সর্বশেষ আপডেট : ১২ মিনিট ৩২ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জগন্নাথপুরে রথযাত্রা নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় ১২০ জনকে আসামি করে পুলিশ অ্যাসল্ট মামলা

2.-daily-sylhet-sanggarsho-news-7জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) সংবাদদাতা::
জগন্নাথপুরে একই স্থানে দুই পক্ষের লোকজন রথযাত্রা উৎসব পালনকে কেন্দ্র করে আয়োজনকারি দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ, সাংবাদিক ও কাউন্সিলরসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হওয়ার ঘটনায় জগন্নাথপুর থানায় পুলিশ অ্যাসল্ট মামলা দায়ের হয়েছে। বৃহস্পতিবার জগন্নাথপুর থানার এসআই অনির্বাণ বিশ্বাস বাদি হয়ে জগন্নাথপুর পৌর শহরের জগন্নাথপুর গ্রামের জগদিশ সূত্র ধরের ছেলে আ.লীগ নেতা জয়দ্বীপ সূত্রধর বীরেন্দ্র, জগন্নাথপুর বাজারের বাসিন্দা মৃত মিহির ধরের ছেলে আ.লীগ নেতা মিন্টু রঞ্জন ধর, জগন্নাথপুর গ্রামের আবু দে’র ছেলে বিভাষ দে, অমৃত লাল গোপের ছেলে অনন্ত লাল গোপ, মতিলাল দেবের ছেলে মিন্টু দেব, মিন্টু দে’র ছেলে মৃদুল দে ও কঞ্চন দেবের ছেলে পাপন দেবসহ ৭ জনের নাম উল্লেখ করে উভয় পক্ষের মোট ১২০ জনকে গং আসামি করে থানায় পুলিশ অ্যাসল্ট মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৪, তারিখ ০৭/০৭/২০১৬ ইং।
প্রসঙ্গত-বিগত প্রায় দুইশত বছর ধরে জগন্নাথপুর পৌর শহরের স্বরুপ চন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে (রথবাড়ি) স্থানীয় জগন্নাথ জিউর মন্দির ও বাসুদেব জিউর মন্দির কমিটির উদ্যোগে সার্বজনীন ভাবে জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উৎসব পালিত হয়ে আসছে। প্রতি বছরের মতো এবারো এ দুই মন্দির কমিটির উদ্যোগে রথযাত্রা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তবে এবারই প্রথম বাসুদেব নাম হট্র সংঘ নামের মন্দির বিহীন একটি সংগঠনের উদ্যোগে ইসকনদের নিয়ে ব্যক্তিগত ভাবে হঠাৎ নতুন করে একই স্থানে আলাদাভাবে রথযাত্রা উৎসব পালনের ঘোষণা দেয়ায় সর্বস্তরের সনাতন ধর্মালম্বীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে সমাধান না হওয়ায় অবশেষে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নানের হস্তক্ষেপে শর্ত সাপেক্ষে নিস্পত্তি হয়। পুরনো মন্দির কমিটিগুলো সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত ও নতুন সংগঠন বিকেল ৪ টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত রথযাত্রা উৎসব পালন করবে। এ সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে বুধবার সকাল ১০ থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত পুরনো মন্দির কমিটির লোকজন শান্তিপূর্ণভাবে রথযাত্রা উৎসব পালন করেন। তবে বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে স্থানীয় বাসুদেব বাড়ি থেকে নতুন সংগঠনের পৃথক রথযাত্রাটি অতিরিক্ত পুলিশি প্রহরায় বৃষ্টি উপেক্ষা করে বের হয়। এ সময় রথযাত্রাটি স্থানীয় বড় দীঘির দক্ষিণ পাড় পয়েন্টে আসা মাত্র চারদিক থেকে ইটপাটকেল শুরু হলে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় পুলিশ লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। ততক্ষনে পুলিশ, সাংবাদিক, কাউন্সিলরসহ উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হন। আহতরা হচ্ছেন, জগন্নাথপুর থানার ওসি মুরসালিন, এ এসআই শাহ জামাল, কনস্টেবল লায়েব আলী, সাংবাদিক সম্পাদক মো.শাহজাহান মিয়া, সংবাদকর্মী বিপ্লব দেবনাথ, পৌর কাউন্সিলর সুহেল আহমদ, ব্যবসায়ী দিবাকর পাল, ধীরেন দেব, সন্তোষ দেব, মিন্টু দেব, দিবারাজ আচার্য্য। আহতদের মধ্যে দিবাকর পালকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং বাকিদের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তিসহ প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: