সর্বশেষ আপডেট : ১৪ মিনিট ২২ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তারেক রহমান কি মামুনের বোন জামাই?

Taraq-mamun-0120131117162911নিউজ ডেস্ক:
‘সিঙ্গাপুরে তারেক রহমান নয় মামুন টাকা পাঠিয়েছে, মামুনের সঙ্গে তারেক রহমানের কোনো সম্পর্ক নেই’ -বিএনপির আইনজীবীদের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, তারেক রহমান কি মামুনের বোন জামাই?

সোমবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর একটি কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত বর্ধিত সভায় তিনি এমন মন্তব্য করেন।

হানিফ বলেন, বিএনপির আইনজীবীরা বলেছেন, তারেক রহমান তো টাকা পাঠায় নাই। টাকা পাঠিয়েছে মামুন। আর মামুনের সঙ্গে তারেক রহমানের কোনো সম্পর্ক নেই। সিঙ্গাপুরে একটি ক্রেডিট কার্ড থেকে ৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা ব্যয় করা হয়েছে। তারেক কি মামুনের বোন জামাই? যে উনি (তারেক) মানুষের ক্রেডিট কার্ড দিয়ে ৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা ব্যয় করেছে?

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ কি এত বোকা? একজনের কার্ড দিয়ে টাকা খরচ করছে আবার বলছে তার সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই। শাক দিয়ে মাছ ঢাকার সুযোগ নেই।

বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যে হানিফ বলেন, তারেক রহমানের যে রায় হয়েছে আপনার আইনি লড়াই করে নির্দোষ প্রমাণের চেষ্টা করুন। এই তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং মামলা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে হয়েছে।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, তারেক রহমানের বিরুদ্ধে নিম্ন আদালতের যে বিচারক রায় দিয়েছিল সে আরেক অপরাধী। অপরাধী বলেই স্বপরিবারে বিদেশে পালিয়ে গেছে। অর্থের বিনিময়ে তারেক রহমানকে খালাস দিয়েছিল।

তারেকের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতের দেওয়া রায় রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করার হুমকি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করার নামে নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করলে দেশের মানুষ বরদাশত করবে না। এই অপরাধীর পক্ষে মাঠে নেমে নৈরাজ্য সৃষ্টির কোনো সুযোগ নেই।

‘এই সরকার দেশকে ধ্বংস করে দিচ্ছে’ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ধ্বংস বাংলাদেশ হচ্ছে না। আপনার জঙ্গিবাজ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তার দুর্নীতিবাজ পুত্রের কারণে আপনার দল ধ্বংস হচ্ছে। আপনার ভেবেছেন সন্ত্রাসী করে সরকারের পতন ঘটবে। কোনো ষড়যন্ত্র করে কোন লাভ নেই।

দেশের সন্ত্রাস-নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডে আন্তর্জাতিক কোনো সংগঠন জড়িত নয় উল্লেখ করে হানিফ বলেন, এর পেছনে মূলত দুটি রাজনৈতিক দল জড়িত। একটি হচ্ছে বিএনপি, আরেকটি জামায়াত। প্রত্যেকটি ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত, যারা ধরা পড়েছে, যারা ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে তারা বিএনপি-জামায়াত।

হানিফ বলেন, তারেক রহমান লন্ডনে বসে ইহুদি-নাসারার সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। মেন্দি এন সাফাদি পত্রিকায় দেওয়া সাক্ষাতকারে তারেক রহমানের সঙ্গে বৈঠকের খবর স্বীকার করেছে। এই খবর প্রকাশ হওয়ার পরই দেশে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও গুপ্ত হত্যায় ভিন্ন মাত্রা পেয়েছে।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি রহমতুল্লাহর সভাপতিত্বে সভায় পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান। এছাড়া স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আন্তর্জাতিক সম্পাদক কর্ণেল (অব.) ফারুক খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।জাগো নিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: