সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জাকির নায়েকে ‘উদ্বুদ্ধ’ : ভারতের চার উচ্চবিত্ত তরুণ আইএসে

iss_119361নিউজ ডেস্ক : বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছে না ভারতের ‘বিতর্কিত’ ইসলামিক বক্তা জাকির নায়েকের। ঢাকার ‍গুলশানের সন্ত্রাসী হামলাকারীদের সঙ্গে জাকির নায়েকের যোগসূত্র খুঁজে পাওয়ার ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ভারতে তাকে নিয়ে নতুন গুঞ্জন উঠেছে। এবার তার বিরুদ্ধে সরাসরি তরুণদের আইএসে যোগ দিতে উদ্ধুদ্ধ করার অভিযোগ উঠলো। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, জাকির নায়েকের বক্তৃতায় উদ্বুদ্ধ হয়ে চার তরুণ আইএসে যোগ দিয়েছে।

এদের মধ্যে একজন হলেন আরিব মাজিদ। আরও তিন সঙ্গীসহ  আইএসের সঙ্গে  সম্পৃক্ততার প্রমাণ থাকায় গত বছর ভারতের শ্রীনগর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে দেশটির জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা। তাদের জেরার মুখে আরিব স্বীকার করেন, জাকির নায়েকের বক্তব্যে উদ্বুদ্ধ হয়ে তারা আইএসে যোগ দিয়েছিল।

অভিযোগ উঠেছে, জাকির নায়েকের বক্তৃতায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দক্ষিণ এশিয়ার বহু তরুণ জঙ্গিবাদে ঝুঁকছে। বাংলাদেশের গুলশান হামলাকারীদের মধ্যে কয়েকজন নিয়মিত জাকির নায়েকের বক্তব্য অনুসরণ করতেন বলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে তাদের অ্যাকাউন্ট থেকে তথ্য মিলেছে। এ বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর জাকির নায়েকের বিষয়ে উদ্যোগী হয়েছে ভারত সরকার। জঙ্গিবাদে উৎসাহ যোগানের অভিযোগ নিয়ে এরইমধ্যে তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে মহারাষ্ট্র সরকার। মুম্বাইয়ে তার অফিস ঘিরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

এদিকে জাকির নায়েকের ইসলামি বক্তব্যের ভিডিও কপি ভারতের বিহারের দারভাঙ্গা লাইব্রেরিতে সংরক্ষিত অবস্থায় পাওয়া গেছে। এগুলো দেশটির জঙ্গি সংগঠন মুজাহিদিন সদস্যরা সংরক্ষণ করছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। এসব বক্তব্য প্রচার করে জঙ্গি সংগঠনগুলো তরুণদের আকৃষ্ট করতে ব্যবহার করতো।

এসব ভিডিও টেপ ভারতে সরকার খতিয়ে দেখছে। বিশেষ করে গুলশানের অভিজাত রেস্তোরাঁ হলি আর্টিজান বেকারিতে সন্ত্রাসী হামলা ও হামলাকারীদের সঙ্গে জাকির নায়েকের যোগসূত্র খুঁজে পাওয়ায় তাকে নিয়ে ভারত সরকার নড়েচড়ে বসেছে। এরই জেরে শনিবার ভারতে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়।

টাইমস অব ইন্ডিয়া আরও জানিয়েছে, ঢাকার গুলশানের হামলার মতোই ভারতে চার তরুণ জাকির নায়েকের বক্তব্য শুনে তার অনুসারী হয়ে যায়। চার তরুণদের মধ্যে তিনজন মহারাষ্ট্রের কল্যাণের বাসিন্দা। তারা হলেন, আরিব মাজিদ,  ফাহাদ শেখ এবং আমান তানদেল। এরাও তরুণদের প্রত্যেকেই অভিজাত পরিবার থেকে এসেছে। তিনজনই প্রকৌশল শিক্ষার্থী।  চার তরুণদের একজন হলেন শাহিম তানকি। যিনি অন্য তরুণদের তুলনায় পড়াশোনায় পিছিয়ে ছিলেন। এইচএসসিতে অকৃতকার্য হওয়ার পর সে পড়াশোনা ছেড়ে দেয়।

ভারতের গোয়েন্দা সংস্থার জেরায় মাজিদ স্বীকার করে জাকির নায়েকের বক্তব্য শুনে তার মধ্যে ধর্মীয় চেতনা বেড়ে যায়। সে আরও ধার্মিক হয়ে ওঠে। ধর্ম নিয়ে আরও  জানতে গিয়ে ২০১৪ সালে মাজিদ বিতর্কিত ইসলামি সংগঠন আইএস সম্পর্কে জানতে পারে। তখন ইরাক ও সিরিয়াতে আইএস যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছিল। পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার পক্ষ নেয়ার জন্য তুমুল প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছিল। আইএসের প্রচারণায় উদ্ধুদ্ধ হয়ে আইএসের সঙ্গে কাজ করতে মনস্থির করে। এভাবেই তারা আইএসের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে ভারতের আইএসের পক্ষে কাজ করে। এক পর্যায়ের ভারতের নিরাপত্তা সংস্থা চার তরুণকে জঙ্গি তৎপরতার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার করে।-ঢাকা টাইমস

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: