সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৪২ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

গুলশান হামলায় প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনা

yuনিউজ ডেস্ক : ঘড়ির কাটা তখন রাত ৯টার কাছাকাছি। নিজের এপার্টমেন্ট থেকে গোলাগুলির শব্দ শুনতে পেলেন লোরি অ্যান ওয়ালস ইমদাদ। তার মনে হলো, এই গোলাগুলি থামবে না। জানালা দিয়ে তাকিয়ে দেখলেন লোকজন জীবন নিয়ে ছোটাছুটি করছেন।

আমেরিকান স্টান্ডার্ড স্কুলের প্রিন্সিপাল লোরি অ্যান দেখেন একদল বন্দুকধারী বোমার বিষ্ফোরণ ঘটিয়ে একটি রেস্তোরাঁয় প্রবেশ করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী লোরি অ্যানের এ বর্ণনা প্রকাশ করেছে ব্রিটেনের দ্য ইনডিপেন্ডেন্ট পত্রিকা।

লোরি বলেন, ‘আমি সারা রাত বন্দুকের গুলির শব্দ শুনতে পাই এবং লোকজনকে ছুটোছুটি করতেও দেখি।’ ‘গোলাগুলির শব্দ থেমে যাওয়ার পর বিক্ষিপ্তভাবে দুই-একটি গুলির শব্দ শুনতে পাই,’ বললেন তিনি।

বন্দুকধারীরা গুলশান- ২ এর হোলি আর্টিসান বেকারিতে প্রবেশ করে রাত ৯টার দিকে। লোরি অ্যান ওয়ালস জানান, সন্ধ্যায় এটি রেস্তোরাঁ হিসেবে ব্যবহার হলেও দিনে এটিকে ব্যবহার করা হতো বেকারি হিসেবে। তিনি জানান, বহু বিদেশি রেস্তোরাঁটিতে যাতায়াত করতেন।

তিনি এর মালিককে চেনেন বলে জানান লোরি ওয়ালস। তিনি বলেন, ‘রেস্তোরাঁ মালিক একজন ইতালীয়।’

রেস্তোরাঁটিকে বেশ সুন্দর বলে অভিহিত করে তিনি বলেন, ‘রেস্তোরাঁয় শান্তভাবে সময় কাটানো যায়। এছাড়া রেস্তোরাঁর চিজকেকও বেশ সুন্দর। খেতে বেশ ভালো লাগে।’

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, হামলার কবল থেকে রক্ষা পান সুমন রেজা নামের রান্না ঘরের এক কর্মী। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘হামলাকারীরা বোমা ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে হোটেলে ঢুকে বন্দুকের মুখে রেস্তোরাঁর স্টাফ ও কর্মীদের জিম্মি করে। তারা আল্লাহু আকবার বলে হামলা শুরু করে।’-আমাদের সময়.কম

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: