সর্বশেষ আপডেট : ৮ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ব্রিটেনের ইইউ ত্যাগে প্রভাব পড়তে পারে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে

brexit bdডেইলি সিলেট নিউজ :: ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের সদস্যপদ প্রত্যাহারের গণরায় ইতোমধ্যে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তা তৈরি করেছে, যেটি আন্তর্জাতিক ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগের পাশাপাশি ইউরোপের ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের চলমান অগ্রগতির ধারাকে ব্যাহত করতে পারে।

দৃশ্যত, ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের সরে যাওয়ার এ সিদ্ধান্ত সারাবিশ্বে নতুন একটি ভূ-রাজনৈতিক ধারার পাশাপাশি একটি ভূ-অর্থনৈতিক ধারা সৃষ্টি করতে পারে।

বাংলাদেশি পণ্য রফতানির বৃহৎ বাজারের একটি হলো ইউরোপ। এছাড়াও যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বৈদেশিক বিনিয়োগকারী দেশ। বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর ৩ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলারের মূল্যমানের পণ্য যুক্তরাজ্যে রফতানি হয়, যেখানে তৈরি পোশাক খাতের অবদান ২ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার, পাশাপাশি বাংলদেশ থেকে উল্লেখ্যযোগ্য পরিমাণ অপ্রচলিত পণ্যও যুক্তরাজ্যে রফতানি হয়ে থাকে।

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) উদ্বেগ প্রকাশ করে বলছে, বেক্সিট (ব্রিটেনের ইইউ ত্যাগ)-এর ধাক্কা বাংলাদেশের জিএসপি সুবিধার আওতায় পণ্য রফতানি এবং বৈদেশিক মুদ্রা প্রবাহের ধারাকে প্রভাবিত করবে। পাশাপাশি বাংলাদেশের সাথে যুক্তরাজ্যের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য এবং যুক্তরাজ্য বাংলাদেশে পরিচালিত বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মসূচিও বাধাগ্রস্ত হতে পারে।

বেক্সিট ঘটনার ফলে বৈশ্বিক আর্থিক ব্যবস্থা ও বৈশ্বিক মুদ্রাবাজার ব্যবস্থায় নেতিবাচক প্রবনতা ও মন্দা অবস্থার সম্ভাবনা রয়েছে, পাশপাশি অন্যান্য মুদ্রার সাথে পাউন্ড-এর বিনিময় হার কমে যাওয়ার আশংকা রয়েছে বলে ঢাকা চেম্বার মনে করছে। যদিও ইতোমধ্যে ডলারের বিপরীতে পাউন্ড ১০% এবং ইউরোর বিপরীতে ৩% কমেছে, যেটির ধারা বাংলাদেশকে প্রভাবিত করার সম্ভাবনাকে আরও ঘনীভূত করবে।

ডলারের বিপরীতে পাউন্ড স্টারলিং ও ইউরোর অবমূল্যায়ন বাংলাদেশের রফতানি বাণিজ্যে বিশেষ করে তৈরি পোশাক রফতানিতে মন্দা প্রভাব ফেলতে পারে। বাংলাদেশের মোট তৈরি পোশাক রফতানির ৫৫ শতাংশ ইইউভুক্ত দেশগুলোতে ও ১২ শতাংশ যুক্তরাজ্যে গিয়ে থাকে। ডলারের বিপরীতে পাউন্ডের এ অবমূল্যায়ন বাংলাদেশে রেমিটেন্স প্রবাহে এবং বৈদেশিক বিনিয়োগ প্রবাহে মন্দাবস্থা তৈরি করতে পারে। পাশাপাশি যুক্তরাজ্যের ইইউ জোট থেকে বের হয়ে যাওয়ার ফলে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাত থেকে ২০২১ সালের মধ্যে ৫০ বিলিয়ন ডলার রফতানি আয়ের যে লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল তাতেও বিরুপ প্রভাব পড়তে পারে।

ডিসিসিআই সরকারের প্রতি বিষয়টিকে সক্রিয় বিবেচনায় নিয়ে এর সম্ভাব্য প্রভাব নির্ধারণ করে যুক্তরাজ্যের সাথে কূটনৈতিক দ্বিপাক্ষিক আলোচনা বা মধ্যস্থতার উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য আহবান জানিয়েছে। যাতে করে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে এর নেতিবাচক প্রভাব না পড়ে।

বৃটেনের ইইউ ত্যাগ পরবর্তী আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করার জন্য ব্যবসায়ী, ব্যবসায়ী সংগঠন, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য আইন বিশেষজ্ঞ, অর্থনীতিবিদ, গবেষক এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি সমন্বয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের জাতীয় কমিটি গঠনেরও অনুরোধ জানিয়েছে সংগঠনটি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: