সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ১৮ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেট থেকে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে পাহাড়িকা ট্রেনে হামলার শিকার একই পরিবারের ১৬ জন

train20160803150633ডেইলি সিলেট ডেস্ক:
বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন ব্যাংক কর্মকর্তা কাজী মঈনুদ্দিন আহাম্মদ। পাহাড়িকা এক্সপ্রেস ট্রেনযোগে সিলেট থেকে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে নারী ও শিশুসহ পরিবারের ১৬ সদস্য বর্বর সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন। এ সময় তাদের কাছে থাকা মোবাইল ফোনসেট ও নগদ প্রায় ২৫ হাজার ছিনিয়ে নেই সন্ত্রাসীরা। তবে রেলওয়ে জিআরপি পুলিশের কাছে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাননি সন্ত্রাসী হামলার শিকার পরিবারটি।

ঘটনা ঘটেছে ১ আগস্ট (সোমবার) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে আখাউড়া জংশন এলাকায়। চট্টগ্রাম রেলওয়ে জিআরপি থানার ওসি হিমাংশু কুমার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, চট্টগ্রামের ইউসিবিএল ব্যাংক কর্মকর্তা কাজী মঈনুদ্দিন আহাম্মদ নারী ও শিশুসহ পরিবারের ১৬ জন সদস্য একটি বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে পাহাড়িকা এক্সপ্রেস ট্রেনযোগে ‘ছ’ নম্বর বগিতে সিলেট থেকে চট্টগ্রাম যাচ্ছিলেন। কুলাউড়া স্টেশন তাদের বগিতে আরো দুই যুবক ওঠে। তারা ট্রেনে ওঠার পর থেকেই মঈনুদ্দিনের পরিবারের নারী সদস্যদের নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতে থাকে।

এ সময় পরিবারের সঙ্গে থাকা পুরুষ সদস্যরা প্রতিবাদ করলে তারা ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে এবং এক পর্যায়ে যুবকরা মোবাইল ফোনে তাদের অন্যান্য সহযোগীদের সঙ্গে কথা বলে। ট্রেনটি আখাউড়া জংশনে পৌঁছালে বগিতে আরো ১৫-২০ জন যুবক ওঠে বগির দুইপাশের দরজা বন্ধ করে দিয়ে মঈনুদ্দিনের পুরো পরিবারকে জিম্মি করে এবং পরিবারের নারী ও শিশুসহ সবার উপর অতর্কিত হামলা চালায়।

প্রায় ১৫ থেকে ২০ মিনিট হামলা চালিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন এবং নগদ ২৫ হাজার টাকা চিনিয়ে নিয়ে আখাউড়া স্টেশনেই নেমে যায়। হামলায় ইয়াছিন আবরার (১৯), কাজী জাওয়াদ (১৪), জামিলুর আলম তাসিন (১৯), কায়সার জাহান (২৫) এবং জাহানা আক্তার (৩২) গুরুতর আহত হয়।

হামলার শিকার পরিবারের নারী সদস্য জাহান আক্তার জানান, হামলার সময় বগিতে থাকা অন্য যাত্রীরা ট্রেনে থাকা পুলিশের সহায়তা কামনা করলেও পুলিশ এগিয়ে আসেনি।

পরে ঘটনার দিন সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম রেলওয়ে জিআরপি থানায় অভিযোগ করেন হামলার শিকার পরিবারটি। কিন্তু ঘটনাস্থল আখাউড়া এলাকা হওয়ায় চট্টগ্রাম জিআরপি থানা পুলিশ পরিবারের অভিযোগ গ্রহণ করেনি।

এ ব্যাপারে চট্টগ্রাম রেলওয়ে জিআরপি থানার অফিসার ইনচার্জ হিমাংশু কুমার জানান, আক্রান্ত পরিবারটি অভিযোগ নিয়ে ঘটনার দিনই আমাদের কাছে এসেছিলেন। কিন্তু ঘটনাস্থল আখাউড়া স্টেশনে হওয়ায় এ ব্যাপারে আমাদের করণিয় কিছুই ছিল না। তাই তাদের অভিযোগ গ্রহণ করা হয়নি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: