সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ৫৮ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

একদিকে গুলশানে জিম্মি সঙ্কট, অন্যদিকে ২ মন্দিরে হামলা

satkhira-priest-try-to-killedনিউজ ডেস্ক : ঢাকার গুলশানের একটি রেস্তোরাঁয় জঙ্গিদের হামলায় জিম্মি সঙ্কট চলার মধ্যেই গভীর রাতে সাতক্ষীরায় পুরোহিত ও কিশোরগঞ্জে সেবায়েতকে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে। এরা হলেন- সাতক্ষীরা সদরের ব্রহ্মরাজপুর রাধাগোবিন্দ মন্দিরের পুরোহিত ভবসিন্ধু বর ও কিশোরগঞ্জ শহরের বিবেকানন্দ পাঠাগার ও মন্দিরের সেবায়েত পলাশ চক্রবর্তী শোলক (৪৬)।

আহত পুরোহিতকে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে বলে সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ জানিয়েছেন। উপজেলার বাজুয়াডাঙ্গা গ্রামের হাজারিনাম বরের ছেলে ভবসিন্ধু বর দীর্ঘদিন ধরে ওই মন্দিরে পৌরহিত্য করছেন; থাকেন মন্দিরের একটি কক্ষে।
ওসি এমদাদুল বলেন, “ভবসিন্ধু রাতে মন্দিরেই ঘুমিয়েছিলেন। ভোররাত ৪টার দিকে মুখে কাপড় বাঁধা ৬/৭ জন অস্ত্রধারী পাহারায় থাকা গ্রাম পুলিশকে মারধর করে আটকে রাখে। পরে ঘুমিয়ে থাকা পুরোহিতকে উপর্যুপরি কুপিয়ে চলে যায়।” এর আগে রাত মধ্যরাতে সেবায়েত পলাশ চক্রবর্তীর উপর হামলা চালায় তিনি নিজেই জানিয়েছেন।
পলাশ সাংবাদিকদের বলেন, মন্দিরের পাশে একটি বাড়িতে থাকেন তিনি। রাত ১টার দিকে বসতঘরের টিনের দরজায় কড়া নাড়ার শব্দে তিনি বেরিয়ে আসেন। এ সময় মুখবাঁধা এক ব্যক্তি তার দুই সহযোগীসহ পলাশকে গলা ধরে টেনেহিঁচড়ে বাইরে নেওয়ার চেষ্টা করে। ওই সময় তিনি কাছে থাকা একটি শাবল নিয়ে প্রতিহতের চেষ্টা করেন এবং তাকে বাঁচাতে চিৎকার করতে থাকেন। ধস্তাধস্তিতে হামলাকারীদের হাতে থাকা চাপাতির আঘাতে তার বাম হাত সামান্য জখম হয়। পরে তারা পালিয়ে যায়।

Satkhira-clergyman-2ঘটনার পর শনিবার দুপুরে জেলা পরিষদ প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান, জেলা প্রশাসক মো. আজিমুদ্দিন বিশ্বাস, পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন খান, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি বিজয় শংকর রায়সহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ পলাশের বাড়ি যান। জেলা প্রশাসক মো. আজিমুদ্দিন বিশ্বাস বলেন, সেবায়েত পলাশসহ অন্যান্য মন্দিরের পুরোহিতদের নিরাপত্তা প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন খান বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করে অপরাধীকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে। ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারিতে শুক্রবার রাতে অস্ত্রধারী জঙ্গিরা হামলা চালিয়ে ভেতরের মানুষদের জিম্মি করে। শনিবার সকালে কমান্ডো অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে ২০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।অভিযানে নিহত হয় ৬ জঙ্গি ও আটক হন একজন। এর আগে শুক্রবার সকালে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার উত্তর কাষ্ঠসাগরা গ্রামের শ্রী শ্রী রাধামদন গোপাল বিগ্রহের (মঠ) সেবায়েত শ্যামানন্দ দাসকে (৫০) একই কায়দায় কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

গত দেড় বছরে লেখক-প্রকাশক, ব্লগার, অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট, সমকামী অধিকার কর্মী, বিদেশি, বৌদ্ধভিক্ষু, ধর্মান্তরিত ও ভিন্ন মতের মুসলিম ধর্মগুরুসহ বেশ কয়েকজন হিন্দু পুরোহিতকে একই কায়দায় কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয়। এসব ঘটনার বেশ কয়েকটিতে জঙ্গি সংগঠন আইএস দায় স্বীকার করলেও সরকার দেশে আইএসের অস্তিত্ব অস্বীকার করে আসছে।-বিডি নিউজ

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: