সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৪৪ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হাসনাত, তাহমিদের সঙ্গে সন্দেহের তালিকায় ‘কয়েকজন’

Reza-karimনিউজ ডেস্ক : গুলশানের ক্যাফেতে জঙ্গি হামলার ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সন্দেহের তালিকায় আরও বেশ কিছু নাম যোগ হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকার পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

মঙ্গলবার রাজধানীর ঈদগাহ ময়দানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, সন্দেহের তালিকায় থাকা উদ্ধার হওয়া জিম্মি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত রেজা করিম ও তাহমিদ তাদের হেফাজতেই আছেন। তদন্তের স্বার্থে সন্দেহভাজন অন্যদেরও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হবে।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, “গুলশানের ট্রাজেডির ঘটনায় শুধু হাসনাত রেজা করিম এবং তাহমিদ নয়; আরও বেশ কয়েকজন সাসপেক্টেড হিসেবে আমাদের তালিকায় আছেন। আমরা ইতোমধ্যে তাদের দুয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছি, আরও কয়েকজনের বিষয় প্রক্রিয়াধীন আছে।”

শুক্রবার হলি আর্টিজান বেকারিতে ছয় বন্দুকধারী হামলা চালিয়ে ১৭ বিদেশিসহ ২০ জিম্মিকে হত্যা করে বলে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। শনিবার সকালে কমান্ডো অভিযান চালিয়ে জিম্মি সঙ্কটের অবসানের পর দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়, ছয় হামলাকারী নিহত হয়েছেন, একজন ধরা পড়েছেন।

শনিবার সকালে উদ্ধার ১৩ জনসহ ২৭ জনকে নিয়ে যাওয়া হয় গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে। পরে তাদের বক্তব্য শুনে যাচাই-বাছাই করে অনেককে ছেড়ে দেওয়া হয়।

সোমবার গোয়েন্দা পুলিশের এক কর্মকর্তা  জানান, এই ১৩ জনের মধ্যে দুই জন পুলিশ হেফাজতে আছেন। তাদের একজন তাহমিদ (২২); আরেকজন হাসনাত কবির।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, “জঙ্গিদের মধ্যে ছয়জনই মারা গেছে। পাঁচজনের পরিচয় পাওয়া গিয়েছে, একজনের পাওয়া যায়নি।”

ব্যবসায়ী শাহরিয়ারের ছেলে তাহমিদ পুলিশকে বলেছেন, কানাডা থেকে দেশে ফিরে শুক্রবার ইফতারের পর বন্ধুদের সঙ্গে হলি আর্টিজান বেকারিতে গিয়েছিলেন। হাসনাত করিম বলেছেন, তিনি পরিবার নিয়ে সেখানে গিয়েছিলেন মেয়ের জন্মদিন উদযাপন করতে।

পত্রিকায় প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, নিষিদ্ধ সংগঠন হিজবুত তাহরিরের সঙ্গে যোগাযোগ থাকার কারণে হাসনাতকে অব্যাহতি দিয়েছিল নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়। ক্যাফেতে কমান্ডো অভিযানে নিহত জঙ্গি নিব্রাস ইসলাম নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়েরই সাবেক ছাত্র।

ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান বলেন, ক্যাফেতে হামলার ঘটনায় গুলশান থানায় দায়ের সন্ত্রাস দমন আইনের মামলা তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ডিপার্টমেন্ট।

জঙ্গি হামলায় হাসনাত করিম ও তাহমিদের সংশ্লিষ্টতার কোনো তথ্য পুলিশ পেয়েছে কি না- জানতে চাইলে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “বিষয়টি তদন্তাধীন। আমরা শুধু এইটুকু বলতে পারি, এসব জঙ্গিদের মদদদাতা, অর্থদাতা, আশ্রয়দাতাসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে। জঙ্গিদের পারিবারিক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সামাজিক অবস্থান সবকিছুই তদন্তের আওতায় আনা হয়েছে।”- বিডি নিউজ

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: