সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ৪২ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

গুম-খুনে জড়িত র‌্যাব-পুলিশের বিচার হবেই

146210_1নিউজ ডেস্ক:: বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘গুম, খুন ও অন্যায়ের সঙ্গে জড়িত র‌্যাব পুলিশদের কখনো ক্ষমা করা হবে না। তাদের বিচার একদিন হবেই হবে।’

রাজধানীতে এক ইফতার মাহফিলে তিনি বলেন, ‘দেশে গণতান্ত্রিক অবস্থা ফিরে আসলে আমরা অবশ্যই গুম হওয়া ব্যাক্তিদের খোঁজ করার চেষ্টা করবো। নাহলে এই গুম-খুনে জড়িতদের বিচার করবো।’

‘আমরা জানি র‌্যাব-পুলিশের কিছু সদস্য এই অপকর্মে জড়িত। এদের একদিন না একদিন বিচার হবেই। স্বজনকে ফিরে পেতে না পারি, কিন্তু বিচারটা পেলেও কিছুটা শান্তি হবে,’ বলেন খালেদা।

বুধবার গুলশান ২-এ লংবিচ হোটেলে বিএনপির গুম ও খুন হওয়া নেতাকর্মীদের পরিবার ও স্বজনদের সম্মানে এই ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

ইফতার মাহফিলে গুম হওয়া ৪৫ টি পরিবারের স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তব্যের শুরুতেই খালেদা জিয়ার চোখ অশ্রুসজল দেখা যায়। তিনি বলেন, ‘আপনারা যারা এখনো নিজেদের স্বজনদের আশা করেন, তারা ফিরে আসবে। তারা হয়তো আছে কোথাও। আমরাও সে একই আশা নিয়ে বসে আছি। তারা হয়তো একদিন আমাদের মাঝে ফিরে আসবে। আবার আপনাদেরকে যেমন মা- বাবা, ভাই বোন বলে ডাকবে। আপনাদের আদর করবে। তেমনিভাবে দলের মধ্যে সকল নেতাকর্মীদের মধ্যে আমাদের মধ্যে আপন হয়ে থাকবে।’

খালেদা জিয়া বলেন, ‘ওরা দল করেছে। আপনাদের যেমন বাবা-মা জানে, তেমনি আমাকেও নেত্রী হিসেবে মায়ের মতোই দেখেছে। তাই আজকে সন্তানহারার ব্যাথা কী- তা আমি বুঝতে পারছি। আমি নিজেও বুঝি। আপনারা দেখেছেন, আমার ছোট ছেলেকেও আমি হারিয়েছি।’

ক্রসফায়ারের সমালোচনা করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘সন্তানহারা মায়ের ব্যাথা আমি জানি। তার উপর যদি দেখেন ক্রসফায়ার হচ্ছে। সেই আরো দুঃখজনক।’

তিনি আরো বলেন, ‘একটা নিরীহ ছেলেকে গুলি করে মেরে ফেলা হলো। কথা নাই বার্তা নাই, তাকে মেরে ফেলা হল। এইটা মেনে নেওয়া যায় না। দীর্ঘদিন জেল সহ্য করা যায় কিন্তু বিচার ছাড়া অন্যায়ভাবে গুলি করে মেরে ফেলবে, এটা কখনো মেনে নেয়া যায না।’

সরকারের সমালোচনা করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আজকের এই আওয়ামী লীগ এরা জালিম, খুনি। এরা গুপ্তহত্যাকারী। আমরা আল্লাহর কাছে দোয়া করব যেন, এদের বিচার হয়। আল্লাহ যেন বিচার খুব শিগগিরই করেন। দুনিয়াতে করেন। এমন বিচার হয় যেনো ভবিষ্যতে এমন কাজ কেউ না করে।’

গুম হওয়া স্বজনদের প্রতি খালেদা জিয়া আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, ‘আমরা শুধু তাদের ফিরে আসার অপেক্ষায় আছি। তারা ফিরে আসুক। তারা যেখানেই থাকুক না কেনো বেঁচে থাকুক। এটাই আমরা চাই।’

খালেদা জিয়ার এসময় বলেন, ‘দলের প্রত্যেকের নামে মামলা। এখন আবার নতুন করে শুরু হয়েছে গণগ্রেপ্তার। সেই অভিযানে এখন পর্যন্ত বিএনপির প্রায় ৪,০০০ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার হয়েছে। এই সরকারের টার্গেট হল বিএনপি। বিএনপিকে কেমনভাবে ধ্বংস করা যায় সরকারের চিন্তাই সেরকম।

ইফতার মাহফিলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ, জমির উদ্দিন সরকার, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: