সর্বশেষ আপডেট : ৮ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

অর্থ সংকট এবং প্রতিরোধের মুখে আইএস

is-purbo-poshchim-696x228
আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
অর্থ সঙ্কট এবং প্রতিরোধের মুখে কৌশল পাল্টাচ্ছে ইরাক ও সিরিয়া ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। সংগঠনটি বর্তমানে দলের সদস্যাদের নিয়মিত অর্থের যোগান দিতে না পারায় এবং অভ্যন্তরীণ দুর্নীতির কারণে কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছে।

সম্প্রতি কংগ্রেসে দেওয়া এক বক্তব্যে যুক্তরাষ্ট্রের সহকারি অর্থমন্ত্রী ড্যানিয়েল বলেন, আইএসের নগদ অর্থ ভান্ডার ও মজুদ তেলের ওপর জোটের বোমা হামলা, তাদের ব্যাংকিং ব্যবস্থা অচল করে দেয়া এবং আইএস নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে ইরাক সরকার অর্থ সরবরাহ বন্ধ করে দেয়ার কারণে অর্থনৈতিক টানাপোড়নের মধ্যে পড়েছে সংগঠনটি।

তিনি বলেন, ‘এসব কারণে আইএস তাদের যোদ্ধাদের কাছে ঠিকমতো অর্থ পাঠাতে পারছে না এবং আমরা দেখেছি, অনেক আইএস যোদ্ধা তাদের বেতন ও সুবিধাদি হ্রাস করা বা বিলম্বে পাঠানোর কারণে যুদ্ধক্ষেত্র ত্যাগ করছে।’

ওয়াশিংটন পোস্ট ও এনডিটিভির একাধিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত বাহিনী ইরাক এবং সিরিয়ায় আইএস নিয়ন্ত্রিত বেশকিছু স্থানের পুনর্নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে। এর ফলে এদের অর্থ উপার্জনের বেশকিছু উৎস বন্ধ হয়ে গেছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, যেসব গ্রাম ও শহর থেকে আইএস কর আদায় করত, সেগুলো তাদের আরব ও কুর্দি প্রতিপক্ষ দখল করে নিয়েছে। এমনকি আইএসের নিয়ন্ত্রণে থাকা অনেক তেলক্ষেত্রের দখলও হারিয়েছে আইএস। ফলে নতুন করে বিভিন্ন স্থানের দখল নেওয়ার জন্য আবারও সংগ্রাম করতে হচ্ছে সংগঠনটিকে।

এ বিষয়ে ব্রিংহ্যাম ইয়ং ইউনিভার্সিটির রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কুইন মেশাম বলেন, ‘দুই বছর ধরে বিভিন্ন যুদ্ধের পর দখল হওয়া সম্পদ, চাঁদাবাজি এবং জোর করে ছিনিয়ে নেওয়া অর্থ থেকেই তাদের সব উপার্জন আসত। আর এগুলো একবার ব্যবহারেই শেষ হয়ে যায়, সারা জীবন তো আর চলে না। কিন্তু এখন তারা দখল করা বিভিন্ন এলাকার ওপর থেকে নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছে। যার কারণে উপার্জনও কমতে শুরু করেছে।’

আরবের একটি গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আইএসের এক কর্মকর্তা বলেছেন, জানুয়ারি মাসে তাঁদের ২০০ কোটি ডলারের বাজেট ঘোষণা করা হয়।

সন্ত্রাসবাদ বিশ্লেষক বেঞ্জামিন বলেন, এটি হয়তো অতিরঞ্জিত একটি বাজেট। তবে এটাও ঠিক যে আইএসের কাছে এমন পরিমাণ অর্থ আছে যা দিয়ে তাদের খরচ চালানোর পরও কিছু উদ্বৃত্ত থাকে।

মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক গবেষক কলাম্ব স্ট্রাক বলেন, সব দেখেশুনে মনে হচ্ছে, এবার বাজেট কিছুটা সংকোচন করতে পারে আইএস। যোদ্ধাদের বেতনও কমিয়ে আনা হচ্ছে। আগে যে যোদ্ধারা ৩১ হাজার ডলারের বেশি বেতন পেতেন, তাঁদের এখন দেওয়া হচ্ছে সাড়ে ২৩ হাজার ডলার। সেই সঙ্গে কৃষিপণ্য ও মোবাইল ফোনের মতো সামগ্রীর ওপর আয়কর বাড়ানোরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংগঠনটি। এমনকি নিয়ন্ত্রিত এলাকার মানুষদের তেল পরিশোধন ও বিক্রির ওপরও আয়কর বাড়ানো হয়েছে।

অর্থ সংকটের পাশাপাশি প্রতিরোধের মুখে দখলকৃত এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছে আইএস। যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন যৌথ বাহিনী এবং কুর্দি যোদ্ধারা আইএসের হামলা প্রতিহত করছেন এবং একের পর এক আঘাত হানছেন আইএস ঘাটিতে।

যত বেশি শহরের ওপর থেকে আইএস নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছে, তত বেশি আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তারা। তবে বিশ্লেষকরা মনে করছেন, এভাবে সীমানা হারিয়ে বিশ্বের অন্য স্থানের দিকে বেশি ধাবিত হচ্ছে আইএস। সম্প্রতি প্যারিসে হামলায় ১৩০ জন নিহত হওয়ার উদাহরণ টেনে বলা হচ্ছে, ধারণা করা হচ্ছে আইএস তাদের নিরাপদ আশ্রয়স্থলের খোঁজে লিবিয়াসহ বিশ্বের অন্য স্থানের দিকে ধাবিত হচ্ছে।

সম্প্রতি ইরাকের উত্তরাঞ্চলে ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিদের একটি বড় হামলা প্রতিহত করেছে কুর্দি যোদ্ধারা। যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন যৌথ বাহিনীর সহায়তায় কুর্দি যোদ্ধাদের প্রতিরোধের মুখে ১৮০ আইএস জঙ্গি নিহত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত চালানো আইএসবিরোধী এ প্রতিরোধমূলক হামলা ৫ মাসের মধ্যে সবচেয়ে বড়। কুর্দি বাহিনীকে সহায়তা দিতে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত বিমান হামলা চালিয়েছে মার্কিন জোট। বিমান হামলায় কমপক্ষে ১৮০ জঙ্গি নিহত হয়েছে।

একই সঙ্গে ইরাক ও সিরিয়ায় অব্যাহতভাবে নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছে জঙ্গি সংগঠনটি। এর অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে ইরাকে এক সময় দখল করে নেয়া ভূখন্ডের প্রায় অর্ধেকেরই নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে সংগঠনটি।

মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন একথা জানিয়েছে। এর আগে পেন্টাগন জানায়, ইরাকে দখলে থাকা ৪০ শতাংশ ও সিরিয়ায় দখলে থাকা ১০ শতাংশ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছে আইএস যোদ্ধারা।

পেন্টাগনের মুখপাত্র পিটার কুক বলেন, ইরাকে বর্তমানে প্রায় ৪৫ শতাংশ অঞ্চলের দখল হারিয়েছে আইএস। আর সিরিয়ায় এ সংখ্যা ১৬ থেকে ২০ শতাংশ।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: