সর্বশেষ আপডেট : ৪১ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ঢাকার সব বন্দি কেরানীগঞ্জের নতুন কারাগারে

photo-1469866097নিউজ ডেস্ক : পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে সব বন্দিকে কেরানীগঞ্জে নবনির্মিত কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে ২৫টি প্রিজন ভ্যানে রাত প্রায় ১০টা পর্যন্ত কয়েক দফায় মোট ছয় হাজার ৫১১ জন কারাবন্দিকে স্থানান্তর করা হয়।

আজ শনিবার সকালে অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজন) কর্নেল ইকবাল হাসান এনটিভি অনলাইনকে জানান, গতকাল রাতে বন্দিদের নিয়ে সর্বশেষ ট্রিপে ১৮৪ জন আসামিকে স্থানান্তর করা হয়েছে। এর মাধ্যমে মোট ছয় হাজার ৫১১ জন আসামিকে কেরানীগঞ্জে নবনির্মিত কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হলো। এই স্থানান্তর কাজে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত প্রায় ১৬ ঘণ্টা সময় লেগেছে।

এর আগে গত বছরের জুন এবং এ বছরেরও জুন মাসে আসামিদের স্থানান্তর করার কথা ছিল কিন্তু নানা কারণে তা পিছিয়ে গতকাল শুক্রবার এক দিনেই স্থানান্তরের কাজ শেষ করা হয়।

নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আসামিদের স্থানান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। সেই সময় বেশ এক উৎসব মুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়। সামনে পুলিশের গাড়ি, মাঝখানে কারবন্দিদের বহনকারী প্রিজন ভ্যান, তার পিছনে র‍্যাব,পুলিশ ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) গাড়ি। তবু আসামিদের বেশ আনন্দ করতে করতে প্রিজন ভ্যানে চেপে নতুন কারাগারের দিকে যেতে দেখা গেছে। প্রিজন ভ্যান থেকে আশপাশের মানুষদের সাথে নানা রকম কথা বলতে থাকেন কারাবন্দিরা।

পুরান ঢাকার স্কুলছাত্রী সায়মা জানায়, আসামিদের নিয়ে যাওয়া দেখে ভয়ে রাস্তার একপাশে দাঁড়িয়ে ছিল তারা। কিন্তু একটু পরই দেখতে পায় প্রিজন ভ্যানের ভেতর থেকে চিৎকার করে গান গাওয়ার আওয়াজ ভেসে আসছে, কেউ কেউ আবার রাস্তার মানুষের সঙ্গে বিভিন্ন রকম কথা বার্তা বলছেন। এসব দেখে ভয় ভেঙে যায় বলে জানায় সায়মা।

গত ১০ এপ্রিল কেরানীগঞ্জের নবনির্মিত কেন্দ্রীয় কারাগারটির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৪০৬ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রায় ১৯৪ একর জায়গার ওপর নির্মাণ করা হয়েছে এশিয়ার সর্বাধুনিক ও বড় এই কারাগার। নতুন এই কারাগারে বন্দিদের মানবাধিকার রক্ষায় বিশেষ নজর দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া পুরান ঢাকার কারাগারের জায়গায় তৈরি হবে পার্ক। থাকবে জাতীয় চার নেতার স্মৃতিসৌধ এবং মিউজিয়াম। বহুতল ভবন তৈরি করার জন্য একটি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। যেখানে বিপণিবিতান, সিনেপ্লেক্স, সুইমিংপুলসহ থাকবে সব ধরনের নাগরিক সুবিধা।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: