সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ঈদের ছুটিতে বিনোদন প্রেমীদের পদচারণায় মুখরিত গোলাপগঞ্জের ‘ড্রিমল্যান্ড এ্যমিউজম্যান্ট’ পার্ক

8622fbf8-ff61-4596-8260-21c2635a4745জাহিদ উদ্দিন, গোলাপগঞ্জ ::  ঈদের ছুটিতে বিনোদন প্রেমীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে গোলাপগঞ্জের জনপ্রিয় একমাত্র বিনোদন কেন্দ্র ড্রিমল্যান্ড এ্যমিউজম্যান্ট পার্ক।বিনোদনে টেলিভিশনের ওপর ভরসা না করে সপরিবারে ঘুরতে বের হয়েছেন অনেকে।ঈদের দিন বৃহস্পতিবার ও ঈদের পরদিন শুক্রবার  বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে সরেজমিনে গিয়ে এ পরিস্থিতি দেখা যায়।
সরেজমিনে দেখা যায়, বিনোদন কেন্দ্র ড্রিমল্যান্ড  এ্যমিউজম্যান্ট পার্কে বিনোদন প্রেমিদের ভিড় চোখে পড়ার মতো।কেউ এসেছেন বন্ধুদের সঙ্গে দল বেধে, কেউবা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে।পরিবার- পরিজন, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু- বান্ধব নিয়ে ঘোরাঘুরি আর আনন্দের মধ্য দিয়েই যেন তারা ভাগাভাগি করছেন ঈদের আনন্দ।আর বিনোদন ভ্রমণকে স্বরণীয় রাখতে অনেকে তুলছেন সিঙ্গেল ও গ্রুপ ছবি।এছাড়াও অনেকে তুলছেন সেলফী।তরুণ তরুণী, শিক্ষক, সাংবাদিক, প্রবাসী, ব্যবসায়ী , সরকারি বেসরকারি চাকুরীজীবিসহ সব পেশার লোকই এসেছেন পরিবার পরিজনকে নিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করার জন্য।আনন্দের মুহুর্তগুলোর স্মৃতি ধরে রাখতে তুলছেন একের পর এক ছবি।পার্কের আশেপাশে মৌসুমী ব্যবনা আইস ক্রীম, চানাচুর,বাদাম বিক্রেতাদের দম ফেলার ফুরসদ নেই ।বিনোদন প্রেমীদের উপচে পড়া ভীড়ে তাদের ব্যবসাও হচ্ছে জমজমাট।

পার্কে ঘুরতে আসা স্কুল শিক্ষিকা রিয়া জাহান রুমা জানান,স্কুল ঈদের ছুটি থাকায় পরিবারের সকলকে নিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পার্কে ঘুরতে এসেছি।ড্রীমল্যান্ডের সৌন্দর্য আমাদের আমাদের সকলেই মুগ্ধ করেছে।খুবি ভাল লাগছে।

গোলাপগঞ্জ উপজেলার হিলাল পুরে অবস্থিত স্বপ্নজগতের মত তৈরী এই বিনোদন পার্ক ‘ড্রিমল্যান্ড’।পার্কের মূল প্রবেশদ্বারে রয়েছে সু-উচ্চ সীমানা প্রাচির।যার গায়ে নিখুঁতভাবে আঁকা খ্যাতিমান শিল্পির শৈল্পিক হাতের অপরূপ নিদর্শন।সামনে পার্কিংয়ের জন্য রয়েছে প্রশস্ত জায়গা।আর ভেতরের প্রশস্ততা কিংবা অপরূপ নান্দনিকতা বলে বুঝানো যাবে না।প্রবেশ গেট পার হয়ে ডান পাশ দিয়ে একটু সামনে গেলেই দীর্ঘ লেক, আর লেকের বুকে সারি সারি করে সাজানো ছোট ছোট স্পিডবোট।দেখলেই যা চড়তে ইচ্ছে করবে।এর বিপরিত পাশে রয়েছে অত্যাধুনিক ভিডিও গেম।সামনে এগিয়ে যেতে যেতে পেছনে ফেলে যাবেন আরো কতো বিনোদন মাধ্যম।আরো একটু সামনে গিয়ে ডানপাশে থ্রিডি সিনেমা হল।এর একটু সামনে গেলে আবার মুখোমুখি হবেন একটা বিশাল ফটকের।উপরে লেখা ‘ড্রিমল্যান্ড ওয়াটার পার্ক’। যা ঢাকার বাইরে দেশের একমাত্র পূর্ণাঙ্গ ওয়াটার পার্ক।দেশের বৃহত্তম ওয়েভপুল সমৃদ্ধ নয়টি আন্তর্জাতিক মানের ওয়াটার রাইড নিয়ে ড্রিমল্যান্ড ওয়াটার পার্ক স্ব-মহিমায় উজ্জ্বল।এখানে দাঁড়িয়ে থাকা সিকিউরিটি গেট খুলে দেয়ার পর ভেতরে প্রবেশ করে আপনাকে নিশ্চিত অভিভূত হতে হবে। ‘ওয়েবপুলে’র সিরামিক পাথর যেন হয়ে ওঠেছে প্রতিকী সমুদ্র চর! ঢেউয়ের পর ঢেউ আছড়ে পড়ছে সমতল চরের বুক চিরে। অদূরে স্থাপন করা ‘টাইফুন ট্যানেল’ সাপের মতো আকাবাঁকা হয়ে উপর থেকে নিচে নেমে এসে ছুঁয়েছে জলাধার।অর্ধস্বচ্ছ ট্যানেলের ভেতর দিয়ে বোট নিয়ে অবনমন জলধারায় ভেসে চলা মানে অনিঃশেষ পথে অনন্তকাল চলার আনন্দ।পাশেই ‘ফ্যামিলি স্লাইড’।১৫ ফুট উপর থেকে নিচের দিকে ধাবমান জলের সাথে পাল্লা দিয়ে বিস্তৃত জলাধারে এসে ঝপাস! সেই সাথে আনন্দঘন হৈ-হুল্লোড়। সে হবে এক অন্যরকম অনুভূতি! ড্রিমল্যান্ড ওয়াটার পার্কের ‘কিড্সপুল’ হলো বাচ্চাদের জন্য সেরা আকর্ষণ।চারটি প্লাটফর্মের কিড্সপুলে আছে বাচ্চাদের স্লাইড, ট্যানেল, দোলনা, শাওয়ার ইত্যাদি।পাশে থেকে যতো দেখবেন ততোই ভালো লাগবে। ‘র্যাম্প স্লাইড’ নামের হলুদ রঙের স্লাইডটি ওয়াটার পার্কের একমাত্র স্লাইড।যা চড়লে পাওয়া যাবে হঠাৎ করেই তলিয়ে যাওয়ার অনুভূতি।তবে ভয়ের কারণ নেই, সেকেন্ড দেড়েক পরেই রয়েছে নিরাপদ অবতরণের নিশ্চয়তা। ওয়াটার পার্কে স্থাপিত ১৬৫ ফুট দীর্ঘ ‘মাল্টি স্লাইড’ কেবল দুঃসাহসীদেরই হাতছানি দেয়। উঁচু নিচু ঢেউ খেলানো এই স্লাইডটিতে পাওয়া যাবে সাহসী চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার উত্তেজনা।এ-তো বললাম ওয়াটার পার্কের কথা।এবার ওখান থেকে বের হয়ে ‘ড্রিমল্যান্ড এ্যমিউজম্যান্ট পার্ক’র ভেতর আসলে সবকিছুও কেমন স্বপ্নের মতো মনে হবে! লেকের উপর সরু ব্রিজ, রাস্তার দু’পাশের নয়নাভিরাম দৃশ্যপট।একপাশে দাঁড়িয়ে আছে প্রায় ৮৫ ফুট উচ্চতার বিশালাকৃতির ‘ফেরি- স হুইল’।যার ধীর ঘূর্ণন আর আলো আধারী খেলা আপনাকে মন্ত্রমূগ্ধের মতো কাছে টানবে।রয়েছে বাচ্চাদের অতি জনপ্রিয় রাইডস ‘মেরি গো রাউন্ড’ ‘রোলার কোস্টার’ ও ‘স্কাই ট্রেইন’।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: