সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৯ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

একদিনেই ১২ জনের ফাঁসি

images_123280নিউজ ডেস্ক: গাজীপুরের কাপাসিয়ায় স্কুলছাত্র হত্যামামলায় ছয়জনকে ফাঁসি এবং তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। হত্যার ১৫ বছর পর এই রায় ঘোষণা হলো বিচারিক আদালতে। এদিকে চাঁদপুরের কচুয়ায় কৃষক লীগ নেতাকে হত্যার দায়ে চট্টগ্রামে ছয় জনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।

প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় স্কুলছাত্র হত্যামামলায় ছয়জনকে ফাঁসি এবং তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১। মঙ্গলবার দুপুরে বিচারক ফজলে এলাহি ভূইয়া এ আদেশ দেন। এসময় দণ্ডপ্রাপ্ত সবাই আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- কাপাসিয়া উপজেলার ঘাগটিয়া গ্রামের রফিকুল ইসলাম, একই এলাকার আতিকুল ইসলাম, আতিক শেখ, সেলিম শেখ, নয়ন শেখ, আনোয়ার হোসেন শেখ। এছাড়া যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- আনোয়ারা বেগম, আব্দুল মোতালেব ও শামসুদ্দিন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, কাপাসিয়া উপজেলার ঘাগটিয়া গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে সানাউল্লা সরকারকে পারিবারিক বিরোধ ও যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আনোয়ারা বেগমের মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে ২০০১ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আসাদুজ্জামান মামলা করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দায়ের করেন। আদালত দীর্ঘ শুনানি ও উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে আদালত এ রায় দেয়।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন মকবুল হোসেন কাজল।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় বাদীপক্ষ সন্তোষ জানিয়ে দ্রুত রায় কার্যকরের দাবি জানিয়েছে। তবে আসামি পক্ষের আইনজীবী মফিজুল্লাহ দাবি করেছেন তারা ন্যায় বিচার পাননি, এ ব্যাপারে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

এদিকে চাঁদপুরের কচুয়ায় কৃষক লীগ নেতাকে হত্যার দায়ে চট্টগ্রামে ছয় জনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড দেয়ার আদেশ দিয়েছে একটি আদালত। মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রাম বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মহিতুল হক এনাম চৌধুরী এই রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসমিরা হলেন- আব্দুল কাদের মৃধা, আব্দুল হামিদ মৃধা, হারুন মৃধা, নাজমুল হাসান, গৌরব ও মেহেদী হাসান।

অপরাধ প্রমাণ না হওয়ায় চার জনকে খালাস দেন বিচারক। তারা হলেন- আবু তাহের, আক্তার হোসেন, মোয়াজ্জেম হোসেন ও জাকির হোসেন।

আসামিদের মধ্যে আবু তাহের কারাগারে আছেন। বাকি সবাই পলাতক আছেন। দণ্ডপ্রাপ্ত সবাই অলিউল্লাহর স্বজন বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ।

চট্টগ্রামের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পিপি আইয়ুব খান ঢাকাটাইমসকে রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রাষ্ট্রপক্ষ জানায়, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ২০১৪ সালের ২৯ জুলাই রাত সাড়ে ১০টার দিকে চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার শংকরপুর গ্রামে নিজ বাড়ির অদূরে উপজেলা কৃষকলীগ সভাপতি অলিউল্লাহ মৃধাকে কুপিয়ে খুন করে আসামিরা।

এই ঘটনার পর অলিউল্লাহর স্ত্রী বাদী হয়ে আবদুল হামিদ মৃধাকে প্রধান আসামি করে ১০ জনের বিুরদ্ধে কচুয়া থানায় মামলা করেন। ২০১৫ সালের ৩১ মার্চ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। আর ৬ জানুয়ারি তাদের বিচার শুরু হয়।

এরপর মামলাটি কচুয়া থেকে চট্টগ্রামের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়।

অলিউল্লাহকে ২০০১ সালেও একবার আসামিরা হত্যার চেষ্টা করে বলে জানিয়েছেন তার স্ত্রী জয়নেব বেগম।-ঢাকাটাইমস

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: