সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ওসমানীনগরে অটোরিকশা চলাচল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগ চরমে

1438498065বিশেষ প্রতিনিধি::
মহাসড়কবেষ্টিত ওসমানীনগরে অটোরিকশা (সিএজি) চলাচল না করায় যানবাহনে অভাবে বিদ্যালয় ও কলেজে যাওয়া ছেড়ে দিয়েছে এলাকার স্কুল ও কলেজে অধ্যায়রত অধিকাংশ শিক্ষার্থী। বিদ্যালয় ও কলেজে যাওয়ার জন্য সকাল থেকে রাস্তায় ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থেকেও যানবাহন না পাওয়ায় স্কুল ও কলেজের সময় চলে যাচ্ছে। তাই বাধ্য হয়ে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে যাওয়া ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিভাবকসহ কলেজগামী শিক্ষার্থীদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে।

অন্যদিকে যানবাহনের অভাবে সাধারণ মানুষ বাজারে আসতে না পারায় উপজেলার বাণিজ্যিক কেন্দ্রগুলো ক্রেতাশূন্য হয়ে পড়েছে। এর ফলে ব্যবসায়ীরা গুনছেন লোকসান।

২০১৪ সালের ১৭ ডিসেম্বর সংঘর্ষের ঘটনায় ওসমানীনগর থানার তৎকালীন ওসি মো.মোস্তাফিজুর রহমানের মৃত্যুর ঘটনার পর থেকে সরকারি নিষেজ্ঞাসহ একের পর এক বিছিন্ন ঘটনার জন্য থেমে থেমে চলছে উপজেলার সহস্রাধিক অটোরিকশা (অটোরিকশা) চালক ও মালিকদের ভাগ্যের চাকা। মহাসড়কে অটোরিকশা নিয়ে উঠতে না পারায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন সহস্রাধিক চালক। কোনো কোনো চালকরা কৌশলে অটোরিকশা চালিয়ে কোনো রকমে সংসার চালিয়ে গেলেও গত ২০ জুলাই বুধবার হাইওয়ে পুলিশের সাথে অটোরিকশা চালকদের সংঘর্ষের ঘটনায় পর গ্রেফতার আতঙ্কে গত এক সপ্তাহ থেকে আবারও অটোরিকশা নিয়ে রাস্তায় বের হতে পারছেন না চালকরা। এর ফলে অটোরিকশা (অটোরিকশা) শূন্য হয়ে পড়ছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের এ উপজেলার অংশ। শিক্ষার্থী,সাধারণযাত্রীসহ জনজীবনে চলে এসেছে চরম ভোগান্তি। সহজলভ্য এই তিন চাকার যানবাহনের অভাবে লোকাল বাসে উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবুল লেইছ বলেন, এ উপজেলায় অনেক বিদ্যালয় মহাসড়কের পার্শ্ববর্তী। অধিকাংশ শিক্ষার্থীরাই মহাসড়ক দিয়ে বিদ্যালয়ে আসতে হয়। মহাসড়কে অটোরিকশাচালিত আটোরিকশা চলাচল না করায় অধিকাংশ শিক্ষার্থীরাই বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত রয়েছে।
উপজেলার প্রধান বাণিজ্যিক প্রাণকেন্দ্র গোয়ালাবাজারের হোটেল ব্যবসায়ী কামাল মিয়া, ব্যবসায়ী নিলু বাবু, জন্টু পাল বলেন, উপজেলার লোকজন চলাচলের প্রধান যানবাহন হচ্ছে অটোরিকশা। মহাসড়কবেষ্টিত এলাকায় অটোরিকশা চলাচল করতে না পারায় সাধারণ মানুষ যানবাহনের অভাবে বাজারগুলোতে আসতে পারছেন না। এতে ব্যবসায়ীদের লুকসান গুনতে হচ্ছে।

নার্গিস বেগম নামের এক শিক্ষিকা জানান, অটোরিকশা চলাচল না করায় যানবাহনের অভাবে প্রায় দশ মাইল পায়ে হেঁটে কর্মরত বিদ্যালয়ে আসতে হচ্ছে। এখন আবার পায়ে হেঁটেই দশ মাইল যেতে হবে।

অটোরিকশা চালক ছালিক, জুবায়ের, শাহজাহান মিয়া ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান,দেশে এখন গরিব মারার আইন হয়েছে। আমাদের এলাকাটি মহাসড়ক কেন্দ্রিক হওয়ায় গ্রাম্য রাস্তায় তেমন যাত্রী পাওয়া যায় না। এছাড়া চলতি বর্ষায় গ্রাম্য রাস্তাগুলো যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় বাধ্য হয়েই অটোরিকশা নিয়ে মহাসড়কে উঠতে হচ্ছে। এ সুযোগে পুলিশ মামলার ভয় দেখিয়ে মহাসড়কে উঠা প্রতিটা অটোরিকশা থেকে বিভিন্ন হারে টাকা আদায় করে যাচ্ছে। এর ফলে বেকার হয়ে পরিবারের সদস্যদের মানবেতর জীবনযাপন করছি।

এ ব্যাপারে শেরপুর হাইওয়ে থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মুজিবুর রহমান বলেন, অটোরিকশা চলাচল না করার কারণে শিক্ষার্থীসহ যাত্রীরা কিছুটা দুর্ভোগ পোহাচ্ছে এটা সত্য। এ ব্যাপারে আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনাও করেছি। কিন্তু আইনতো আর অমান্য করা যাবে না। তাই সরকারি নির্দেশনুযায়ী মহাসড়কের এ অংশে যাতে অটোরিকশা চলাচল করতে না পারে সে লক্ষ্যে শেরপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। অযথা কোনো চালকদের হয়রানি করা হচ্ছে না।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৭ ডিসেম্বর উপজেলার গোয়ালা বাজার এলাকায় অটোরিকশা চালকদের দু-গ্রুপের সংর্ঘের ঘটনায় থানা তৎকালীন ওসি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের মৃত্যুর ঘটনা পর প্রায় তিন মাস এ এলাকায় অটোরিকশা চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এর পর সরকার মহাসড়কে অটোরিকশা চলাচল নিষিদ্ধ করা সহ গত ২০ জুলাই ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ওসমানীনগরের কাগজপুর এলাকায় অটোরিকশা চালক ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

এ ব্যাপারে ২০ জুলাই রাতে শেরপুর হাইওয়ে থানা পুলিশের সার্জেন্ট শাহিন বাদি হয়ে দুই শতাধিক অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করে ওসমানীনগর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর থেকেই অটোরিকশাশূন্য হয়ে পড়েছে মহাসড়ক।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: