সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ১১ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রমজানে যেমন কাটলো খালেদার ইফতার রাজনীতি

Khaleda-ifter20160630201048নিউজ ডেস্ক::ইফতার রাজনীতিতে সরব বিএনপি আরেকটি সফল রমজান অতিক্রম করছে। এই সময়টিতে দেশের চলমান রাজনীতির নানা দিক নিয়ে সমালোচনামূলক বক্তব্য দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তবে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন খালেদা জিয়ার বক্তব্যে সুনির্দিষ্ট কোনো দিকনির্দেশনা পায়নি দলটির নেতাকর্মীরা।

রমজানের প্রথম দিনে এতিম ও ওলামা মাসায়েকদের দিয়ে ইফতার শুরু করেছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন। আর শেষ করেছেন মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে ইফতার করে। মাসব্যাপি এসব ইফতার মাহফিলে সন্তুষ্ট বেগম জিয়া।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, পবিত্র মাহে রমজানের ইফতার মাহফিলে নেতাকর্মীদের সুশৃঙ্খল ও কাঙ্ক্ষিত উপস্থিতির জন্য সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন তিনি (খালেদা জিয়া)। গত রোববার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করতে গেলে বিএনপির কয়েকজন নেতার কাছে এ সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন খালেদা।

প্রথম রমজানে এতিম ও আলেম-ওলামাদের সম্মানে ইফতার মাহফিল আয়োজনের মধ্যদিয়ে ইফতারের কর্মসূচি শুরু করেন বেগম জিয়া। আজ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের ইফতার মাহফিলে যোগ দেয়ার মধ্য দিয়ে চলতি রমজানে এ কর্মসূচি শেষ করতে যাচ্ছেন তিনি।

এদিকে রমজানের আগে আন্দোলনের কোনো কর্মসূচি না থাকায় ইফতার অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দলীয় নেতা ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় করেন খালেদা জিয়া। এসব কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ব্যস্ত সময় পার করেন তিনি।

গত বছরের ন্যায় এবারো বিএনপি চেয়ারপারসন রমজানের শেষ দিকে পবিত্র ওমরা পালন ও মসজিদে নববিতে এতেকাফের উদ্দেশ্যে সৌদি আরব যাচ্ছেন না বলে জানা গেছে। উল্লেখ্য, বিগত দিনে প্রতি রমজানের শেষ দশদিনে ওমরাহ পালনের জন্য সৌদি আরব সফর করেছেন তিনি।

খালেদা জিয়া এবারের রমজানে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সম্মানে নিজে পাঁচটি ইফতার পার্টির আয়োজন করেন। অন্যদিকে তিনি ঢাকা মহানগরসহ দলের অঙ্গ-সহযোগী সংগঠন, ২০ দলীয় জোট শরিক এবং বিএনপি সমর্থিত বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের ১২টি ইফতারেও অংশ নেন।

রমজানের প্রথম দিন আলেম-ওলামা ও এতিমদের সম্মানে রাজধানীর ইস্কাটনের লেডিস ক্লাবে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেন খালেদা জিয়া। এরপর পর্যায়ক্রমে ১১ জুন ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টার বসুন্ধরায় রাজনীতিবিদ, ১২ জুন একইস্থানে পেশাজীবী ও বিশিষ্ট নাগরিক, ১৩ জুন গুলশানের হোটেল ওয়েস্টিনে কূটনীতিক এবং ২৯ জুন গুলশানের লংবিচ হোটেলে বিগত আন্দোলনে গুম ও খুনের শিকার নেতাকর্মীদের স্বজনদের সম্মানে ইফতারের আয়োজন করেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন গত ৯ জুন সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন। এরপর ১৪ জুন ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টার বসুন্ধরায় বিএনপিপন্থি প্রকৌশলীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (অ্যাব), ২০ জুন লেডিস ক্লাবে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন, ২২ জুন একইস্থানে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব), ২৭ জুন এগ্রিকালচারিস্ট অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (অ্যাব) এবং ২৮ জুন লেডিস ক্লাবে ঢাকা মহানগর বিএনপির ইফতারে যোগ দেন খালেদা জিয়া।

এছাড়া ২৬ জুন সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) একাংশের যৌথ আয়োজনে ইফতার মাহফিলেও যোগ দেন বিএনপি প্রধান। প্রথমে জাতীয় প্রেসক্লাবে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠানের কথা থাকলেও কর্তৃপক্ষ শেষ মুহূর্তে মৌখিক অনুমতি বাতিল করায় আয়োজকরা ইফতারের ভেন্যু পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়।

এদিকে, ২০ দলীয় জোটের মধ্যে ১৫ জুন ইস্কাটনের লেডিস ক্লাবে জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর), ১৬ জুন একইস্থানে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি), ১৮ জুন মতিঝিলের হোটেল পূর্বাণীতে জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা) এবং ২৩ জুন গুলশানের ইমান্যুয়েলস কনভেনশন হলে বাংলাদেশ লেবার পার্টির ইফতারে যোগ দেন জোটনেত্রী খালেদা জিয়া।

তবে আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারণে গত ১৯ জুন হোটেল সোনারগাঁওয়ে ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) একাংশের ইফতার মাহফিল বাতিল হয়ে যায়। এছাড়া ২৫ জুন জামায়াতে ইসলামীর ইফতার পার্টি থাকলেও সোনারগাঁও হোটেল কর্তৃপক্ষ অনুমতি বাতিল করে। ফলে তারা ইফতার অনুষ্ঠান করতে পারেনি।

খালেদা জিয়া এসব ইফতার মাহফিলে দেয়া বক্তব্যে বর্তমান সরকার ও জঙ্গি দমনে পরিচালিত সাঁড়াশি অভিযানের ব্যাপক সমালোচনা করেন। একইসঙ্গে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধে সকল রাজনৈতিক দল ও দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। এছাড়া সরকারকে ‘জুলুমবাজ, খুনি ও অত্যাচারী’ আখ্যা দিয়ে তাদের বিদায়ে পবিত্র মাহে রমজানে মহান আল্লাহর কাছে দেশবাসীকে দোয়া করার আহ্বান জানান তিন বারের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

মাসব্যাপি খালেদা জিয়ার ইফতার মাহফিলের বক্তব্য নিয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে মহানগর পর্যায়ের কয়েকজন নেতা এই প্রতিবেদককে বলেন, সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করে খালেদা জিয়া যে বক্তব্য দিয়েছেন তা অত্যন্ত বাস্তবসম্মত।

তবে অবৈধ সরকার যেভাবে রাষ্ট্র পরিচালনা করছে এমন পরিস্থিতিতে নেতাকর্মীদের প্রতি সুুনির্দিষ্টভাবে দিকনির্দশনামূলক বক্তব্য দিলে হতাশ নেতাকর্মীরা আরো চাঙ্গা হতেন বলেও মনে করেন তারা।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: