সর্বশেষ আপডেট : ১৭ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রুমে গিয়ে হরভজন ও যুবরাজকে মেরেছিলেন শোয়েব আখতার!

13626532_590260951143866_3840033783296484632_nস্পোর্টস ডেস্ক: পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার মাঠে ও মাঠের বাইরের বিতর্কের জন্য প্রায়ই খবরের শিরোনামে পরিণত হতেন।
২০১১ সালের বিশ্বকাপে অবসর নিলেও আরেকবার শোয়েবের আগ্রাসী মনোভাবকে মিডিয়ার সামনে তুলে ধরলেন ভারতীয় অফস্পিনার হরভজন সিং।
শোয়েবের সাথে মাঠের বিতর্কে জড়িয়ে পড়ার নজির আছে হরভজন সিংয়ের। কিন্তু মাঠের বাইরে সাবেক এই পাকিস্তানি গতি তারকার সাথে দারুন বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল হরভজনের।
এক টিভি সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানালেন তিনি। হরভাজন বলেন, ‘শোয়েব আমাকে খুব গালাগালি করত। কিন্তু ও আমাদের সঙ্গেই থাকত, খেত। শোয়েব আমাদের খুব ঘনিষ্ঠ হওয়ায় আমাকে হয়ত খুব হাল্কাভাবে নিত। একবার ও আমাকে ছক্কা মারতে চ্যালেঞ্জ করল। এর জবাবে আমি ছক্কা মারতেই ও হতবাক হয়ে গিয়েছিল। এরপর পরপর দুটি বাউন্সার দেয় ও। আমি দুটি বাউন্সারই ডাক করি। এতে শোয়েব প্রচণ্ড খেপে আমাকে গালাগাল করল। আমিও ছেড়ে কথা বলার বান্দা নই। দু কথা ওকেও শুনিয়ে দিলাম। খেলার পর আবার সব ঠিকঠাক। একসঙ্গে বসে গল্প করলাম। যেন কিছুই হয়নি।’
শোয়েবকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে হরভজন আরও বলেন, ‘একবার তো শোয়েব হুমকি দিল যে, আমার রুমে এসে ও আমাকে মারবে। আমি ওকে বললাম, দেখাই যাক কে কাকে মারে। কিন্তু আমি খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। শোয়েব একবার রুমে এসে আমাকে আর যুবি (যুবরাজ সিংহ)-কে মেরেছিল। ওর চেহারা বড়সড়। তাই ওর সঙ্গে পেরে ওঠা খুব মুশকিল।’

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: