সর্বশেষ আপডেট : ৩৮ মিনিট ৭ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নবীগঞ্জের জনতার বাজার সড়কে বেহাল অবস্থা! ‘রাস্তা নয় যেন এক মরণ ফাঁদ’

491f0411-c46c-4f2b-810b-1ead564ae576নবীগঞ্জ প্রতিনিধি:: ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সাথে নবীগঞ্জের জনতার বাজার হইতে মৌলভীবাজার সড়কের আতানগীরি, শতক ও গজনাইপুর এর রাস্তার বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। দীর্ঘ দিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী সহ হাজার হাজার মানুষের। সড়কটি যেন এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।

অভিযোগ রয়েছে, উক্ত সড়ক নির্মাণ কাজে নিন্মমানের মালামাল ব্যবহার করায় সড়কের অনেক স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে যানচলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। এতে প্রায়ই উক্ত সড়কে যানবাহন ও পথচারীরা দুর্ঘটনার শিকাড় হতে হচ্ছে। এই সড়কের দুরাবস্থা দেখার যেন কেউ নেই?

সড়কের বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্ত হয়ে বেহাল দশা বিরাজ করছে। এর মধ্যে অল্প বৃষ্টি হলেই পানি জমে গর্ত গুলোতে কাদা, নর্দমা একাকার হয়ে সড়কটি যেন পুকুরে পরিনত হয়।

খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলা থেকে মৌলভীবাজার জেলা সদরে সাথে যোগাযোগের একমাত্র বাইপাস সড়ক হিসেবে ওই সড়কই এক সময় বেশি চলাচল করতেন উপজেলার মানুষ। এমনকি মৌলভীবাজারের সিমান্ত এলাকা আতানগীরি ও নবীগঞ্জের শতক, তারালিয়া, লামরোহ, মাহমদপুর, গজনাইপুরসহ ১০/১২ টি গ্রামের প্রায় কয়েক হাজার মানুষের চলাচলের জন্য একমাত্র ভরসা এই সড়কটি। ওই গ্রাম গুলো থেকে প্রায় ৩/৪ হাজার শিার্থী প্রতিদিন দিনারপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও দিনারপুর কলেজে যাওয়া আসা করে। কিন্তু বছর দিনেরও বেশী সময় ধরে সড়কের বেশীর ভাগ অংশে কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে যানবাহন চলাচলে মারাত্মক অসুবিধার সৃষ্টি হচ্ছে সেই সাথে বিপাকে পড়েছেন স্কুল কলেজে পড়–য়া শিার্থীরা। সড়কটি খানা খন্দকের কারনে দুর্ঘটনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে অনেক প্রাণহানীসহ নানা সমস্যায় পরতে হচ্ছে সাধারন মানুষদেরকে। এছাড়া সড়কে দ্রুতগামী যানবাহনগুলো সড়কের ভাঙ্গার কারনে একটি অপরটিকে ওভারট্যাক করতে বেকায়দায় পড়তে হচ্ছে। এর জন্য ওই সড়কে যানচলাচল আগের তুলনায় অনেকটা কমে গেছে। কলেজ পড়–য়া কয়েকজন শিার্থী এ প্রতিনিধি-কে জানায়, আমরা শতক থেকে প্রায় ২/৩ কিঃ মিঃ জায়গা পায়ে হেটে কলেজে যাই।

আমাদের চলাচলের এই সড়কের এমন অবস্থা হয়েছে যেখানে যেতে ২০ থেকে ২৫ মিনিটে কলেজে পৌছাতে লাগে সেখানে এখন প্রায় ১ ঘন্টারও বেশি সময় লাগে। সড়কের দশা বেহাল হওয়ায় আগের মতো গাড়ী পাওয়া যায়না তাই অপো করে সময় নষ্ট না করে আমরা পায়ে হেটেই কলেজে যাই। হেটে গিয়ে অনেকটা কান্ত হয়ে যাই। যার কারনে কাসে তেমন মনযোগ থাকে না। বিশেষ করে চরম বিপাকে পড়তে হয় পরীার সময়। কারণ পরিার নির্দিষ্ট সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হওয়া যায়না। তাই রাস্তা মেরামতের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ গ্রহনের জন্য দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: