সর্বশেষ আপডেট : ৩৯ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আতঙ্ক-ভয়ভীতি দমাতে পারেনি ঈদের আনন্দ লোকে লোকারণ্য মাধবকু- জলপ্রপাত এলাকা

4c482588-b55f-4528-bf98-aa2b95211a75জালাল আহমদ ::
যেখানে একবার আসলে পর্যটকরা ফিরে যেতে চান না-সেটি হচ্ছে দেশের অন্যতম পিকনিক স্পট মৌলভীবাজারের বড়লেখায় অবস্থিত মাধবকু- জলপ্রপাত। এবার ঈদে নয় দিনের টানা ছুটি ছিলো। ছুটিতে তো বটেই ঈদের ৫ম দিনেও উপজেলার দর্শনীয় স্থানগুলো বিশেষ করে মাধবকু- ও পরীকু- ঝরণায় প্রকৃতিপ্রেমীদের পদচারণায় মুখরিত। এবার লম্বা ছুটি থাকায় প্রিয়জনদের সাথে ঈদের আনন্দ উদযাপন করতে ঈদের দিন থেকে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের অপরূপ নিদর্শন জেলার উত্তরের প্রান্তিক জনপদ বড়লেখায় দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা পর্যটকদের উপচেপড়া ভীড় ছিলো লক্ষ্য করার মতো। সম্প্রতি ঘটে যাওয়া একাধিক জঙ্গি হামলার আতঙ্ক ও ভয়ভীতি দমাতে পারেনি ঈদের আনন্দ।

দেশের অন্যতম আকর্ষণীয় জলপ্রপাত মাধবকু-, দিগন্ত বিস্তৃত সবুজ চা বাগান, আকাশস্পর্শী পাথারিয়া পাহাড় ও নয়নাভিরাম হাকালুকি হাওরও পর্যটকের মন ও দৃষ্টি কেড়ে নিচ্ছে। হাতছানি দিয়ে কাছে টেনে নিচ্ছে প্রকৃতিপ্রেমীদের। বয়সের ভেদাভেদ ভুলে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে পড়েছে প্রতিটি প্রাণে, নবোদ্দ্যামে।

এখানকার উন্মুক্ত বাতাস, সবুজ প্রকৃতি আর অনেকটা অজানা ঐতিহাসিক নিদর্শন শহরের কান্ত মানুষকে কাছে টেনে নেয় সৌন্দর্য্যরে স্বমহিমায়।
সরেজমিনে মাধবকু- পর্যটন এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, লোকে লোকারণ্য মাধবকু- ইকোপার্ক এলাকা। তিল ধারণের ঠাঁই যেনো নেই মাধবকু- জলপ্রপাত এলাকায়। নানা বয়সের নানা বর্ণের মানুষের পদচারণায় মুখরিত জলপ্রপাত এলাকা। ঈদের দিন থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মাইক্রোবাস এবং বাস বোঝাই করে মাধবকু- ঝর্ণা দেখতে ভীড় জমাচ্ছেন ভ্রমণপিপাসুরা। পর্যটকের আগমনে হাসি ফুটে উঠেছে পর্যটন এলাকার ব্যবসায়ীদের মধ্যেও। কেননা গত কয়েক বছর ধরেই রাস্তার বেহাল দশার কারণে পর্যটক আগমনে হ্রাস পেয়ে যায়। সম্প্রতি মাধবকু- পর্যন্ত রাস্তাটি সংস্কার কাজটি সম্পন্ন হওয়ায় এ সড়কটি ভিন্ন সৌন্দর্য্যরে প্রতীকে রূপ নিয়েছে। তরুণ-তরুণীরা এখানে সেলফি তোলে।

ইজারাদার সূত্র জানায়, মাধবকু-ে ঈদের দিন বৃহস্পতিবার ৫ হাজার ৫০০, শুক্রবার প্রায় ৫ হাজার ও শনিবার দুপুর পর্যন্ত সাড়ে ৩ হাজার পর্যটকের আগমন ঘটেছে। ঈদের চতুর্থ দিন পর্যন্ত এখানে অন্তত ৩৫ হাজার পর্যটকরে আগমন ঘটেছে। এবার ঈদ বর্ষাকালে হওয়ায় ঈদের ছুটিতে পর্যটকরা ভীড় করেছেন মাধবকু- জলপ্রপাতে। প্রায় ২০০ ফুট উচ্চতার মাধবকু- জলপ্রপাত, জলপ্রপাতের উপরে পরীকু-, বিশাল পাহাড়, শ্যামল-সবুজ বৃক্ষরাজিবেষ্টিত ইকোপার্ক, পাহাড়ি ঝর্ণার প্রবাহিত জলরাশির কলকল শব্দ, চা বাগান, কমলা বাগান এসব মিলিয়ে মাধবকু-ে বেড়াতে গিয়ে মুগ্ধ হচ্ছেন পর্যটকরা।

পর্যটকদের চিত্ত বিনোদনের জন্য পর্যটন কর্পোরেশনের নির্মাণ করা হাতি, পেঙ্গুইন, মৎস্যকন্যা, বাঘ, ভাল্লুক, বক, ঈগল পাখি, কুমির, বানর ইত্যাদির ভাস্কর্য আগত শিশু-কিশোরসহ বিভিন্ন বয়সী দর্শনার্থীকে বাড়তি আনন্দ প্রদান করছে। অন্যতম আকর্ষণ কৃত্রিমভাবে তৈরিকৃত সুইমিং পুল, পর্যটকদের দৃষ্টি কাড়ছে।

সিলেট থেকে মাধবকু-ে বেড়াতে আসা বেসরকারি নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাক্তারি বিভাগের শিক্ষার্থী মাহবুব রুহিন, আইন বিষয়ের শিার্থী রাখাল দাস জানান, মাধবকু- ছোটোকাল থেকে দেখে আসছি। যতো দিন যাচ্ছে, এর সৌন্দর্য্য বিমোহিত করছে। জলপ্রপাত দেখে ভালো লাগলেও তীব্র যানজটের কারণে অনেক জায়গা পায়ে হেঁটে আসতে কষ্ট হয়েছে।

ময়মনসিংহ থেকে বেড়াতে আসা রেদোয়ান, তানিম, আনন্দ প্রমুখ শিক্ষার্থী জানান, ঈদের ছুটিতে বন্ধুরা মিলে মাধবকু-ে বেড়াতে এসেছেন। এখানকার পাহাড় ও প্রকৃতি দেখে তাদের খুব ভালো লেগেছে। এখানে এসে অনেকের কথায় আমরা সবাই গেলাম হাকালুকি হাওরে। হাওরের বর্ষাকালের রূপ ভোলার মতো নয়।

এদিকে এবারের ঈদ বর্ষাকালে হওয়ায় এশিয়ার বৃহৎ জলাভূমি হাকালুকি হাওরের নয়নাভিরাম দৃশ্য উপভোগ করতে ভীড় বেড়েছে পর্যটকদের। হাওরের অপরূপ দৃশ্য উপভোগ করার জন্য বনবিভাগের নির্মাণ করা ওয়াচ টাওয়ার, জলসিঁড়ি দৃষ্টি কেড়েছে সবার। বিকেলে হাওরে সূর্যাস্তের দৃশ্য অবলোকনসহ পুরো হাওরে নৌকা চড়ে ঘুরে বেড়ানোর মজাই আলাদা-জানালেন স্বপন আহমদ নামের এক পর্যটক।

বড়লেখা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: মনিরুজ্জামান জানান, মাধবকু- জলপ্রপাতে আগত পর্যটকদের নিরাপত্তায় পর্যটন পুলিশসহ সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ সার্বণিক দায়িত্ব পালন করছে। আগামী সপ্তাহ পর্যন্ত তারা দায়িত্বে থাকবে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: