সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৪২ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নিহত জঙ্গি আকিফুজ্জামান কুখ্যাত গভর্ণর মোনেম খানের নাতি

full_1311716274_1469715965নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর কল্যাণপুরে জঙ্গিবিরোধী পুলিশের ‘অপারেশন স্টর্ম ২৬’ অভিযানে যে নয়জন নিহত হয় তাদের মধ্যে আটজনের পরিচয় সম্পর্কে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে। এদের পরিচয় থেকে দেখা যাচ্ছে এই জঙ্গীরা বিভিন্ন ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে এসেছে। এদের মধ্যে হতদরিদ্র পরিবারের সদস্য যেমন রয়েছে তেমনি রয়েছে ধনাঢ্য পরিবারের সন্তানও।

এই আট জনের মধ্যে পুলিশ জানাচ্ছে একজন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গভর্ণর মোনেম খানের নাতি। পুলিশি অভিযানে নিহতদের মধ্যে সবশেষ যে ব্যক্তির পরিচয় বৃহস্পতিবার পুলিশ নিশ্চিত করেছে সে পীরগাছা রংপুরের মহম্মদ রায়হান কবির বলে জানিয়েছেন ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম।

পুলিশ বলছে নিহত রায়হান কবির মাদ্রাসায় পড়ালেখা করেছেন এবং জেএমবির ঢাকা অঞ্চলের কমাণ্ডার ছিলেন। পুলিশের কাছে তার পরিচয় ছিল তারেক নামে। এই তারেক গত ডিসেম্বর আশুলিয়ার বারইপাড়া পুলিশ হত্যা মামলার আসামী ছিল বলে জানান মনিরুল ইসলাম।

এছাড়াও গুলশান আর্টিসান বেকারি হামলার মামলা তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ দুজন প্রশিক্ষক সম্পর্কে তথ্য পেয়েছে। গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের একটা চরে তারা ট্রেনিং ক্যাম্প স্থাপন করেছিল। সেখানে সাতজনকে প্রশিক্ষণ দিয়েছিল যে দুই প্রশিক্ষক তাদের একজন ছিল ওই তারেক।

কল্যাণপুরে পুলিশি অভিযানে নিহত অন্যান্যদের বিস্তারিত পরিচয় জানিয়ে মনিরুল ইসলাম আরও বলেন এদের মধ্যে তিনজন ছিল নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। একজন নর্থ সাউথ থেকে পাস করে বেরিয়েছে। বাকি দুজন নর্থ সাউথে অধ্যয়নরত ছিল।

তিনজন হল মাদ্রাসা ব্যাকগ্রাউন্ডের। একজন একেবারেই স্বল্পশিক্ষিত –ক্লাস ফোর পর্যন্ত পড়েছে। আরেকজন নোয়াখালি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে পড়াশোনা করত।

অভিযানে নিহত তালিকার আরেকজন আকিফুজ্জামান খানও ছিল নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ছাত্র এবং তার দাদা ছিলেন মোনেম খান, যিনি ছিলেন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গভর্ণর। এর আগে জাতীয় পরিচয়পত্রের সূত্র ধরে সন্দেহভাজন সাত জঙ্গির পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হয় পুলিশ।

আজ অষ্টম যে ব্যক্তির পরিচয় প্রকাশ করেছে পুলিশ সেই রায়হান কবিরের চাচা আব্দুর রউফ বলছেন কৃষিজীবী বাবার চার সন্তানের মধ্যে কনিষ্ঠ রায়হান ঢাকায় পোশাক কারখানায় কাজ করত বলেই জানতেন তারা।

প্রায়ই একই ধরনের পরিবারের সন্তান দিনাজপুরের আব্দুল্লাহ, যার নাম বুধবারেই প্রকাশ করেছিল পুলিশ। তার ভাই আবুল কালাম আজাদ জানিয়েছেন তাদের পারিবারিক পেশা মূলত রাজমিস্ত্রি ও কাঠমিস্ত্রি। এভাবেই ভাইয়ের পড়ার খরচ যোগাতেন তারা।

যে আকিফুজ্জামান খানকে সাবেক পূর্ব পাকিস্তানের গভর্ণর মোনেম খানের নাতি বলে উল্লেখ করেছেন পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম, তিনি ঢাকার গুলশানের অধিবাসী।

আর যুক্তরাষ্ট্রেই শৈশব কাটিয়ে ঢাকায় এসে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা শেষ করেছেন তাজ উল হক রাশিক। আর ওই একই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাজেদ রউফ অর্ক ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক।

কল্যাণপুরে অভিযানের আগে ঢাকার গুলশানের হোলি আর্টিজান বেকারির ভয়াবহ হামলার ঘটনায় নিহত জঙ্গীদের মধ্যেও ছিল একই সাথে এমন ধনী ও নিম্নবিত্ত পরিবারের সন্তানরা। বিবিসি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: