সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিয়ানীবাজারে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ও গুলিবিনিময়

944d389d-2568-431d-9cd3-4d31db25d892এ টি এম তুরাব, বিয়ানীবাজার::
সিলেটের বিয়ানীবাজারে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, গুলিবিনিময় এবং পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

রবিবার সকালে বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের পল্লব গ্রুপ ও স্বাধীন গ্রুপের অনুসারীদের মধ্যে এ সংঘর্ষের হয়। এতে তিন শিক্ষার্থীসহ ৫জন আহত হয়েছেন। পৌর শহরের উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানা যায়, একাদশ শ্রেণীর পাঠদান চলাকালে ছাত্রলীগ (পল্লব গ্রুপ) কর্মী ফাহিম আহমদের সাথে ছাত্রলীগ (স্বাধীন গ্রুপ) রাব্বি ও আবিদের মধ্যে শ্রেণী কক্ষে বসা নিয়ে বাগবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি ঘটলে ফাহিম আঘাত প্রাপ্ত হয়।

25cc6ac8-97ee-4922-9432-a834b30988ccএ খবর ছাত্রলীগের পল্লব গ্রুপের অনুসারীদের মধ্যে পৌঁছালে তারা সংঘটিত হয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে সশস্ত্র অবস্থান নিলে এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, ইট পাটকেল নিক্ষেপ, পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষ চলাকালে সাধারণ শিক্ষার্থীরা আতংকিত হয়ে দিকবেদিক ছুটাছুটি করেন। ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে সাহেদ ও আবিদ নামের দুই ছাত্রলীগ কর্মী আহত হলেও অন্যদের নাম জানা যায়নি।

কলেজের শিক্ষার্থীর অভিযোগ, কলেজ ক্যাম্পাসে থানা পুলিশের একটি টিম উপস্থিত থাকলেও সংঘর্ষ থামাতে তারা ব্যর্থ হয়। পরে বেলা ১২টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ ক্যাম্পাসে অবস্থান নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এক পর্যায়ে পুলিশ ছাত্রলীগ কর্মীদের ক্যাম্পাস থেকে নামিয়ে দিতে গেলে পুলিশের সাথে ছাত্রলীগ কর্মীদের বাগবিতন্ডা হয়। পরে উভয় গ্রুপের নেতাকর্মীরা সশস্ত্র অবস্থায় কলেজ ক্যাম্পাসে সশস্ত্র অবস্থায় বিক্ষোভ মিছিল করে ক্যাম্পাস ত্যাগ করে।

77e3eb28-ddc5-4487-9669-fa0a09546d0cঅপর দিকে সশস্ত্র অবস্থায় ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের কলেজ ক্যাম্পাসে বিচরণ নিয়ে পুলিশের সাথে উপজেলা ছাত্রলীগ (মূলধারা গ্রুপের) নেতা ছিদ্দিকুর রহমানের বাগবিতন্ডা ঘটে। এক পুলিশ সদস্য ছাত্রলীগ নেতা ছিদ্দিকুর রহমানকে ধাক্কা দিলে ক্ষোভে ফেটে পড়ে ছাত্রলীগের মূলধারা গ্রুপের নেতাকর্মীরা। তারা দর্শক পুলিশ চাই না বলে শ্লোগান তুলে। এ নিয়ে পুলিশ ও মূলধারা ছাত্রলীগের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করলে কলেজ অধ্যক্ষের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ ক্যাম্পাস ত্যাগ করে কলেজের মূল ফটকের বাইরে অবস্থান নেয়।

সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সদস্য (স্বাধীন গ্রুপের) কে এইচ সুমন বলেন, কর্মীদের উপর পল্লব গ্রুপের সশস্ত্র ক্যাডাররা হামলা চালিয়েছে, গুলি করে সাধারণ শিক্ষার্থীর মধ্যে আতংক তৈরী করেছে। আমরা সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেছি।

উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা (পল্লব গ্রুপ) শাব্বির আহমদ বলেন, একাদশ শ্রেণী এক ছাত্রলীগ কর্মীকে স্বাধীন গ্রুপের সন্ত্রাসীরা মারধর করে আহত করে। এ ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান চাইতে গেলে তারা আমাদের উপর চড়াও হয়। আমরা এর প্রতিবাদ করে তাদের ক্যাম্পাস থেকে তাড়িয়ে দিয়েছি।

উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা (মূলধারা গ্রুপ) ছিদ্দিকুর রহমান বলেন, বহিরাগত সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অস্ত্র নিয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে অবস্থান করে। পুলিশের সামনে গুলি করে, রাম দা উচিয়ে শিক্ষার্থীদের ভয় দেখায় অথচ তখন পুলিশ দর্শকের ভূমিকা পালন করছে। পুলিশের এ ভূমিকা দেখে সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস থেকে তাদের (পুলিশ) মানতে বাধ্য করে।

বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আমি জরুরী কাজে সিলেট থাকায় প্রকৃত বিষয়টি এখনো জানতে পারিনি।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: