সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৪১ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আইএস যেভাবে তরুণদের আকৃষ্ট করে

young_people-550x331নিউজ ডেস্ক : গত বছর তিন ব্রিটিশ তরুণী আইএস-এ যোগদানের পরই ইরাক ও সিরিয়া ভিত্তিক ইসলামি জঙ্গি সংগঠনটি কীভাবে তরুণদের আকৃষ্ট করে নিজেদের দলে ভেড়ায় তা নিয়ে ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, চটকদার সব কৌশল ব্যবহার করে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে আইএস পশ্চিমা তরুণ-তরুণীদের আকৃষ্ট করে। কিন্তু এরপরও প্রশ্ন থেকে যায় কীকরে জঙ্গি সংগঠনটির সদস্য সংগ্রহের কার্যক্রম এতোটা সফল হচ্ছে।

১. সামাজিক গণমাধ্যমে শক্তিশালি প্রচারণা যন্ত্র

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র জেন পিসাকি বলেন, “আইএসআইএল এর প্রচারণা যন্ত্রের মোকাবেলা করতে গিয়ে আমাদেরকে যে লড়াইটা করতে হচ্ছে তা নজিরবিহীন; আগে কখনো এমন যুদ্ধ করতে হয়নি আমাদের। এর মোকাবেলা করতে হলে আমাদেরকে আরো অনেক কিছুই করতে হবে। আইএস এর প্রচারণা যন্ত্র থেকে আমাদের বিরুদ্ধে প্রতিদিন অন্তত ৯০ হাজার টুইট চালাচালি হয়।”
এছাড়া জঙ্গি সংগঠনটি প্রতিনিয়তই উচ্চ মান সম্পন্ন নির্মাণ কৌশল ব্যবহার করে তাদের নিষ্ঠুর কার্যকলাপের ভিডিও ধারণ করে তা প্রচার করে। ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে অনলাইনে প্রচারকৃত একটি ছোট ভিডিও ক্লিপ ছিল হলিউডের অ্যাকশন সিনেমার ট্রেইলারের মতো। এতে স্লো-মোশনে বিস্ফোরণ এবং মার্কিন সেনাদের আগুনে পুড়িয়ে মারার দৃশ্য প্রচার করা হয়।
যুক্তরাজ্যের গোয়েন্দা নজরদারি বিভাগের প্রধান রবার্ট হান্নিগান বলেন, “আইএসআইএস এবং অন্যান্য চরমপন্থী সংগঠনগুলো টুইটার, ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপের মতো প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে তাদের টার্গেটকৃত লোকদের কাছে পৌঁছায়। এরপর তাদের সঙ্গে তারা যে ভাষা বোঝেন সে ভাষায় কথা বলে। এছাড়া জনপ্রিয় হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেও আইএস তাদের বার্তা ছড়িয়ে দেয়।
আর ইউরোপ-আমেরিকা থেকে আসা জঙ্গি সদস্যরা যখন দেশে ফিরে যায় তখন তাদেরকেও নতুন সদস্য সংগ্রহের কাজে ব্যবহার করে আইএস। এই চরমপন্থী সংগঠনটি তরুণীদের ওপর বিশেষ মনোযোগ দিচ্ছে বলেও দাবি বিশ্লেষকদের।
ইনস্টিটিউট ফর স্ট্র্যাটেজিক ডায়ালগ এর প্রধান নির্বাহী শাশা হ্যাভলিসেক বলেন, “পশ্চিমা দেশগুলো থেকে অসংখ্য অল্প বয়সী নারী আইএস এর প্রতি সমর্থন জ্ঞাপন করছে এবং এতে যোগদানের জন্য সিরিয়ায় পাড়ি জমাচ্ছে। এমনটা এর আগে আর কখনো দেখা যায়নি।”
“আর উচ্চ মান সম্পন্ন প্রচারণা ও সদস্য সংগ্রহের কৌশল ব্যবহার করে আইএস বিশেষ করে অল্প বয়সী মেয়েদের টার্গেট করছে।”

২. সুন্দর জীবনের প্রতিশ্রুতি

বিশ্লেষকরা বলেছেন, তরুণ-তরুণীদের মাঝে ধর্মীয় আদর্শবাদ এবং পশ্চিমা জীবন-যাপনের ধরণ থেকে সৃষ্ট জীবন নিয়ে হতাশা থেকে মুক্তির যে আকাঙ্খা কাজ করে তা পুঁজি করেই আইএস তাদের মগজ ধোলাই করে।
আইএসআইএস এক উৎকাল্পনিক রাজনৈতিক প্রকল্প, তথাকথিত খেলাফত ও একটি কেন্দ্রীভুত ইসলামি শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখায়। আর এ উদ্দেশ্যে পরিচালিত এক রোমাঞ্চকর যুদ্ধযাত্রার মোহে আবিষ্ট করে বিভ্রান্ত তরুণ-তরুণীদের নিজেদের দলে টেনে নেয় আইএস।
আর আনুগত্যের প্রতিদান স্বরূপ আইএস সদস্যদের জন্য রয়েছে আল্লাহর কাছ থেকে প্রাপ্ত পুরস্কার, যার মধ্যে “বিনামূল্যের বিদ্যুৎ ও পানি এবং আবাসন ব্যবস্থা যা খেলাফত বা রাষ্ট্র থেকে সরবরাহ করা হবে,” এমনটাই জানিয়েছেন আকসা মাহমুদ। ওই ব্রিটিশ কিশোর ২০১৩ সালে স্কটল্যান্ড থেকে সিরিয়ায় পাড়ি জমিয়ে আইএসআইএস-এ যোগ দেয়।
আইএসআইএস এর অধীনে জীবন যাত্রার ধরণ নিয়ে ব্লগে চটকদার সব প্রচারণা চালায় আকসা মাহমুদ। মাহমুদই ওই তিন ব্রিটিশ তরুণীকে আইএসে যোগদানে উদ্বুদ্ধ করে বলেও জানা গেছে।
মাহমুদ নারীদেরকে এই বলে আশ্বস্ত করে, “তোমরা সেখানে শ্যাম্পু, সাবান এবং নারীদের জন্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য সব ধরনের প্রসাধন সামগ্রীই পাবে। সূতরাং ঘাবড়ানোর কিছুই নেই। এমনটা ভেবোনা যে সেখানে তোমাদেরকে গুহা মানবীর মতো জীবন-যাপন করতে হবে।”
তবে পশ্চিমা কর্মকর্তাদের দাবি, আইএস তাদের অধীনে জীবন যাত্রার ধরণ নিয়ে যে চটকদার চিত্র হাজির করে তা ভুয়া।
ব্রিটিশ আইনপ্রণেতা ইয়াসমিন কোরেশি বলেন, “যারা আইএস এর ডাকে সাঁরা দেয় তারা ভুলভাবে এই বিশ্বাস করে যে, তারা বুঝি লোককে মানবিক সহায়তা করতে যাচ্ছে। এবং তারা এও বিশ্বাস করে যে, আইএস খারাপ কিছু করছে না। কারণ আইএস তাদের নিজেদের চিন্তার ধরণ অনুযায়ীই লোককে সহায়তা করছে।”

৩. ব্যাপকভাবে বিস্তৃত কিন্তু দক্ষ সদস্য সংগ্রহ নেটওয়ার্ক

আইএস এর সদস্য সংগ্রহের নেটওয়ার্ক কতটা দক্ষ তা জঙ্গি সংগঠনটিতে ওই তিন ব্রিটিশ তরুণীর যোগদানের ঘটনা থেকেই বোঝা যায়। তারা খুবই অল্প সময়ের মধ্যে লন্ডনের কেন্দ্রস্থল থেকে তুরস্কে গিয়ে পৌঁছায়। এরপর সেখান থেকে আইএস বা অন্য কোনো জঙ্গি সংগঠনে যোগ দেয়।
পশ্চিমা দেশগুলোর তরুণ-তরুণীদের সঙ্গে ইরাক ও সিরিয়ার আইএসআইএস জঙ্গিদের যোগাযোগ ঘটিয়ে দেওয়ার জন্য মধ্যস্থতাকারী একজন নারী বা পুরুষের উপস্থিতি এ ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে বলে জানান বিশ্লেষকরা।
যুক্তরাষ্ট্রের তদন্তকারীরা দেশটির কলোরাডো অঙ্গরাজ্য থেকে ২০১৪ সালে তিন কিশোরীর আইএস-এ যোগদান প্রচেষ্টার ঘটনাটি নিয়ে গবেষণা করেন। জঙ্গি সংগঠনটি কীভাবে পশ্চিমা দেশগুলো থেকে তরুণ-তরুণীদের আকৃষ্ট করে নিজেদের দলে ভেড়ায় তা আরো ভালোভাবে বুঝার জন্যই ওই গবেষণা করেন তারা।
এফবি আই দেখতে পায়, পশ্চিমা দেশগুলো থেকে ইতিমধ্যেই আইএসআইএস-এ যোগ দিয়েছে এমন জঙ্গি সদস্যরা সামাজিক গণমাধ্যম ব্যবহার করে ফের পশ্চিমা দেশগুলো থেকে সদস্য সংগ্রহের কাজ করছে।
ধারণা করা হয় ইরাক, সিরিয়া ও তুরস্ক থেকে আইএস এর সদস্যসংগ্রহকারীরা অনলাইনে কাজ করে। কিন্তু আইএস এর সদস্য সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত বেশ কয়েকজনকে চিহ্নিত করার পরও তাদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র। কারণ এদের বেশিরভাগেরই অবস্থান যুক্তরাষ্ট্রের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর আওতার বাইরে।

৪. পশ্চিমা দেশগুলোর সরকারকে টেক্কা দিয়ে চলছে আইএস

সামাজিক গণমাধ্যম সেবা প্রধানত পশ্চিমে আবিষ্কৃত হলেও আইএসআইএস এই প্ল্যাটফর্মটির ব্যবহারে পশ্চিমা দেশগুলোর সরকারকেও টেক্কা দিয়ে চলেছে।
২০১৪ সালে সিএনএন এর সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে সাবেক জিহাদি মাজিদ নওয়াজ বলেন, “আমরা পশ্চিমারা অনেক পেছনে পড়ে আছি। নতুন গণমাধ্যম প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে তারা আমাদের চেয়ে অনেক বেশি দক্ষ এবং এগিয়ে আছে।” মাজিদ নওয়াজ জঙ্গিবাদ থেকে তার নিজের বের হয়ে আসার গল্প নিয়ে “র্যাডিক্যাল: মাই জার্নি আউট অফ ইসলামিক এক্সট্রিমিজম” নামের একটি বইও লিখেছেন।
যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র জেন পিসাকি সিএনএনকে বলেন, “জঙ্গিদের কর্মকা-ের ধরণ প্রতিনিয়তই বিবর্তিত হয়ে আরো উন্নত হচ্ছে। সুতরাং আমাদেরকেও এর মোকাবেলায় পরিচালিত নিজেদের কর্মকা-ের প্রতিনিয়তই বিবর্তনের মাধ্যমে উন্নতি সাধনের বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে এবং সবচেয়ে কৌশলী উপায়ে এবং প্রতিটি আন্তঃসংস্থার সম্পদ ব্যবহার করে এর বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে।”-আমাদের সময়.কম

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: