সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ২২ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আজ ইউরোর ফাইনাল : রোনালদোর পর্তুগালের সামনে উড়ন্ত ফ্রান্স

15663খেলাধুলা ডেস্ক ::
ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শুরুর দিকটাতে পর্তুগালকে নিয়ে খুব একটা আশা করেননি অনেকে! গ্রুপপর্বের তিন ম্যাচে ড্র করেছিল তারা। বলতে গেলে ভাগ্যের জোরে গ্রুপের তৃতীয় সেরা দল হিসেবে পরবর্তী রাউন্ডে উঠেছিল পর্তুগিজরা। কোয়ার্টার ফাইনালে পোল্যান্ডের বিপক্ষে ১২০ মিনিট লড়াইয়ের পরও সেই ড্র! টাইব্রেকারে গিয়ে জয় তুলে নিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট পায় ফার্নান্দো সান্তোসের দল।

ওই পর্যন্ত পর্তুগালের এমন ম্যাড়ম্যাড়ে ভাবের কারণ ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো? তখনও যে আসল রূপটা দেখাতে পারেননি তিনি। সেমিফাইনালে ঠিকই জ্বলে উঠেছেন তিনবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার। একাই তো হারিয়ে দিলেন গ্যারেথ বেলের ওয়েলসকে, ২-০ গোলে। এই ম্যাচে নিজে একটি গোল করলেন, আর বাকি গোলটি করালেন নানিকে দিয়ে। এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের আগে দারুণ ছন্দে ফিরেছে ২০০৪ সালের পর দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে রোনালদোর পর্তুগাল।

আজ রোববার (১০ জুলাই) ইউরো-২০১৬এর ফাইনালে আসরের শুরু থেকেই উড়তে থাকা ফ্রান্সের মুখোমুখি হচ্ছে পর্তুগাল। ম্যাচটি মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়। সরাসরি সম্প্রচার করবে সনি সিক্স ও সনি ইএসপিএন। এই ম্যাচে দলের পাশাপাশি রোমাঞ্চ ছড়াবে রোনালদো-গ্রিজম্যান লড়াইও। তাই একটি ধ্রুপদি লড়াই উপভোগ করার অপেক্ষায় রয়েছেন ফুটবলপ্রেমীরা।

এদিকে, ছন্দে ফেরা পর্তুগালকে নিয়ে বেশ সতর্ক ফ্রান্স শিবির। জার্মানিকে ২-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠলেও সতীর্থদের পা মাটিতেই রাখতে বললেন ফরাসি দলের অন্যতম সেরা ফুটবলার অ্যান্টোনিও গ্রিজম্যান। রোনালদোদের বিপক্ষে ম্যাচটি খুব চ্যালেঞ্জিং হবে বলে মনে করেন ফ্রান্সের ফরোয়ার্ড। বলেন, ‘এখন ফাইনাল নিয়ে ভাবছি আমরা। পর্তুগালের বিপক্ষে ম্যাচে আমাদের সম্ভাবনা ফিফটি-ফিফটি। এই ফাইনালে যে কোনোও কিছুই ঘটতে পারে। আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।’

এর আগে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে দুইবার মুখোমুখি হয়েছিল পর্তুগাল ও ফ্রান্স, ১৯৪৮ ও ২০০০ সালে আসরটি সেমিফাইনালে। দু’বারই জয় পেয়েছে ফরাসিরা। বিশ্বকাপে মোটে একবার মুখোমুখি হয় দু’দল। তা-ও আবার সেমিফাইনালে। ওই ম্যাচে জিনেদিন জিদানের একমাত্র গোলে জয় পায় ফ্রান্স।

তার চেয়েও বড় খবর, গত দশ ম্যাচে দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে পর্তুগাল হেরে সবকটিতে। আর বিজয়ের হাসি নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ফ্রান্স। ঘরের মাঠে এ পর্যন্ত ১৫ ম্যাচে পর্তুগিজদের স্বাগত জানায় ফরাসিরা। এর মধ্যে ১২ ম্যাচে জয় পেয়েছে তারা। হেরে মাত্র দুটিতে। বাকি ম্যাচটি ড্র হয়েছে। সবশেষ দুই দলের সাক্ষাৎ হয় একটি প্রীতি ম্যাচে, ২০১৫ সালের ৪ সেপ্টেম্বর। ওই ম্যাচে ফ্রান্সের কাছে ১-০ গোলের ব্যবধানে হেরে যায় পর্তুগাল।

এই পরিসংখ্যান অবশ্যই মাথায় আছে রোনালদোর। তাই ফ্রান্সকে ফেবারিট মানছেন তিনি। আর সতর্ক হয়েই সতীর্থদের ফাইনালে খেলতে আহ্বান জানালেন পর্তুগিজ যুবরাজ। রোনালদো তাকিয়ে ফাইনালের দিকে। ২০০৪ সালের ফাইনালে গ্রিসের কাছে হেরে যাওয়ার হতাশার পুনরাবৃত্তি চান না রিয়ালের এই ফরোয়ার্ড।

রোনালদো বলেন, ‘জানি ইউরোর ফাইনালে ফেবারিট ফ্রান্স, কিন্তু জিতব আমরাই। আমি ক্লাব পর্যায়ে অনেক কিছুই জিতেছি। এবার পর্তুগালের হয়ে জিততে পারলে সেটা হবে দারুণ এক অর্জন। আমি বিশ্বাস করি, এটা খুব সম্ভব। আমার দলের খেলোয়াড়েরা তো বটেই, এটা বিশ্বাস করে গোটা পর্তুগালই। আমাদের ভাবনাটা অবশ্যই ইতিবাচক, কারণ আমি বিশ্বাস করি, রোববারের ফাইনালে পর্তুগাল প্রথমবারের মতো একটা বড় প্রতিযোগিতার শিরোপা জিততে যাচ্ছে।’

৪-২-৩-১ লাইন-আপে ফ্রান্সের সম্ভাব্য একাদশ: লোরিস, সাঙ্গা, উমিতি, ক্লোসিনলি, এভ্রা, মাতুউদি, পল পগবা, সিসোকো, পায়েত, অলিভিয়ের জিরু ও অ্যান্টোনিও গ্রিজম্যান।

৪-৪-২-১ লাইন-আপে ফ্রান্সের সম্ভাব্য একাদশ: রুই প্যাট্রিসিও, গুয়েরেইরো, পেপে, ফন্টে, সোয়ারেস, মারিও সানচেজ, দানিলো, সিলভা, নানি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: