সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

যেভাবে স্বপরিবারে বেঁচে গেলেন এরদোগান

148491_1আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অভ্যুত্থান চেষ্টার রাতে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর মারমারিসের গ্রান্ড ইয়াজিসি হোটেলে ছিলেন। স্ত্রী, মেয়ের জামাই ও নাতি-নাতনীদের সঙ্গে পাঁচ দিনের ছুটিতে অবকাশ যাপনে ছিলেন।

ব্যর্থ অভ্যুত্থানের রাতে সেখানে তাকে স্ব-পরিবারে হত্যার উদ্দেশ্যে পাঠানো হয়েছিল একদল অভ্যুত্থানচেষ্টাকারী সেনাকে।তবে খুনিরা গ্রান্ড ইয়াজিসির ঠিকানা জানতো না। তারা স্থানীয়দের কাছে হোটেলের ঠিকানা খুঁজে বেড়াচ্ছিলেন। ততক্ষণে অবশ্য এরদোগান নিরাপদে সরে যান।এভাবেই সেদিন বেঁচে যান তিনি।

অবশ্য ব্যর্থ অভ্যুথানের পর সিএনএনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট এরদোগান নিজেই বলেন, ১৫ জুলাই আমি পরিবারের সাথে ছিলাম। আমরা পাঁচ দিনের ছুটিতে মারমারিসে ছিলাম। ওই দিন রাত ১০টার দিকে কিছু খবর পাই। আমাকে পরিস্থিতি সম্পর্কে জানানো হয়। ইস্তাম্বুল, আঙ্কারা এবং আরো কয়েকটি জায়গায় কিছু কিছু মুভমেন্ট চলছে।
আমরা তখনই মারমারিস থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। আমার সাথে স্ত্রী, আমার মেয়ের জামাই, আমার নাতি-নাতনীরা ছিল। ফলে বিষয়টা আরো গুরুতর ছিল বলে মনে করতে পারেন।

অন্যদিকে মারমারিসের গ্রান্ড ইয়াজিসির হোটেল মালিক সেরকান ইয়াজিকিও পরে মিডিয়াকে জানান, অভ্যুত্থানকারীরা হোটেলে তার কক্ষে ঢোকার মাত্র ১৫ মিনিট আগে প্রেসিডেন্ট এরদোগান সেখান থেকে চলে গিয়েছিলেন।

সেরকান ইয়াজিকি আরো বলেন, ওইদিন হেলিকপ্টার থেকে প্রায় ৩০ জন ষড়যন্ত্রকারী নেমেছিল।

ডেইলি সাবাহ, সিএনএন তুর্ক এবং ডেইলি হুররিয়াত নিউজ অবলম্বনে

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: