সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৭ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৩ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভুট্টাখেতে ঢুকে ৩০ হরিণের মৃত্যু

full_1038773905_1470645945নিউজ ডেস্ক: ক্ষুদা মেটাতে কীটনাশকে বিষাক্ত হয়ে যাওয়া কচি সবুজ লম্বা পাতা খেয়েই মৃত্যু হয়েছে ৩০টি কৃষ্ণসার হরিণের। ভারতের তেলেঙ্গানার মেহবুবনগর এলাকার একটি ভুট্টাখেতে এ ঘটনা ঘটেছে। তবে দিনের পর দিন যেভাবে চাষিরা খাদ্য শস্যকে পোকার হাত থেকে বাঁচাতে কীটনাশক ব্যবহার করছে তাতে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে এই ঘটনায়। যে ভুট্টা উনুনে সেঁকে রাস্তার ধারে পাতায় মুড়ে দেয়া হচ্ছে সাধারণ মানুষকে, সেই পাতাতেই থাকছে বিষ। আর তা এতটাই বিষাক্ত যে তা খেয়ে মারা যাচ্ছে পশু।

তেলেঙ্গানার ঘটনাটি তাই রীতিমতো বিপদ বার্তা দিয়েছে। যার জেরে জোরদার তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। বিষয়টি বন অধিদফতরকে জানালে তারাই এসে প্রাথমিক তদন্ত করে।

প্রতিবেদন থেকেই জানা যায়, ওই ভুট্টাখেতের পাতা খেয়েই মৃত্যু হয়েছে হরিণগুলোর। এরপরই পরীক্ষার জন্য হরিণগুলিকে নিয়ে যাওয়া পশু চিকিৎসালয়ে।

বন অধিদফতরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কীটনাশকের কারণেই হরিণগুলির মৃত্যু হয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে খাদ্যশস্যে কি পরিমাণ কীটনাশক চাষিরা মিশিয়েছিল, তা নিয়েও তদন্ত হবে। হরিণদের মারতে চাষিরা ইচ্ছা করে পাতায় বিষ মাখিয়ে রেখেছিল কি না তা-ও দেখবেন তদন্তকারীরা।

কারণ বর্ষার সময়ে ভুট্টাখেতে ঢুকে ফসল নষ্ট করে হরিণরা। প্রচুর কৃষ্ণসার হরিণও বন্যার কারণে এই সময় চাষের জমিতে ঢুকে ফসলের ক্ষতি করে। তাই চাষিরা জেনে বুঝে বিষ লাগিয়ে রাখতে পারে বলেও মনে করছেন তদন্তকারীরা। তবে এই ঘটনার সঙ্গে চোরা শিকাররিদের কোনো হাত নেই বলেই জানিয়েছে বন অধিদফতর।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: