সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

চাঁদের হাসিতে কাটুক খুশির ঈদ

Eid_mubarak_DailySylhet

ডেইলি সিলেট ডটকম :: “ও মন রমজানের ঐ রোজার শেষে এলো খুশির ঈদ” মুসলমানদের অন্যতম ধর্মীয় ও আনন্দের উৎসব ঈদ-উল-ফিতর নিয়ে বাঙ্গালী কবি কাজী নজরুল ইসলাম রচিত কালজয়ী গান।

বাঙ্গালী মুসলমানের ঈদ উৎসবের আবশ্যকীয় অংশ। কবির শিষ্য শিল্পী আব্বাস উদ্দিন আহমদ-এর অনুরোধে ১৯৩১ সালে কবি নজরুল এই গান রচনা ও সুরারোপ করেন।

হ্যাঁ, দীর্ঘ ত্রিশ দিন রোজা পালন শেষে খুশির বারতা নিয়ে আমাদের দুয়ারে হাজির হয়েছে ঈদ। ঈদ-উল-ফিতর উৎসবের, আনন্দের। তবে, এবারের ঈদ উল ফিতর এসেছে এমন এক মুহূর্তে, যখন গভীর শোকে মুহ্যমান পুরো বাংলাদেশ।

শুক্রবার রাতে রাজধানীর গুলশানের আর্টিজান রেস্তোরাঁয় বর্বর সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ব্যক্তিদের পরিবারগুলোর সামনে ঈদুল ফিতর এসেছে বেদনার রূপ
নিয়ে। পুরো জাতিই তাদের বেদনায় সমব্যথী। এমন শোকের মাঝেই বৃহস্পতিবার সারাদেশে উদযাপিত হবে ঈদুল ফিতর।

তবুও সারা দেশে চলছে উৎসবের আমেজ। সরকারি ঘোষণার পাশাপাশি টিভি-বেতারে বাজতে শুরু করেছে ‘ও মন রমজানের ঐ রোজার শেষে এল খুশির ঈদ…।’ পাড়া-মহল্লার মসজিদ থেকে ভেসে আসছে ‘ঈদ মোবারক’ ধ্বনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক, মোবাইল ফোনে চলছে ম্যাসেজ আদান প্রদান- “ঈদ মোবারক।”

সিলেটসহ দেশবাসীকে ‘ঈদ মোবারক’

সিলেটে ঈদের আমেজ আলাদা। রমজানের রাত আর দিন প্রায় সমান অবস্থায় কাটে সিলেটবাসীর। শেষ সময়ে নতুন জামা কেনার ধুম। ভোর পর্যন্ত কেনাকাটা শেষে ঈদগাহে নতুন জামা পরে ধনি-গরিব সকলে ঈদগাহে যাবেন, কাঁধে-কাঁধ মিলিয়ে নামাজ, কোলাকুলি করবেন। আন্তরিকতা, সৌহার্দ্য আর ভালবাসায় অতীতের সব গ্লানি ভুলে নতুন করে জীবনের যাত্রা শুরু করবেন এটাই সকলের প্রত্যাশা থাকে।

সিলেটে ঈদের দিন (বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই) বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবুও উৎসবে ভাটা পড়বে না- এটা আমাদের প্রত্যাশা। দুপুরের পর থেকে পর্যটনকেন্দ্র মুখি হবে প্রকৃতিপ্রেমি মানুষগুলো- আশা করছি এর ব্যতিক্রম হবে না।

ঈদকে ঘিরে ঘরে ঘরেনতুন জামা-কাপড়ের পাশাপশি চাই ভালো খাবারও। মহানবীর (সা.) সুন্নত হিসেবে মুসলমানরা ঈদে মিষ্টি জাতীয় খাবার খাবেন। ঈদে সবাই সেমাই খাবেন, তা অবধারিত। বাড়িতে বাড়িতে শুরু হয়ে গেছে ঈদের খাবার তৈরির ধুম।

গরিব কি ধনী সবারই চেষ্টা থাকবে সেরা আয়োজনটুকু করতে। ঈদের খাবার থেকে বাদ যাবেন না কেউ। রোগীদের জন্য হাসপাতাল, এতিমদের জন্য এতিমখানা, শিশু সদন, ছোটমণি নিবাস, বৃদ্ধাশ্রম, ভবঘুরে আশ্রয় কেন্দ্র- সবখানেই থাকবে বিশেষ খাবারের ব্যবস্থা। জেলখানা ও কিশোর সংশোধন কেন্দ্রগুলোতেও থাকবে উন্নত খাবার।

সিলেটে আজ সকাল সাড়ে ৮টায় শাহী ঈদগাহে প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এখানে প্রায় লক্ষাধিক মুসল্লির সমাগম ঘটে প্রতি বছর। নামাজে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতসহ রাজনৈতিক ও প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

গুলশানে জঙ্গি হামলার পর সিলেটে ঈদের নিরাপত্তায় কঠোরতা আরোপ করা হয়েছে। শাহী ঈদগাহে মুসল্লিদের নিরাপত্তায় পর্যাপ্ত সিসি ক্যামেরা রাখা হয়েছে। রয়েছে আর্চওয়ে মেশিন। ঈদগাহে মুসল্লিদের এই আর্চওয়ে মেশিনের ভেতর দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। হাতে কেবল জায়নামাজ, তসবিহ থাকতে পারবে- এমন জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার কামরুল আহসান। কিন্তু, বৃষ্টি হলে মুসল্লিরা বিপাকে পড়তে পারেন। কারণ, বৃষ্টি হলে ছাতা তো সঙে রাখতেই হবে।

সিলেটের বেশিরভাগ ঈদগাহ ও মসজিদে সকাল সাড়ে৭টা থেকে ৯টার মধ্যে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রতি বছরের ন্যায় কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। গ্রামের ঈদগাহগুলোতে ঈদের নামাজের সময় প্রায় এরকমই।

ঈদে বড় শহর ও গ্রামগুলো সেজেছে উৎসবের রূপে। চাঁদরাতে গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ভবনগুলোতেও করা হচ্ছে আলোকসজ্জা। রাতে এসএমপি হেড কোয়ার্টারে আলোকসজ্জা চোখে পড়েছে। চিড়িয়াখানা, শিশুপার্কের মতো বিনোদন কেন্দ্র খোলা থাকবে ঈদে। নইলে যে শিশুদের ঈদই পূর্ণ হবে না ।

এত আয়োজন! কিন্তু কাজী নজরুল ইসলামের ‘কৃষকের ঈদ’ কবিতার মতো অনেক গরিবের দুয়ারে আজ ঈদ আসবে না। তবে সামর্থ্যবানরা ওয়াজিব জাকাত ফেতরা আদায় করলে ঈদ আসবে সবার কাছে। নজরুলের কবিতার মতোই ‘যার ঘরে ধনরত্ন জমানো আছে,/ ঈদ আসিয়াছে, জাকাত আদায় করিব তাদের কাছে।/ এসেছি ডাকাত জাকাত লইতে, পেয়েছি তাঁর হুকুম,/ কেন মোরা ক্ষুধা তৃষ্ণায় মরিব, সহিব এই জুলুম।’

ঈদ মানেই একে অপরকে আপন করে নেওয়া। শুভেচ্ছা জানানোর রীতি চিরন্তন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদসহ সব শীর্ষ রাজনীতিক পৃথক বাণীতে দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। একে অপরকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

ঈদ উপলক্ষে দৈনিক পত্রিকাগুলো ইতিমধ্যে প্রকাশ করেছে বিশেষ ক্রোড়পত্র। এই আনন্দ বাড়িয়ে দিতে আছে বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল ও এফএম রেডিওর
ঈদের বিশেষ অনুষ্ঠানমালা। ডেইলি সিলেটসহ জাতীয় পত্রিকার অনলাইন ভার্সন ও অনলাইন সংবাদপত্র খোলা রয়েছে। তারা মুহূর্তে সংবাদ পরিবেশন করছে।

ঈদের দিন গণভবনে সকাল সাড়ে নয়টা থেকে রাজনীতিক, কবি, সাহিত্যিক, লেখক, সাংবাদিক, কূটনীতিক, বিচারপতি, শিক্ষকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ঈদে সিলেটে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত নিজ বাসভবন হাফিজ কমপ্লেক্সে, আওয়ামী লীগ নেতারা স্ব স্ব বাসায় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। তবে, মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর এবারেরও ঈদ কাটবে কারাগারে। বাইরে থাকলে তিনি সিটি কর্পোরেশনে শুভেচ্ছা বিনিময় করতেন।

কিছু ব্যর্থতা, হতাশা থাকলেও সিলেটসহ দেশবাসীর জন্য ঈদের খুশির বার্তা পরবর্তী পথচলাকে কিছুটা হলেও অনুপ্রাণিত করবে আশা করছি। গরিব-অসহায়-ধনি-বিত্তশালী সকলের ঈদ কাটুক আনন্দে, পরিবার-পরিজনের সাথে। নিরাপদে সবাই থাকুক, নিরাপদ থাকুক ঘরবাড়ি, নিরাপদে সবাই ফিরবে কর্মস্থলে- তবেই পূর্ণতা পাবে এবারের ঈদ। ডেইলি সিলেট ডটকম এর পক্ষ থেকে সবাইকে “ঈদ মোবারক।”

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: