সর্বশেষ আপডেট : ১৫ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মোদিকে খেপিয়ে তুলেছেন ‘গো-রক্ষকরা’

cow_122894আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভারতে তথাকথিত গো-রক্ষক বলে পরিচিতি পাওয়া কট্টর হিন্দুদের সমালোচনা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোদি নিজেও একজন কট্টরপন্থী হিন্দু জাতীয়তাবাদী হিসেবে পরিচিত। কিন্তু গরু রক্ষার নামে তথাকথিত গো-রক্ষকদের সাধারন মানুষের উপর চালানো নির্যাতনে তিনি ক্ষুব্ধ।

মোদি বলেন, “যারা গো-রক্ষার নামে মানুষের উপর আক্রমণ চালায় তারা আমাকে ‘রাগান্বিত’ করছে। এসব হামলার তদন্ত হওয়া উচিত।”

গো-রক্ষকদের একটি দল সম্প্রতি দলিত সম্প্রদায়ের চারজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে গরুর ক্ষতিসাধনের অভিযোগে হামলা চালায়। হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের কাছে গরু অত্যন্ত পবিত্র প্রাণী। কিন্তু হামলার শিকার দলিত সম্প্রদায়ের লোকেরা বলছে, তারা তাদের ঐতিহ্য অনুসারে একটি গরুর মৃতদেহ থেকে চামড়া ছাড়াচ্ছিল। গত জুলাই মাসে গো-রক্ষকেরা দুজন মুসলিম নারীকে গরুর মাংস বহনের অভিযোগে পিটিয়ে আহত করে।

শনিবার দিল্লীতে দেয়া বক্তব্যে মোদি জানান, তিনি রাজ্য সরকারগুলোকে বলবেন যেন ভারতে এ ধরণের প্রতিটি আক্রমণের ঘটনা তদন্ত করা হয়।

মোদি ধারণা করেন, হামলাকারীদের ৭০-৮০ শতাংশ নানা সমাজবিরোধী কার্যকলাপের সঙ্গে জড়িত এবং এখন নিজেদের গা বাঁচাতে গো-রক্ষকের ছদ্মবেশ নিয়েছে।

অনেক বিশ্লেষকই মনে করেন হিন্দু জাতীয়বাদীদের সমর্থন হারানোর ভয়ে মোদি এসব ঘটনার সমালোচনা করতে চান না। গত বছর গোমাংস ভক্ষণের অভিযোগে একজন মুসলমানকে হত্যার পর এর প্রতিক্রিয়া জানাতে দুই সপ্তাহ নেন মোদি যা ব্যাপক সমালোচনা সৃষ্টি করে। ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে গরু জবাই নিষিদ্ধ। কিন্তু কট্টর হিন্দুদের তরফ থেকে ক্ষমতাসীন বিজেপির উপর গো-রক্ষায় আরো বিশেষ উদ্যোগ নেয়ার চাপ রয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: