সর্বশেষ আপডেট : ৩৯ মিনিট ৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

লুঙ্গি পরে ক্লাসে আসায় শিক্ষককে মারধর, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

1470488864নিউজ ডেস্ক: পাবনার বেড়ায় জেএসসি পরীক্ষার্থীদের(অতিরিক্ত ক্লাস) লুঙ্গি পরে যাবার কারণে লুৎফর রহমান নামের একজন শিক্ষককে ম্যানেজিং কমিটির এক সদস্য বেদম প্রহার করেছেন। শনিবার সকাল ৮ টার দিকে উপজেলার নতুন ভারেঙ্গা ইউনিয়নের ভারেঙ্গা একাডেমিতে এ ঘটনা ঘটে। এতে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা অভিযুক্ত সদস্যর বিচার দাবি করে বিক্ষোভ করেছে।

সহকারী শিক্ষক লুৎফর রহমান জানান, আসন্ন জেএসসি পরীক্ষার্থীদের ভাল ফলাফলের জন্য বিদ্যালয়ে প্রতিদিন ভোরবেলায় অতিরিক্ত ক্লাস নেয়া হয়। শনিবার সকালে তিনি শারীরিক ও পারিবারিক সমস্যার কারণে অতিরিক্ত ক্লাস করাতে চাননি। কিন্তু বিদ্যালয়ে ওই দিন ক্লাসে শিক্ষক কম থাকায় তার এক সহকর্মীর অনুরোধে জরুরিভাবে লুঙ্গি পড়েই তিনি শ্রেণিকক্ষে ক্লাস করাতে যান। সকাল ৮টার দিকে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির হিতৈষী সদস্য আজিবর মোহরী শ্রেণিকে ঢুকে তাকে লুঙ্গি পড়া দেখেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন এবং কোন কথা না বলেই শ্রেণি করে ভেতর ছাত্রছাত্রীর সামনেই তাকে মারধর ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।

ভারেঙ্গা একাডেমির শিক্ষকরা জানান, ওই সদস্য শিক্ষক লুৎফর রহমান কে কোন কথা বলার সুযোগ না দিয়েই তাকে কিল-ঘুষি-লাথি মারতে থাকেন এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। পরে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অভিযুক্ত সদস্যের বিচার দাবি করে বিদ্যালয়ে বিক্ষোভ করে। ভারেঙ্গা একাডেমির নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ছাত্র-ছাত্রীরা ওই সদস্যের বিচারসহ তাকে সদস্য পদ থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছে।

ভারেঙ্গা একাডেমি প্রধান শিক্ষক মাহফুজার রহমান জানান, আমি স্কুলের কাজে ঢাকায় আছি। শিক্ষকরা ফোনে আমাকে বিষয়টি জানিয়েছেন। অভিযুক্ত সদস্য আজিবর মোহরীকে একাধিকবার মোবাইল ফোনে কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি। বেড়া উপজেলার শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক বলেন, ওই শিককে মারধর করা হয়েছে স্কুল সময়ের আগে। তিনি তো তখন স্বেচ্ছাশ্রমে ব্যস্ত ছিলেন, আনুষ্ঠানিক ক্লাস শুরু হওয়া আরও বেশ দেরি ছিল। শ্রেণিকক্ষে ঢুকে ছাত্রছাত্রীদের সামনে একজন শিক্ষককে লাঞ্ছিত করে ওই সদস্য পুরো শিক্ষক সমাজকে অপমানিত করেছেন। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানান তিনি।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলম খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সত্যতা প্রমাণিত হলে ওই সদস্যের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অবিলম্বে শিক্ষক-লাঞ্ছনাকারী ম্যানেজিং কমিটির ওই সদস্যের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: