিক সবুজ ও শ্যামল সিলেট ম্যাচ ড্র 

IMG_0097স্পোর্টস রিপোর্টার ::
ভাগ্য যদি সহায় না থাকে অনেক ভালো সুযোগও হাতছাড়া হয়ে যায়-কথাটা ধ্রুবতারার মতো সত্য। খেলার শুরুতেই এক পশলা বৃষ্টি। মাঠের কাদাপানি আরো গভীরে নিয়ে গেল। এ কর্দামাক্ত মাঠেই নিজেদের প্রথম খেলা খেলতে নামে সবুজ সিলেট-শ্যামল সিলেট ফুটবল দল। প্রথমার্ধের ৮ মিনিটের মাথায় ডান দিক থেকে সিলেটের সিনিয়র সাংবাদিক লিয়াকত শাহ ফরিদী ডান পায়ের জোরালো উড়াল শটে প্রথম গোল করে সবুজ সিলেটকে এগিয়ে নেন। তখন বেশ ছন্দেও ফিরেছিল দলটি।
কিন্তু তা বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি সবুজ সিলেট। পাল্টা আক্রমণে আবুল মোহাম্মদ সবজু সিলেটের রক্ষণবাগ ভেঙে গোল করে শ্যামল সিলেটকে ১-১ গোলে সমতায় ফেরান। এর খানিক পরই ফাঁকা জায়গায় বল পেয়ে আরেকটি গোল করে আবুল মোহাম্মদ শ্যামল সিলেটকে ২-১ গোলে এগিয়ে নিয়ে যান। দ্বিতীয়ার্ধের ১১ মিনিটের মাথায় নুরুল হক শিপুর দেয়া পাসে ডিবক্সে ঢুকে পড়েন সবুজ সিলেটের ফরোয়ার্ড কাইয়ুম উল্লাস। প্রতিপক্ষ দলের আবুল মোহাম্মদের পায়ের ফাঁক দিয়ে আলতো টোকায় বল জালে জড়িয়ে সবুজ সিলেটকে ২-২ গোলে সমতায় ফেরান তিনি। খেলার শেষ মুহূর্তে একক প্রচেষ্টায় তিনজন খেলোয়াড়কে পরাস্ত করে ডিবক্সে ঢুকে শিপু একটি দুরন্ত শটে শ্যামল সিলেটের জালে বল জড়ান। কিন্ত রেফারির বিতর্কিত অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল করা হয়। শেষ ২৫ মিনিটে দলের অধিনায়ক ছামির মাহমুদ ও ডিফেন্ডার শিপার চৌধুরী সবুজ সিলেটের রক্ষণভাগকে শক্ত করেন। মাঝ মাঠে রুম্মান একের পর এক শট নেন। কিন্তু ক্রসবারের ওপর দিয়ে বেশ কয়েকবার বল মাঠের বাইরে চলে যায়। একেই বলে, ভাগ্য সহায় না হলে সুযোগও কাজে লাগে না।
মাহা-ইমজা মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বের চতুর্থ ম্যাচে সমানে সমান খেলেছে দৈনিক সবুজ সিলেট ও দৈনিক শ্যামল সিলেট। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি শেষ হয়েছে ২-২ গোলের সমতায়। ম্যাচের প্রায় শেষ সময়ে দৈনিক সবুজ সিলেটের নুরুল হক শিপুর গোলটা যদি অফসাইডের জন্য বাতিল না হয়ে যেত, তাহলে হয়তো এই শিরোনামটি আর লেখা যেত না। তবে বৃষ্টিধৌত ম্যাচটি সমতায় শেষ হয়ে এটিই জানান দিয়েছে যে, দুই দল খেলেছে সমানে-সমানে।
বয়স যে তারুণ্যের ক্ষেত্রে কোনো বাধা নয়; সেটিও প্রমাণিত হল এই ম্যাচে। সবুজ সিলেটের হয়ে প্রথম গোলটি যিনি করেন, তিনি সিলেটের সিনিয়র সাংবাদিকদের অন্যতম লিয়াকত শাহ ফরিদী। প্রায় মাঝ মাঠ থেকে তার বাঁকানো শট প্রতিপক্ষের জাল চিনে নিতে ভুল করেনি। এর পর বেশ প্রভাব বিস্তার করে খেলতে থাকে সবুজ সিলেট। কিন্ত ততক্ষণে জ্বলে ওঠে আরেক পুরোনো ঘোড়া আবুল মোহাম্মদ। প্রায় একক প্রচেষ্টায় টানা দুটি গোল করে তিনি এগিয়ে নেন দলকে। সম্ভাবনা জাগান হ্যাটট্রিককেরও। জেলা ধারাভাষ্যকার অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে ঘোষিত প্রথম হ্যাটট্রিকের পুরস্কারটি শেষ পর্যন্ত বগল দাবা করতে পারেননি তিনি।
খেলা দ্বিতীয়ার্ধে গড়ানোর পর আবার ঘুরে দাঁড়ায় সবুজ সিলেট। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় গোল করে দলকে সমতায় নিয়ে যায় সবুজ সিলেটের কাইয়ুম উল্লাস। এরপর দু দলই একের পর এক আক্রমণ চালাতে থাকে। শেষ সময়ে সুযোগ পেয়ে গোলও করেন সবুজ সিলেটের শিপু কিন্তু রেফারির বেরসিক অফসাইডের বাঁশি উল্লাসে মাততে দেয়নি সবুজ সিলেটকে। রেফারি যখন শেষের বাঁশি বাজান তখন দু দলের স্কোর ২-২।
এই ম্যাচে পরিচ্ছন্নতা আর সমতার আরো উদাহরণ হলো, কাউকেই কোনো কার্ড দেখানোর প্রয়োজন পড়েনি রেফারির। দারুণ খেলে দুদলই সমতা নিয়ে মাঠ থেকে ফিরে যায়। জোড়া গোল করে ম্যান অব দ্যা ম্যাচের ট্রফি অর্জন করেন দৈনিক শ্যামল সিলেটের আবুল মোহাম্মদ।
ম্যাচে রেফারির দায়িত্ব পালন করেন হাসান আলী বাদল। সহকারি রেফারি ছিলেন সালেহ আহমদ ও সুহেল আমিন। ম্যাচ রেফারি ছিলেন সমর চৌধুরী। ম্যাচ ধারাভাষ্য দেন কামরান হোসেন ও দিলোয়ার আহমদ।
দৈনিক সবুজ সিলেট দল : বদরুর রহমান বাবর, ছামির মাহমুদ, মোস্তাফিজুর রহমান, এ এ শিপার, আসকার আমিন রাব্বী (সাব্বির ফয়েজ), কাইয়ুম উল্লাস, নুরুল হক শিপু, লিয়াকত শাহ ফরিদী ( আনন্দ সরকার), শফিকুর রহমান চৌধুরী ( ইকবাল মাহমুদ)।
দৈনিক শ্যামল সিলেট দল : রায়হান উদ্দিন, ইকবাল মনসুর, নাসির উদ্দিন, রজত কান্তি চক্রবর্তী, মিজান আহমদ চৌধুরী ( মনোয়ার জাহান চৌধুরী), রায়হান উদ্দিন নয়ন, মনজুর হোসেন খান ( ফয়ছল আহমদ বাবলু), আবুল মোহাম্মদ, দিপু সিদ্দিকী।
আজকের খেলা : গ্রুপপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়া দুটি দল দৈনিক সংবাদ ও এসএটিভি আজ মুখোমুখি হবে নিজেদের ফিরে দাাঁড়নোর ম্যাচে। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠিত হবে দু দলের ম্যাচ।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: