সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিশ্বনাথে ‘আখড়া’র ৬৮৩ শতক ভূমি দখলের অভিযোগ

P1030520বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:
সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি পীর লিয়াকত হোসেনের বিরুদ্ধে হিন্দু ধর্মালম্বীদের আখড়া প্রায় ৬৮৩ শতক ভূমি অবৈধ দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। চেয়ারম্যান থাকাকালে প্রভাব কাটিয়ে জালিয়াতির মাধ্যমে জাল (নকল) দলিল করে তিনি (লিয়াকত) উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের মদনপুর গ্রামস্থ শত বছরের প্রাচীন ‘শ্রীশ্রী গোপীনাথ জিউ আখড়া’র প্রায় ৬৮৩ শতক ভূমি জোরপূর্বক ভাবে অবৈধ দখল করেছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

জানা গেছে, উপজেলার মদনপুর মৌজার, জেএল নং ১৭, এস এ খতিয়ান ০৫ ও ১৩০৬, দাগ নং ৩২৯২ (১ শতক), ৩২৯৩ (২৪১ শতক), ৩২৮৬ (৭৮ শতক), ৩২৮৭ (৩৪ শতক), ৩২৮৮ (৪৬ শতক), ৩২৮৯ (২১ শতক), ৩২৯০ (২১ শতক), ৩২৯১ (২৭ শতক), ৩২৯৮ (২৭ শতক), ৩২৬৩ (৭১ শতক), ৩৩৩৯ (১০ শতক), ৩৫৫৩ (১০৬ শতক) অবস্থিত ‘শ্রীশ্রী গোপীনাথ জিউ আখড়া’র-এ ভূমির (৬৮৩ শতক) বাজার মূল্য কয়েক কোটি টাকা।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ‘শ্রীশ্রী গোপীনাথ জিউ আখড়া’র সেবায়েত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিনয়ভূষণ গোস্বামী। তার মৃত্যুর পরও দীর্ঘদিন স্থানীয় হিন্দু ধর্মালম্বীরা ওই আখড়া বাড়িতে নিজেদের পূর্জা অর্চনা করেন। কালের পরিবর্তে এদেশে সংখ্যা লঘু সম্প্রদায়ের আখড়ার প্রায় ৬৮৩ শতক ভূমি জালিয়াতির মাধ্যমে জাল (নকল) দলিল তৈরি করে অবৈধ ভাবে দখল করে নেন পীর লিয়াকত হোসেন। এলাকার স্থানীয়দের কাছে ভূমিখোকো হিসেবে পরিচিত পীর লিয়াকত হোসেন অত্যন্ত প্রভাবশালী ব্যক্তি হওয়ার কারণে তার (লিয়াকত) বিরুদ্ধে এত দিন কেউ প্রতিবাদ বা অবস্থান নিতে পারেনি।

সংখ্যালঘু লোকজনের অভিযোগ, পীর লিয়াকত হোসেনের দখলে থাকা ভূমি উদ্ধারের ব্যাপারে কোন উদ্যোগ গ্রহণ করা হলে ‘হিন্দু ধর্মালম্বীদের’ উপর ‘লিয়াকত পক্ষের লোকজন’ কর্তৃক নানান ধরণের নির্যাতন নেমে। তাই নির্যাতন ও নিজেদের প্রান ভয়ে এতদিন ধরে নিরব ভূমিকা পালন করে আসছেন স্থানীয় সংখ্যালঘুরা। সম্প্রতি সময়ে সংখ্যালঘুদের কল্যাণে সরকারের প্রশংসনীয় বিভিন্ন কর্মকান্ডের কারণে ‘শ্রীশ্রী গোপীনাথ জিউ আখড়া’র প্রায় ৬৮৩ শতক ভূমি উদ্ধারের জন্য নিজেদের মনের ভিতরে থাকা ভয়কে জয় করে আবারও তৎপর হয়ে উঠেছেন স্থানীয় হিন্দু ধর্মালম্বীরা।

খাজাঞ্চী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শংকর চন্দ্র ধর বলেন, পীর লিয়াকত একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি হওয়ার কারণে আখড়ার প্রায় ৬৮৩ শতক ভূমি দখল করার পরও তার (লিয়াকত) বিরুদ্ধে এত দিন কেউ প্রতিবাদ করার সাহস করেন নি। তবে বর্তমান সময়ে সংখ্যালঘুদের ব্যাপারে সরকারের বিশেষ নজর থাকার কারণে এখন আখড়ার জায়গা উদ্ধারে প্রতিবাদী হয়ে উঠছেন ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে স্থানীয় জনতা।

পীর লিয়াকত হোসেন জালিয়াতির মাধ্যমে জাল (নকল) দলিল তৈরী করে ‘শ্রীশ্রী গোপীনাথ জিউ আখড়া’র প্রায় ৬৮৩ শতক ভূমি অবৈধ ভাবে দখল করেছেন বলে অভিযোগ করেন এলাকার পরিমল দাশ ও সুধামনি নাথ’সহ অনেকেই।

অবৈধ দখলের সকল অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে পীর লিয়াকত হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, সব ভূমি আমি রেজিষ্ট্রারী করে ক্রয় করেছি। আমার কাছে সব দলিল আছে। আমাকে সমাজে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য মিথ্যা অভিযোগগুলো করা হচ্ছে।

উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আবদুল হক বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: