সর্বশেষ আপডেট : ১৪ মিনিট ১৮ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পরিবারকে জানিয়েই সস্ত্রীক তুরস্কে পাড়ি জমান শাফি!

photo-1467889031নিউজ ডেস্ক : গুলশান হামলার ছয়দিনের মাথায় বাংলাদেশে আবার হামলার হুমকি দিয়ে প্রকাশিত ভিডিওর তিন তরুণের একজন পরিবারকে জানিয়েই স্ত্রীসহ তুরস্কে পাড়ি জমিয়েছিলেন।

বুধবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান সাইট ইন্টেলিজেন্স দাবি করেছে, তিন তরুণের ওই ভিডিওবার্তাটি জঙ্গি সংগঠন আইএসের।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটি। এতে দেখা যায়, তিন তরুণকে বাংলায় কথা বলতে দেখা যাচ্ছে। তাঁরা গুলশানে স্প্যানিশ রেস্তোরাঁ হলি আর্টিজানে হামলাকারীদের প্রশংসা করেন এবং বাংলাদেশে আরো হামলার হুমকি দেন।

ভিডিওটি প্রকাশের পর এই তিন তরুণের পরিচয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন তথ্য উঠে আসতে থাকে। পরে বিবিসি বাংলা তাদের ওই প্রতিবেদনে জানায়, তিন তরুণের একজনের নাম তাহমিদ রহমান শাফি।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, শাফির বাবা বাংলাদেশ সরকার অত্যন্ত উচ্চ পদস্থ একজন কর্মকর্তা ছিলেন। দুই বছর আগে মারা যান তিনি। রাজধানীর বিমানবন্দর সংলগ্ন একটি অভিজাত এলাকায় তাঁদের বাড়ি। এলাকাটির সব বাসিন্দাই অত্যন্ত ধনী ও প্রভাবশালী। তিনতলা বাড়িটিতে গিয়ে ফটক বন্ধ দেখতে পাওয়া যায়। পরে অনেক ডাকাডাকির পর বিবিসির সঙ্গে কথা বলেন বাড়ির দারোয়ান। তবে তাঁকে শাফির ছবি দেখানো হলে চিনতে পারেননি বলে জানান তিনি।

তবে ওই গলির একটি চায়ের দোকানদার ছবি দেখে শাফিকে শনাক্ত করেন। সাত আট মাস আগেও শাফিকে দেখা যেত তবে এখন আর দেখা যায় না বলে জানান তিনি।

শাফিদের বাড়ির সামনের আরেকটি বাড়ির বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে বিবিসি বাংলা জানায়, ওই বাড়ির (শাফিদের বাড়ি) একটি ছেলে গ্রামীণফোনে চাকরি করত বলে তিনি শুনেছেন। সে বছরখানেক আগে বিয়ে করার পর স্ত্রীকে নিয়ে তুরস্কে চলে গেছে বলেও তাঁরা জানতে পেরেছেন। এ ছাড়া শাফি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ মসজিদে গিয়ে পড়তেন বলেও জানান তাঁরা।

বিবিসি বাংলা বলছে, এর অর্থ তাহমিদ রহমান শাফি নিখোঁজ ছিলেন না। বাড়িতে জানিয়েই তিনি এমন একটি দেশে পাড়ি জমিয়েছিলেন যে দেশটি সিরিয়া ও ইরাকে গিয়ে ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগ দিতে ইচ্ছুকদের একটি ট্রানজিট হিসেবে পরিচিত।

এ ছাড়া গ্রামীণফোনের কয়েকজন কর্মীর সাথে কথা বলেও শাফির পরিচয় নিশ্চিত হয়েছে বিবিসি বাংলা। শাফির এক ঘনিষ্ঠ সহকর্মী জানান, সে শান্তিনিকেতনে লেখাপড়া করেছিল। নিজে গান লিখত, তাতে সুর দিত। গানের প্রতিযোগিতা ক্লোজআপ ওয়ান তোমাকেই খুঁজছে বাংলাদেশ নামের রিয়েলিটি শোতে অংশ নিয়ে অনেক দূর এগিয়েছিল সে। সেরা ১৫ জনের তালিকাতেও ছিল শাফি। সে কারণে শাফির এই পরিবর্তনে রীতিমতো হতবাক ওই সহকর্মী।-এনটিভি

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: