সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ২ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুনামগঞ্জে চাঁদাবাজীর প্রতিবাদ করায় যুবক আহত হওয়ার ঘটনায় মামলা

31aff710-3f76-4b8d-ade6-76c6b13060fcআল-হেলাল : সুনামগঞ্জের পূর্ব ইব্রাহিমপুর গ্রামে সুরমা নদীতে চাঁদাবাজীর প্রতিবাদ করতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের রামদায়ের কোপে ওবায়দুল হক প্রান্ত নামে এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছেন।

আহত প্রান্ত মৃত মাশুক মিয়ার পুত্র। ২৯ জুন বুধবার রাত পৌনে ৯টায় ইব্রাহিমপুর পূর্বপাড়া জামে মসজিদের সামনে গোদারাঘাটে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে আহতের বড় ভাই মোঃ ছালেহ আহমদ রিংকু বাদী হয়ে ১৫ জনকে আসামী করে সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলার অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ঘটনায় একই গ্রামের রজব আলীর পুত্র শাকিল (২৫), খুটি মিয়ার পুত্র রাসেল (২৫), সুরুজ্জামানের পুত্র সানি (২৫), বদরুল আলমের পুত্র সনি (২৫),সমরাজ আলীর পুত্র রাসেল (২৮) সহ নাম অজ্ঞাত আরোও ১০ জনকে আসামী করে থানায় ১টি মামলার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

মামলার বিবরনে প্রকাশ, সন্ত্রাসীরা দীর্ঘদিন ধরে সুনামগঞ্জ শহরের লঞ্চঘাটের বিপরীত দিকে অবস্থিত ইব্রাহিমপুর পূর্বপাড়া জামে মসজিদের সামনে সুরমা নদীতে বালু পাথরবাহী নৌকা কার্গো ও বলগেড আটক করে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র সহকারে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে ব্যাবসায়ী ও শ্রমিকদেরকে জিম্মি করে বলপূর্বক বিভিন্ন রেটে চাঁদা আদায় করছে।

রাসেলের নেতৃত্বে সকল সন্ত্রাসীরা গ্রামে গড়ে তুলেছে একটি সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজীর সিন্ডিকেট। প্রান্তর বসত বাড়ির সামনে গোসল করার ঘাটে ইঞ্জিন চালিত নৌকায় ওৎপেতে অবস্থান করত সন্ত্রাসীগনের দ্বারা এহেন অবৈধ চাঁদাবাজী ও মাদকদ্রব্য বিক্রির ঘটনার প্রতিবাদ করায় এরা প্রান্ত ও পরিবারের লোকজনের উপর মারাত্মকভাবে ক্ষুব্ধ হয়। এবং তাহাদেরকে প্রানে মারার হুমকী প্রদর্শন অব্যাহত রাখে।

ঘটনার দিন ওবায়দুল হক প্রান্ত মসজিদে তারাবিহের নামাজের প্রস্তুতি নিয়া বসতঘর হতে বের হয়ে মসজিদে যাওয়ার পথে গোদারাঘাটে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা সন্ত্রাসীরা হাতে ধারালো চাকু,চাপাতি,রামদা ও কাঠের রুল নিয়া প্রান্তকে ঘেরাও করে বেদম কিলঘুষি ও লাথি মারিতে থাকে। একপর্যায়ে সন্ত্রাসী শাকিল প্রান্তর পিটের ডান দিকে ধারালো ছুরি দ্বারা পোচ মেরে,রাসেল মাথার পিছনে ও উপরে রামদায়ের কোপ মেরে, সানি ডান হাতের কনুই এর উপরে কাঠের রুইল দ্বারা বারি মেরে,সনি বুকে বকসিন ও বারি মেরে রক্তাক্ত গুরুতর জখম করে।

এসময় উত্তেজিত জনতা ৪নং আসামী সনিকে অস্ত্রসহ হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করার প্রাক্কালে সাবেক চেয়ারম্যান আমির হোসেন রেজাসহ কতিপয় লোক উক্ত আসামীকে ছাড়িয়ে নেন। এলোপাতাড়ি আক্রমনের প্রাক্কালে বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করিলে পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌছে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ডাঃ দেলোয়ার হোসেনের তত্বাবধানে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন। বর্তমানে জখমী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সুনামগঞ্জ সদর থানা ওসি হারুন-অর রশীদ চৌধুরী এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অভিযোগ তদন্তাধীন রয়েছে।

 

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: