সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৭ জুন, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হিরো আলম এবার প্রাণের বিজ্ঞাপনে

hero_alom_-550x326বিনোদন ডেস্ক : এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিশেষ করে ফেসবুক এবং ইউটিউবে ঝড় তুলেছেন হিরো আলম। এই ডিশ ক্যাবল ব্যবসায়ী নিজের টাকায় ৫০০-এর অধিক মিউজিক ভিডিও নির্মাণ করে প্রাইভেট চ্যানেলে প্রচার করেছেন। এতে তিনি নন্দিত হওয়ার পরিবর্তে হাসির পাত্র হয়েছেন প্রায় সবারই। কিন্তু তিনি থেমে থাকেননি। যার সুফল এবার ভোগ করতে যাচ্ছেন। তিনি ‘হিরো আলম’।
সম্প্রতি তাকে নিয়ে কাজ করার আগ্রহ দেখিয়েছে আরএফএল গ্রুপ। এরই মধ্যে আলাপ হয়েছে হিরো আলমের সঙ্গে। চুক্তিবদ্ধ হয়ে কাজ করবেন আরএফএল-এর একটি বিজ্ঞাপনে।
‘হিরো আলম’ নামে পরিচিতি পাওয়া বগুড়ার ডিশলাইন ক্যাবল অপারেটর ব্যবসায়ী আশরাফুল আলম নিজেই এই তথ্য জানিয়েছেন।
বর্তমানে তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন। তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি এই প্রতিবেদককে বিজ্ঞাপনে কাজ করতে যাওয়ার বিষয়টি জানান।
শুধু বিজ্ঞাপনে কাজ করা হয়, হিরো আলমের হাতে এ মুহুর্তে অসংখ্য কাজের অফার ও সুযোগ।
হিরো আলম বলেন, বনানীতে একটি প্রজেক্টে কাজ করার কথা হয়েছে। একটি শর্ট ফিল্ম হচ্ছে। আমার নিজের কণ্ঠে একটা র‌্যাপ গান বানাচ্ছি। শিগগিরই সেটি রিলিজ হবে। দুটি নাটকের কথা হচ্ছে। তার একটি এটিএন বাংলায়। ঈদের পরে কক্সবাজারে প্রোগ্রাম আছে। আমেরিকা থেকে একটি প্রস্তাব এসেছে। তারা আমার পুরো টিমকে ২ মাসের জন্য সেখানে নিতে আগ্রহী। সিঙ্গাপুরেও প্রোগ্রাম করার প্রস্তাব পেয়েছি।
এসব সুযোগ সৃষ্টির অনুভূতি সর্ম্পকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আসলে যেটা দেখতে পাচ্ছি সেটা হল- বাংলাদেশে আমি যেমন জনপ্রিয়তা পাচ্ছি, বাইরেও ঠিক একই রকম পাচ্ছি। সবচেয়ে ভালো লেগেছে সালমান খানের একটি গানের মিউজিক ভিডিও করেছিলাম। সেটা নিয়ে ভারতের বিভিন্ন মাধ্যমে লেখালেখি হচ্ছে। সবকিছু মিলিয়ে বেশ ভালো যাচ্ছে সময়।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর কারণে ‘হিরো আলম’ এই মুহুর্তে খুব পরিচিত নাম। সাধারণ দৃষ্টিতে তিনি হয়তো কিছুই না। কিন্তু তিনি নিজ উদ্যোগে পাঁচ শতাধিক মিউজিক ভিডিও তৈরি এবং প্রচারের মাধ্যমে আলোচনায় এসেছেন।
তিনি নিজের মতো করে এসব মিউজিক ভিডিও বানিয়েছেন। নিজে মডেল হয়েছেন। ভাবেননি এর ব্যাকারণ নিয়ে। চিন্তা করেননি কে কী ভাবলো! তিনি নিজে গান গেয়েছেন। অন্যের গানে নায়িকাদের নিয়ে নেচেছেন। আবার তৈরি করেছেন নাটকীয়তা।
এসব গানের মডেলদের বিষয়ে জানতে চাইলে হিরো আলম জানান, সব মডেলকে তিনি নিজের পকেট থেকে টাকা দিতেন।
মডেল সংগ্রহের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘মডেলগুলো বিভিন্ন জেলা থেকে নেওয়া। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনে এরা কাজ করে। অনেকে ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত’।
হিরো আলমের ভাষায়, তার নির্মিত মিউজিক ভিডিও নিয়ে অনেকেই হাসাহাসি করেন। এতে তিনি কিছু মনে করেন না। তার বক্তব্য, ‘অনেকে আমাকে নিয়ে হাসে, এতে আমি কিছু মনে করি না, কারণ তারা তো অন্তত আমাকে নিয়ে ভেবেছে’।
নিন্দুক কিংবা দর্শকের হাসি-মজা করা উপেক্ষা করে নিরলস কাজ করে যাওয়া হিরো আলমের মূলধারার গণমাধ্যমে কেমন করতে পারে, এটাই এখন দেখার বিষয়।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: