সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বাংলাদেশি পর্যটক বৃদ্ধিতে উদ্বিগ্ন ভারত, কড়া নজরদারির নির্দেশ

India-watch-on-Bangladeshi-touristsনিউজ ডেস্ক : বিগত পাঁচ মাসে বাংলাদেশ থেকে যাওয়া পর্যটকের সংখ্যা হঠাৎ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় চিন্তিত ভারত। এ অবস্থায় পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে এসব পর্যটকদের ওপর কড়া নজরদারি রাখতে একটি উপদেশ বার্তা পাঠিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, উল্লিখিত সময়ে উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে বাংলাদেশি পর্যটক সংখ্যা। ২০১৫ সালের তুলনায় দেশটিতে প্রায় এক লাখেরও বেশি ভ্রমণ করেছেন বাংলাদেশি পর্যটক। বিশেষত দেশটিতে সন্ত্রাসী তৎপরতার পটভূমিতে পর্যটকদের এ ক্রমবর্ধমান সংখ্যা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের কাছে উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এ বার্তায় বেঙ্গল ও কলকাতা পুলিশকে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে যাওয়া সব পর্যটকের রেকর্ড রাখতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। রাজ্য স্বরাষ্ট্র অধিদপ্তরের তথ্য মতে, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত দেশটিতে বাংলাদেশি পর্যটক প্রবেশ করেছে ৫ লাখ ৫২ হাজার ৫১৯ জন। অন্যদিকে ২০১৫ সালের একই সময়ে এ সংখ্যা ছিল ৪ লাখ ৫৭ হাজার ৪৬৭ জন।
গড়ে বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়া পর্যটক গমনের হার বৃদ্ধি পেয়ে থাকে ৩ থেকে ৭ শতাংশ। কিন্তু চলতি বছরে এ সংখ্যা লাফ দিয়ে ১৮ শতাংশে ছুঁয়েছে।
ভারতের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের এক কর্মকর্তা জানান, পর্যটকদের এ চিত্র স্বাভাবিক প্রবাহের চেয়ে অতিরিক্ত বেশি। সাধারণত ইউরোপ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভারতে পর্যটক আসে ফেব্রুয়ারি থেকে মে মাসের মধ্যে। বাংলাদেশিরা সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে ভ্রমণ করে থাকে। হঠাৎ এ সংখ্যা লাফ দিয়ে বৃদ্ধি পাওয়ার পেছনে অনেক কারণ থাকতে পারে। তবে আমরা পুলিশকে পর্যটকদের প্রতি নজর রাখার জন্য নির্দেশনা দিয়েছি। বাংলাদেশের ২১ শতাংশ পর্যটক দক্ষিণ ২৪ পরগনার আন্তদেশীয় স্থলবন্দর হরিদাশপুর হয়ে বাসযোগে কলকাতা পৌঁছে।
তিনি আরও বলেন, হরিদাশপুর ক্রস পয়েন্ট সাধারণত সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এ রুট হয়ে ঢাকা থেকে বাসযোগে কলাকাতা পৌঁছে পর্যটকরা। আর অধিকাংশ মানুষই এ রুট ব্যবহার করে থাকে। অন্যদিকে অন্যান্য পয়েন্ট দিয়ে পর্যটক প্রবেশের হার কমেছে। দৃষ্টান্তস্বরুপ দিল্লি বিমানবন্দরে বাংলাদেশি পর্যটক প্রবেশের হার কমেছে। ফেব্রুয়ারি মাসে যেখানে ৩৩ শতাংশ পর্যটক গমন করেছে সেখানে মে মাসে গেছে ২৬ শতাংশ।
এক উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আমরা বিএসএফ ও কোস্টাল সিকিউরিটি গার্ডের সঙ্গে সমন্বয় রাখছি। নিয়মিত গোয়েন্দা তথ্য আদান-প্রদান করা হয়। আমরা তাদের নিয়মিত আকস্মিক অভিযান পরিচালনা করার নির্দেশ দিয়েছি।
পর্যটকদের ছবি তুলে রাখতে সকল হোটেলকে নোটিশ দিয়েছে কলকাতা পুলিশ। বিশেষত বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের পর্যটকদের ছবি তোলার পাশাপাশি পুলিশ সদর দপ্তরে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিশেষভাবে চার বা পাঁচজনের পর্যটক দল সম্পর্কে প্রশাসনকে অবহিত করার জন্য হোটেল মালিকদের বলা হয়েছে।
এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, স্থায়ী আবাসিক ঠিকানা সংবলিত পরিচয়পত্রসহ যথাযথ কাগজপত্র ছাড়া কাউকেই রুম দেয়া উচিত হবে না। এছাড়া চিকিৎসার জন্য শহরে আসা রোগী ও তাদের সঙ্গীদের ওপর নিবিড় নজরদারি রাখছি।-আমাদের সময় অনলাইন

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: