সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৩ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জাকির নায়েকের সহযোগী আরশিদ কুরেশি গ্রেপ্তার

photo-1469174111নিউজ ডেস্ক : ভারতের ইসলামবিষয়ক বক্তা জাকির নায়েকের অন্যতম সহযোগী আরশিদ কুরেশিকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির পুলিশ। ভারতীয় যুবকদের ধর্মান্তরিত করে মধ্যপ্রাচ্যের জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটে নিয়োগ করার অভিযোগ আনা হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। জাকির নায়েক প্রতিষ্ঠিত ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশন নামক সংস্থার সঙ্গে যুক্ত আরশিদ কুরেশি।

মহারাষ্ট্র পুলিশের সন্ত্রাস দমন শাখা এবং কেরালা পুলিশ গত বুধবার রাতে মুম্বাই শহরের সি-উড এলাকায় যৌথ অভিযান চালিয়ে আরশিদ কুরেশিকে গ্রেপ্তার করে। তাঁর বিরুদ্ধে ধর্মান্তরিত করে আইএসে যোগ দিতে বাধ্য করার অভিযোগ এনেছেন কেরালা রাজ্যের বাসিন্দা এবিন জ্যাকব।

এবিন জ্যাকবের বোন মরিয়ম ও তাঁর স্বামী বেস্টিন ভিনসেন্ট কিছুদিন ধরেই নিখোঁজ ছিলেন। তাঁদের নিখোঁজের পেছনে আরশিদ কুরেশির হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন এবিন।

এবিন জ্যাকবের অভিযোগ, তাঁর বোনজামাই বেস্টিনের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল আরশিদ কুরেশির। বেস্টিনকে ধর্মান্তরিত করার জন্য জোরাজুরি করতেন তিনি। পরিকল্পনা করে মরিয়ম ও তাঁর স্বামীকে ধর্মান্তরিত করে বাইরে পাঠিয়ে দিয়েছেন বলে দাবি করেন এবিন জ্যাকব।

কেরালা রাজ্যের এরনাকুলাম জেলার পুলিশ কমিশনার কে ভি বিজয়ন বলেন, কিছুদিন আগে একরকম জোর করেই এবিন জ্যাকবকে মুম্বাই নিয়ে যান বেস্টিন ভিনসেন্ট। সেখানে আরশিদ কুরেশির বাড়ির লাইব্রেরিতে চলত মগজ ধোলাই। সেখানে ইসলামকে সব ধর্মের মধ্যে শ্রেষ্ঠ বলে দাবি করতেন কুরেশি। এর পাশাপাশি ভারতীয় নাগরিকরা অধর্মের পথে হাঁটছে বলেও বোঝানো হতো। সেই মগজ ধোলাইয়ে পা না দিয়ে কেরালায় ফিরে যান এবিন। ফিরেই পুলিশের কাছে আরশিদ কুরেশির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। পরে কেরালা পুলিশ ও মহারাষ্ট্র পুলিশের সন্ত্রাস দমন শাখা যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে জাকির নায়েকের অন্যতম সহযোগী আরশিদ কুরেশিকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ কমিশনার কে ভি বিজয়ন আরো বলেন, আরশিদ কুরেশির বিরুদ্ধে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র, বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে বৈরিতা তৈরি এবং ইউএপি আইনে মামলা করা হয়েছে। মহারাষ্ট্র পুলিশের সন্ত্রাস দমন শাখার কর্মকর্তারা জিজ্ঞাসাবাদের পর কুরেশিকে কেরালা নিয়ে যাওয়া হবে।

জাকির নায়েকের সঙ্গে কোনোভাবে যোগাযোগ থাকা এবং পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া প্রথম ব্যক্তি হলেন আরশাদ কুরেশি। তাঁর গ্রেপ্তারের বিষয়ে ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের তরফ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, আরশাদ কুরেশিকে চার দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

গত ১ জুলাই ঢাকার গুলশানে জঙ্গি হামলার পরই গোয়েন্দাদের নজরে আসেন জাকির নায়েক। ধর্ম প্রচারের নামে যুবসমাজকে জঙ্গির দলে নাম লেখাতে তিনি উসকানি দিতেন বলেও অভিযোগ ওঠে।-এনটিভি

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: