সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শাহী ঈদগাহ মিনার নির্মাণ : খরচ ও সময় বেড়েছে, তবুও অপেক্ষা!

Shahi Edgah Miner logoনিজস্ব সংবাদদাতা:: নির্মাণের কাজ শুরু হয় ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে। সময়সীমা ছিলো এক বছর; অর্থাৎ, ২৫ জানুয়ারি ২০১৪ পর্যন্ত। চলে গেছে তিনটি বছর, আজও সম্পন্ন হয়নি মিনারটির নির্মাণ কাজ।

ঐতিহ্যবাহী সিলেট শাহী ঈদগাহের সৌন্দর্য্যবর্ধনের উদ্যোগ নিয়েছিলেন স্বয়ং অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি। দুইশ’ ফুট উচ্চতা সম্পন্ন দৃষ্টিনন্দন মিনার নির্মাণ করে নিজে এর স্বাক্ষী হবেন। যা নজর কাড়বে আগতদের। উদ্বোধন করবেন তিনি নিজেই।

নিজের পছন্দের এই প্রকল্পটি প্রাথমিক বরাদ্দের পর দফায় দফায় নির্মাণ ব্যয় এবং সময় বাড়ানো হয়। চলতি সপ্তাহে উদ্বোধন করতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এখনও শেষ হয়নি কাজ। তাই, পরিদর্শন করে ফিরে গেছেন মন্ত্রী।

কেন এই অপেক্ষা, কাজের ধীরগতি- এ ব্যাপারে যথাযথ জবাব মিলেনি কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে।

জানা গেছে, ২০১৩ সালের ১৭ এপ্রিল শাহী ঈদগাহের মিনারের নির্মাণ কাজ শুরু হয়। প্রকল্পের সময়সীমা ছিলো ৯ মাস ৮দিন। এতে ব্যয় ধরা হয়েছিলো ২ কোটি ৩৫ লাখ ৩৮ হাজার ৯শ’ ১৯ টাকা। আর্কিটেক্ট গওহর উজ্জামান লস্কর এর ডিজাইন অনুযায়ী সিলেট সদর উপজেলা এলজিইডি’র অধীনে মিনারের কাজ করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বালুচরের মেসার্স পলাশ এন্টারপ্রাইজ। এলজিইডি’র তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী পিকে চৌধুরী এই কাজ তদারকি করছেন।

শাহী ঈদগাহ মাঠে গেলে দেখা যায়, ঈদগাহের পশ্চিম দিকের এক প্রান্তে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে সুউচ্চ মিনার। ৫ ধাপে নির্মাণাধীন এই মিনারের কাজ প্রায় শেষের দিকে রয়েছে। এখনই নজর কাড়ছে সকলের।

সিলেট সদর উপজেলা প্রকৌশল বিভাগ জানিয়েছে, ৩০ জুন পর্যন্ত এই প্রকল্পের বর্ধিত সময়সীমা ছিলো। এখন পর্যন্ত ৯৫ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। মিনারের উপরের অংশে এর কাজ চলছে।

২শ’ ফুট উচ্চদার এই মিনারের বেদী প্রায় ১৯৬০ বর্গফুট আয়তনের। রয়েছে তিন ধাপের বর্ধিত বারান্দা। প্রায় ১শ’ ফুট উচ্চতার আরসিসি সিঁড়ি, ১৫৫ ফুট পর্যন্ত স্টীলের স্পাইরাল সিঁড়ি, ৪০ ফুট উচ্চতার টেরাকাটা খচিত মিনা তথা মিনারের গম্বুজ। এছাড়া ফাউন্ডেশনে ৬২ ফুট দৈর্ঘ্য ও ২ ফুট ব্যাসের ২৫টি আরসিসি কাস্ট ইন সিটু পাইল করা হয়েছে।

২ কোটি ৩৫ লাখ ৩৮ হাজার ৯শ’ ১৯ টাকা প্রাক্কলিক মূল্য ধরা হলেও কাজের চুক্তি মূল্য ছিলো ২ কোটি ৬৪ লাথ ৯২ হাজার ৭, ২৩ টাকা। ২০১৩ সালের ৩০ ডিসেম্বর প্রথম সংশোধিত মূল্য ধরা হয় ২ কোটি ৭৪ লাখ ৭০ হাজার ৭৩ টাকা। ২০১৪ সালের ৭ ডিসেম্বর দ্বিতীয় সংশোধিত মূল্য ধরা হয় ২ কোটি ৯৮ লাখ ৪৩ হাজার ৬শ’ ৭৬ টাকা। সর্বশেষ চলতি বছরের ৩১ মার্চ তৃতীয় সংশোধিত মূল্য ধরা হয়, ৩ কোটি ৮৯ লাখ ৯৭ হাজার ৭শ’ ৫৫ টাকা।

জানা গেছে, দ্বিতীয় পর্যায়ে ১৩শ’ বর্গফুটের মধ্যে মিনার আঙ্গিনায় অফিস কাম লাইব্রেরী নির্মাণ, ওয়াকওয়ে নির্মাণ, গাড়ি পার্কিং, ফুটপাত ও ড্রেইন নির্মাণ, ২টি ফাউন্ডেশন (জলাধার) ও মিনারের গম্বুজে দৃষ্টিনন্দন টেরাকার কাজ এর হাতে নেয়া হয়েছে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৯৩ লাখ ১১ হাজার ৭শ’ ১৪ টাকা।

সিলেট সদর উপজেলা প্রকৌশলী সাইফুল আজাদ ডেইলি সিলেটকে বলেন, ‘কাজ এখনও শেষ হয়নি। ঈদের আগে সম্পন্ন হওয়ার কথা থাকলে আরো অন্তত ১৫দিন সময় লাগবে।’ কেন এতো সময় লাগছে এর কোন সদুত্তর নেই তার কাছে।

তবে, আগামী একমাসের মধ্যেই এই কাজ শেষ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন শাহী ঈদগাহের মুতাওয়াল্লি জহির বখত।

তিনি ডেইলি সিলেটকে বলেন, ‘কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। মিনার ২শ’ ফুট উঁচু তাই উপরের অংশে কাজ করতে গিয়ে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে।’

‘এই ঈদগাহ সিলেটের ঐতিহ্য। এটি একটি ঐতিহাসিক মাঠ ছিলো। সবমিলে দৃষ্টিনন্দন ঈদগাহ দেখতে এখনো দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে লোকজন আসে। মিনারের কাজ শেষ হলে এই সৌন্দর্য্য আরো বাড়বে।’ -যোগ করেন জহির বখত।

নগরীর বালুচর, সাপ্লাই, রায়নগর ও কাজিটুলার মধ্যস্থানে অবস্থিত শাহী ঈদগাহ ময়দানে প্রতিবছর লাখো মুসল্লি একসাথে ঈদের নামাজ আদায় করেন। সিলেটের প্রধান ঈদের জামাত এই মাঠেই অনুষ্ঠিত হয়।

শাহী ঈদগাহের রয়েছে ঐতিহাসিকতা, রয়েছে ঐতিহ্য। সিলেটের মধ্যে সর্বোচ্চ উচ্চতা সম্পন্ন এটি হতে পারে ইতিহাসের আরেক সাক্ষী; দেশের মধ্যে দৃষ্টিনন্দন সুউচ্চ মিনার।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: