সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১২ বৈশাখ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দোয়ারাবাজারে বিজিবির মামলায় হয়রানির অভিযোগ

2.-daily-sylhet-Duarabazar-1তাজুল ইসলাম, দোয়ারাবাজার::
সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার সীমান্তে বিজিবির দেয়া মামলায় সমাজের বিশিষ্টজনদের অহেতুক হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে নির্দোষীদের মামলা থেকে অব্যাহতির দাবিতে এলাকাবাসী ফুঁসে উঠেছেন।

জানা যায়, গত ১৯ জুন মধ্যরাতে ভারত থেকে অবৈধভাবে পাথর বোঝাই কয়েকটি বারকী নৌকা দোয়ারাবাজার সীমান্তের ১২৪১/৮এস নং পিলার অতিক্রমকালে চেলা নদীতে টহলরত স্থানীয় সোনালী চেলা বিওপির জোয়ানদের ধাওয়া খেয়ে তড়িঘড়ি করে বারকি শ্রমিকরা ২টি নৌকা নদীগর্ভে ডুবিয়ে দিয়ে বাকি ৮/১০টি নৌকাসহ দ্রুত পালিয়ে যায়। তখন বিজিবি ডুবানো নৌকা দুটি উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এসময় নৌকাগুলি ছাড়িয়ে নিতে বারকি শ্রমিকসহ সংঘবদ্ধ জনতা সীমান্তরক্ষীদের উপর আক্রমন চালায়। সংবাদ পেয়ে বিওপি থেকে অতিরিক্ত বিজিবি সদস্য ঘটনাস্থলে পৌছামাত্র পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পরদিন নায়েক শামসুল আলম বাদী হয়ে ৭জনের নাম উল্লেখসহ গং অজ্ঞাত ৫০/৬০ জনকে আসামি করে দোয়ারাবাজার থানায় মামলা নং- ১৫, ধারা ১৪৩/১৮৬/৩৫৩ পেনালকোড রুজু করা হয়।

এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার ঘটনাস্থল উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়নের পূর্ব চাইরগাঁও কাস্টমঘাট এলাকায় সরেজমিন গিয়ে হয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান ভূঁইয়া, সাবেক গ্রাম সরকার আলকাছ আলী, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালেব, ১০৭ বছর বয়সী প্রবীণ মুরব্বি মহরম আলী, দোকানি রহিমুদ্দিন, বিশিষ্ট মুরব্বি মকবুল হোসেন, আব্দুল মতিন, স্বরাজ মিয়া, আব্দুল কদ্দুছ, বারকি শ্রমিক জিলু মিয়াসহ বিভিন্ন পেশার লোকজনের সাথে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, বিজিবির সাথে ঘটনাটি সত্য হলেও তাদের দায়েরকৃত মামলার এজহারে অভিযুক্ত চাইরগাঁও গ্রামের আব্দুল জব্বার, সোনাপুর গ্রামের ধন মিয়া ও লোভিয়া গ্রামের কামরুল ইসলাম আদৌ সৃষ্ট ঘটনার সাথে জড়িত নহেন। আমাদের জানামতে কোনো অনৈতিক কাজে তাদের সংশ্লিষ্টতা নেই।
বরং চোরাচালান প্রতিরোধে সীমান্তরক্ষীদের প্রায়ই সহােগিতা করে থাকেন তারা। শুধুমাত্র স্থানীয় কোন্দল ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই উদ্যেশ্য প্রণোদিতভাবে তাদেরকে মামলায় জড়ানো হয়েছে।

এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। কিন্তু প্রকৃত ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ছিলেন পার্শ্ববর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের কাজিরগাঁও এলাকার বারকি শ্রমিকসহ উগ্রপন্থিরা। পাথর বোঝাই বারকি নৌকার অবৈধ টোল আদায় নিয়ে সীমান্তরক্ষী ও তাদের নিয়োজিত সোর্সদের সাথে প্রায়ই তাদের দেন দরবার হয়ে থাকে। তাই বিষয়টি সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্ত নিরপরাধ ব্যক্তিদের মামলা থেকে অব্যাহতি প্রদানের জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবি জানান সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী।

fakhrul_islam

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: