সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৫২ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এটি এখনই করা না হলে তা প্রাণঘাতী রূপ নেবে: এরদোগান

147837_1আন্তর্জাতিক ডেস্ক: তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান বলেছেন, সর্বোচ্চ সামরিক কাউন্সিলের যে মিটিং আগস্টের ১ তারিখ হওয়ার কথা ছিল, তা সামরিক বাহিনী পুনর্গঠনের জন্য এ সপ্তাহে এগিয়ে আনা হতে পারে। প্রধানমন্ত্রী এই কাউন্সিলের সভাপতি, তার সাথে আছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও চিফ অব স্টাফ। এ বিষয়ে করণীয় ঠিক করতে তারা একসাথে কাজ করছেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই নতুন একটি কাঠামো তৈরি হবে। এই নতুন কাঠামোর মধ্যে সশস্ত্র বাহিনী নতুন করে উদ্দীপ্ত হবে।

দেশব্যাপী জরুরি অবস্থা ঘোষণার পর ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

এরদোগান বলেন, ‘এসব কিছু অনুমোদিত হলে বাহিনীর জন্য তা হবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া, যা কখনো থামবে না। পরিকল্পনা অনুযায়ী এই সংস্কার প্রক্রিয়া চালিয়ে যাবো।’

এক প্রশ্নের জবাবে প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, নতুন একটি অভ্যুত্থান চেষ্টা সম্ভব; কিন্তু তা সহজ নয়। আমরা আরো বেশি সজাগ।

গোয়েন্দা ব্যর্থতার বিষয়ে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘এটি স্পষ্ট যে আমাদের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর কিছু দুর্বলতা ও ফাঁকফোকর ছিল। এখানে লুকানো বা অস্বীকার করার কিছু নেই। আমি জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার প্রধানকে এসব বলেছি।’

অভ্যুত্থান চেষ্টার সময় প্রেসিডেন্ট প্রাসাদেও আক্রমণের ষড়যন্ত্র হয়েছিল উল্লেখ করে এরদোগান এ ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী ফেতহুল্লাহ গুলেনকে দায়ী করেন। এরই মধ্যে গুলেনের অনুসারী ৬০ হাজারের বেশি সৈন্য, পুলিশ, বিচারক, সরকারি ও শিক্ষা কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার, বরখাস্ত কিংবা জিজ্ঞাসাবাদের অধীনে নেয়া হয়েছে।

তুরস্কের ইতিহাসের অন্যতম জনপ্রিয় রাজনীতিক এরদোগান। এখন পর্যন্ত ১০টিরও বেশি নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন তিনি। তৃণমূল থেকে রাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় নাগরিকদের মধ্যে রয়েছে তার ব্যাপক জনপ্রিয়তা।

কিন্তু সাম্প্রতিক এ অভ্যুত্থান ষড়যন্ত্র তার সংবিধান পরিবর্তনের সিদ্ধান্তে কোনো প্রভাব ফেলবে কি না- এমন প্রশ্নের সরাসরি জবাব দেননি এই নেতা। কিছু দিন ধরেই দেশটিতে সংবিধান পরিবর্তন করে পুরোপুরি প্রেসিডেন্সিয়াল সরকারব্যবস্থায় ফিরে যাওয়ার বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে। এ বিষয়ে এরদোগান বলেন, সীমিত আকারে সংবিধান সংশোধনের বিষয়ে বিরোধী দলগুলোর সাথে ঐকমত্য হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত তুর্কি বিরোধী নেতা গুলেনের সাথে সম্পর্কিত আন্দোলনকে আরেকটি বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে দেখা হবে বলে জানান প্রেসিডেন্ট। গুলেনের নেতৃত্বাধীন আন্দোলনকে তুরস্কের নিষিদ্ধ ঘোষিত কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি বা পিকেকের সাথে তুলনা করেন তিনি। গুলেনের আন্দোলনকে ক্যান্সার হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটি নির্মূল করা না হলে তা প্রাণঘাতী রূপ নেবে।

গুলেনপন্থীদের বিদ্রোহে জড়িয়ে পড়ার মতো পরিস্থিতি দেখা দিতে পারে তা কখনোই কল্পনা করা যায়নি বলে জানান এরদোগান। গুলেনপন্থীদের তিনি বিশ্বাসঘাতক বলে অভিহিত করেন। তিনি দাবি করেন, সব সময়ই তারা দুই মুখো চরিত্রের ছিল এবং এবারে তাদের সত্যিকার স্বরূপ বের হয়ে এসেছে।

ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানের হোতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তিন মাসের জন্য জারি করা জরুরি অবস্থার বিল বৃহস্পতিবার তুরস্কের পার্লামেন্টে পাস হয়েছে । এমপিদের প্রত্যক্ষ ভোটে (৩৪৬-১১১) এই বিল পাস হয়। এর আগে তিন মাসের জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছিলেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান। দেশটির শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করে টেলিভিশনে এ ঘোষণা দেন তিনি।

প্রসঙ্গত, তিন মাসের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করা হলেও তা ৪৫ দিনের বেশি কার্যকর রাখার প্রয়োজন হবে না বলে মনে করেন তুর্কি উপপ্রধানমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার বেসরকারি টেলিভিশন এনটিভি তুর্কি উপপ্রধানমন্ত্রী নুমান কুরতুলমুসের উদ্ধৃতি দিয়ে এ খবর জানায়।

উপপ্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা যত দ্রুত সম্ভব জরুরি অবস্থার অবসান ঘটাতে চাই। আমরা মনে করি পরিস্থিতি এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে স্বাভাবিক হবে। আশাকরি এরপর আর জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ানোর প্রয়োজন হবে না।’

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: