সর্বশেষ আপডেট : ২৪ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৫ মার্চ, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ চৈত্র ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মুখ দেখে ভুল করো না!

snake1467968663ডেইলি সিলেট ডেস্ক: ক্যামেরা ধরে ক্লিক করলেই শুধু ছবি হয় না। শৈল্পিক গুণাবলী সম্পন্ন একটি ছবি তুলতে অনেক বেশি সাধনাও করতে হয়েছে অনেক আলোকচিত্রীকে।

 

স্কটল্যান্ডের আলোকচিত্রী অ্যালেন ম্যাকফেদিন মাছরাঙার ছোঁ মেরে মাছ ধরার একটি নিখুঁত ছবি তোলার জন্য ব্যয় করেছেন ছয় বছর। এ ছবি তুলতে তিনি স্কটল্যান্ডের ক্রিককাডব্রাইট হ্রদের কাছে ক্যামেরা হাতে  ৪২০০ ঘণ্টা ঘুরেছেন বলে জানিয়েছিলেন গণমাধ্যমকে।

 

প্রতি বছর গড়ে ১০০ দিন তিনি কাটিয়েছেন হ্রদের পাড়ে। অবশেষে তিনি তার পছন্দ মতো ছবি তুলতে পেরেছেন। তিনি বলেছেন, ‘নিখুঁত ছবি তুলতে হাজার হাজার ছবি তুলেছি এবং এখন যখন পেছন ফিরে তাকাই বুঝতে পারি অনেক খাটতে হয়েছে।’

 

অ্যালেনের সেই ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও গণমাধ্যমে আলোচিত ও প্রশংসিত হয়েছিল।

 

একটি নিঁখুত ছবি তুলতে আলোকচিত্রীর দক্ষতা, অভিজ্ঞতা, স্থান, সময় ও বিষয় সব কিছুরই দরকার। ঠিক এরকম দক্ষতায় তোলা কয়েকটি আলোকচিত্র নিয়ে সাজানো হয়েছে এই ফটোফিচার।

 

এই আলোকচিত্রগুলো আপনাকে বিভ্রান্ত করতে পারে। প্রথমে দ্বিধায় পড়ে যেতে পারেন। একেবারে উপযুক্ত ও মোক্ষম সময়ে এসব ছবি তোলা হয়েছে।

 

আলোকচিত্রী জিওফ্রে বেকার (৫৭) যুক্তরাজ্যের দক্ষিণ ওয়েলসের গাওয়ার উপদ্বীপে হঠাৎ করেই দেখেন দুই মাথাওয়ালা একটি বন্য টাট্টুঘোড়া। সঙ্গে সঙ্গে তিনি একটি ছবি তুলে ফেলেন। আসলে দুটি ঘোড়া এমন অবস্থানে দাঁড়িয়েছিল যে দেখে মনে হচ্ছিল একটি ঘোড়ার দুই মাথা।

 

আলোকচিত্রী মিগুয়েল মারগারিদো (৪৪) তার এক বন্ধুর সঙ্গে গিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রুগার ন্যাশনাল পার্কে। সেখনে দুটি জেব্রার ছবি তুলেছেন দেখে মনে হচ্ছিল একটি জেব্রার শরীরে দুটি মাথা।

 

আরেকটি ছবিতে দেখা যায়, একটি মাথাবিহীন জিরাফ। আসলে জিরাফটি মাথা বাঁকিয়ে গা চুলকাচ্ছিল।

 

ভারতের রাজস্থান থেকে তোলা এই ছবি দেখে মনে হতে পারে মাথাবিহীন উট।

 

 ছবির এই ঈগলটি মূলত মাথা পেছন দিকে নিয়ে কিছু একটা করছিল।

 

কানাডীয় লাল মাথার কাঠঠোকরা দুটি এমনভাবে বসে আছে দেখে মনে হচ্ছে একটি কাঠঠোকরার দুটি মাথা।

 

এই পেঙ্গুইনটি দেখে মনে হচ্ছে এর মাথাই নেই।

 

ফ্লেমিঙ্গোর তিনটি শরীর, পাঁচটি পা এবং দুটি মাথা! আসলে প্রথম দেখায় এমনটিই মনে হবে যদি মোক্ষম সময়ে আপনি সেখানে থাকেন। আর সঠিক সময়ে এই সঠিক কাজ করেছেন সৌভাগ্যবান এক আলোকচিত্রী।