সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৪৬ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখায় একাধিক অপহরণ ঘটনায় আতংক: ২২ দিনেও খোঁজ মিলেনি সানির

01. daily sylhet Barlekha newsবড়লেখা প্রতিনিধি::
মৌলভীবাজারের বড়লেখার দক্ষিণভাগ থেকে নিখোঁজ হওয়া মাদ্রাসা ছাত্র মুরাদুর রহমান সানির খোঁজ মিলেনি ২২ দিনেও। ছেলেকে হারিয়ে তার পরিবারে উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে। সূত্র জানায়, গত ১৩ জুলাই উপজেলার দক্ষিণভাগের টিলাবাজার মোহাম্মদীয়া মাদ্রাসার ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র মুরাদুর রহমান সানি (১২) নিজ বাড়ি থেকে কাপড় ইস্ত্রি করার কথা বলে দক্ষিণভাগ বাজারে যায়। এরপর থেকে সে নিখোঁজ রয়েছে। সে দক্ষিণভাগ গ্রামের আব্দুল আহাদের ছেলে। এ ঘটনায় তার মা রুমানা বেগম বুলবুলি থানায় জিডি করেছেন। সানির মা রুমানা বেগম জানান, ঈদের দিন সকালে সে মাদ্রাসা থেকে বাড়িতে যায়। গত ১৩ জুলাই বাজারে যাবার কথা বলে বেরিয়ে আর বাড়ি ফেরেনি। মাদ্রাসার হুজুররা তার সন্ধান দিতে পারেননি।

এদিকে উপজেলার গ্রামতলা জামেয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র জসিম উদ্দন (১৩) গত ২৭ জুলাই খেলার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর বাড়ি ফেরেনি। আত্মীয়-স্বজনসহ সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজাখুঁজির পর তাকে না পেয়ে বাবা ফারুক আহমদ ৩০ জুলাই থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।
অপরদিকে ইতোপূর্বে মাদ্রাসার দু’ছাত্রকে ইনজেকশন পুশের মাধ্যমে অজ্ঞানপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যাবার সময় নিজস্ব বুদ্ধিমত্তায় ফিরে আসে ছাত্রদ্বয়।
উপজেলার সফরপুর তাওয়াক্কুলিয়া হাফিজিয়া ইবতেদায়ি মাদ্রাসার হিফজ বিভাগের ছাত্র মারজান আহমদ (১৬) গত ২০ জুলাই সন্ধ্যার পর লজিং বাড়ি থেকে হেঁটে মাদ্রাসায় যাচ্ছিলো। মাদ্রাসার ২০-৩০ গজ পিছনে মেইন রোডে অটোরিকশা থামিয়ে তিন অজ্ঞাত ব্যক্তি তাকে ঝাপটে ধরে অটোরিকশায় তুলে জুড়ীর দিকে রওয়ানা দেয়। ইনজেকশন পুশ করায় সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। বড়লেখা-কুলাউড়া সড়কের জুড়ী এলাকার মানিকসিংহ নামক স্থানে হঠাৎ জ্ঞান ফিরলে মারজান লাফিয়ে পড়লে অপহরণকারীরা দ্রুত পালিয়ে যায়। এতে সে অপহরণকারীদের কবল থেকে রক্ষা পায়। সে কুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাঁও গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে।

এর আগে গত ১৪ জুলাই একই মাদ্রাসার হিফজ বিভাগের ছাত্র রাহেদ আহমদ রেজা অপহরণকারীদের কবল থেকে ফিরে আসে। জুড়ী উপজেলার কালীনগর গ্রামের সাবেক সেনা সদস্য হাবিবুর রহমানের ছেলে রেজা ওই মাদ্রাসায় ভর্তি হয়। গত ১৪ জুলাই সকাল দশটায় মাদ্রাসায় পৌঁছার সময় মেইনরোডে অটোরিকশা থামিয়ে অজ্ঞাত দুই ব্যক্তি তাকে জোরপূর্বক তোলে নেয়। চলন্ত অবস্থায় তাকে ইনজেকশন পুশ করায় তন্দ্রাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে সে। প্রায় ১০ কিলোমিটার যাওয়ার পর অপহরণকারীরা মেইনরোড দিয়ে না গিয়ে বড়লেখা পৌর শহরের পাখিয়ালা-দরগাবাজার রোডের দিকে যেতে থাকে। রেলক্রসিংয়ের পশ্চিমে রেজার জ্ঞান ফিরলে সে চিৎকার দিয়ে অটোরিকশা থেকে লাফিয়ে পড়ে নিজেকে রক্ষা করে।

এ বিষয়ে বড়লেখা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: মনিরুজ্জামান জানান, কি কারণে এসব মাদ্রাসা ছাত্ররা বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর বাড়ি ফিরছে না, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তাদের ব্যাপারে দেশের সকল থানাকে অবহিত করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: