সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৮ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেটে এবার ৫ লক্ষাধিক শিশু খাবে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল

11স্টাফ রিপোর্টার::
‘ভিটামিন ‘এ’ প্লাস খাওয়ান, শিশুমৃত্যুর ঝুঁকি কমান’ স্লোগান সামনে রেখে শিশুদের খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল। এবার সিলেটে ৫ লাখ ২৭ হাজার ৬৮৪ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের প্রথম রাউন্ড উপলক্ষ্যে আগামীকাল শনিবার শিশুদেরকে ভিটামিন-এ খাওয়ানো হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

আগামীকাল সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত সিলেটের ১২ উপজেলা ও নগরীতে এই কার্যক্রম চলবে বলে পৃথক মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) সচিব বদরুল হক ও সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. হাবিবুর রহমান।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সম্মেলনকক্ষে সিলেটে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে সিসিকের সচিব বদরুল হক বলেন, নগরীর ২১০ টি স্থায়ী-অস্থায়ী এবং ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্রে মোট ৬৫ হাজার ৯৯ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এবার ৬-১১ মাস বয়সি শিশুদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৬ হাজার ৪শ’ ২২ জন, ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সি শিশুদের লক্ষ্যমাত্রা ৫৮ হাজার ২৭৫ জন, ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সি প্রতিবন্ধি শিশুদের লক্ষ্যমাত্রা ৪০ এবং ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সি প্রতিবন্ধী শিশুদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩শ ৬২ জন।
মোট কেন্দ্রের মধ্যে নিয়মিত টিকাদান কেন্দ্র রয়েছে ৩০টি, অনিয়মিত ৯৭টি, অতিরিক্ত কেন্দ্র ৬১ ও ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্রের সংখ্যা ২২। এই দিন নগর এলাকায় ৬৩০ জন স্বেচ্ছাসেবী টিকাদান কর্মসূচিতে সহযোগিতা করবেন।

অন্যদিকে, দুপুরে সিলেট সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, জেলার ১২ উপজেলার ৪ লাখ ৪১ হাজার ৮৭৮ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষমাত্র নির্ধারণ করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৬-১১ মাস বয়সি শিশুদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৪৫জার ৭২২জন এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সি শিশুদের লক্ষ্যমাত্রা ৩ লাখ ৯৬ হাজার ১০৬ জন ধরা হয়েছে বলে জানান তিনি। জেলার বার উপজেলার স্থায়ী-অস্থায়ী ২ হাজার ৫৬৩টি কেন্দ্রে ৬ হাজার ৮৬০ জন স্বেচ্ছাসেবি টিকাদান কর্মসূচিতে কাজ করবেন। এদিন প্রত্যেক কেন্দ্রে ৬-১১ মাস বয়সি প্রত্যেক শিশুকে ১টি করে নীল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল ও ১২-৫৯ মাস বয়সি শিশুকে ১টি করে লাল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। যদি কোন শিশু গত ৪ মাসের মধ্যে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খেয়ে থাকে তাহলে সেই শিশুকে আর ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবে না।

এছাড়া কান্নারত অবস্থায় বা জোর করে শিশুকে ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবে না। কোনো শিশুকে আস্ত বা গোটা ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবে না। ক্যাপসুলের মুখ কাঁচি দিয়ে কেটে ভিতরের তরলটুকু খাওয়াতে হবে।

এদিকে, জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন সফলে সাংবাদিকসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. হাবিবুর রহমান। গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেটে কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি সহযোগিতা কামনা করেন। সিভিল সার্জন অফিসে এই মতবিনিময়ের আয়োজন করা হয়। তিনি বলেন, শুক্রবার জুমার খুতবায় সিলেট অঞ্চলের ইমামগণ এ বিষয়ে আলোকপাত করবেন।

মতবিনিময় সভায় ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. আবুল কালাম আজাদ, মেডিকেল অফিসার সিরাজুম মুনির রাহেল, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম ও দৈনিক সমকালের স্টাফ রিপোর্টার মুকিত রহমানী বক্তব্য রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: