সর্বশেষ আপডেট : ১৮ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৯ মে, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘ভেবেছিলাম ইলিয়াস আলীর সাথে দেখা হয়ে যাবে’

Elias Aliডেইলি সিলেট ডটকম :: দীর্ঘদিন গুম থাকার পর ফিরে এসেছেন তিনি। ফিরে আসার প্রাক্কালে মনে মনে ভাবছিলেন হয়তো নিখোঁজ ইলিয়াস আলীর সাথে তার দেখা হয়ে যাবে। কিন্তু, দেখা হলো না! একাই ফিরলেন নিজে।

গুম হওয়ার পর ফিরে আসা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন জানিয়েছেন, ‘দীর্ঘদিন গুম করে রেখে আমাকে অনেক কষ্ট দেয়া হয়েছে। আমি যেদিন বের হবো সেদিন রাতে ফরিদপুরের একটি নির্জন বাড়িতে আমাকে বেঁধে রাখা হয়। তখন আমার মনে হয়েছিল- ইলিয়াস আলী, চৌধুরী আলম, সুমন ভাই- এদের সাথে হয়তো দেখা হয়ে যাবে। কিন্তু হলো না।’

রোববার (২৬ জুন) দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি। জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক নির্যাতনবিরোধী দিবস উপলক্ষে ওই সভার আয়োজন করা হয়।

আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন তার বক্তব্যে গুম হওয়াদের ফিরিয়ে আনতে নেতাকর্মীদের ঘরে বসে না থেকে রাজপথে নেমে আসার আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, গতবছর নিখোঁজ হওয়ার প্রায় তিন মাসেরও বেশি সময় পর আনিসুর রহমান তালুকদার খোকনকে আটক করেছিল র‌্যাব। তবে তাকে গুম করা হয়েছিল বলে দাবি করেন খোকন।

২০১৩ সালে গুম হওয়া ছাত্রদল নেতা সাজেদুল ইসলাম সুমনের বড় বোন আঁখি বলেন, ‘ভাইকে গুম করার মধ্য দিয়ে আমাদের পরিবারের আশাকেও গুম করে ফেলা হয়েছে। আমাদের সামনে এখন ঘোর অন্ধকার। ভাইকে হারিয়ে আমরা কিভাবে দিনযাপন করছি, তা আপনারা (উপস্থিত নেতাকর্মী) জানেন না। চরম দারিদ্র্যের মধ্য দিয়ে আমাদের দিনযাপন করতে হচ্ছে।’ এ সময় ভাইকে ফিরে পেতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

ক্ষমতাসীনদের সমালোচনা করে তরুণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেন, ‘ক্ষমতাসীন আওয়ামী সরকার জঙ্গি পালে, পোষে ও তৈরি করে। অথচ আমাদের দেশে কোনো জঙ্গি ছিল না। এই সরকার আন্তর্জাতিক বিশ্বকে দেখাতে চায়, এখানে জঙ্গি আছে। আর এই জঙ্গি দমন করতে হলে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ থাকা দরকার।’ তিনি আরো বলেন, ‘এই সরকার জঙ্গি তৈরি করেছে। কিন্তু এখন তা আর সামলাতে পারছে না।’

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘মা-বাবাসহ পরিবারের সদস্যদের হারিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মনে অনেক কষ্ট। তবু সান্ত্বনা, খুনিদের ফাঁসি হয়েছে। তাই বিএনপির নেতাকর্মীদের যারা গুম করেছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সেইসব সদস্যদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে বিচারের ব্যবস্থা করুন। কারণ, যেভাবেই হোক আপনি দেশের প্রধানমন্ত্রী।’

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘যদি সেটা না করেন, তাহলে এর (গুম) দায়-দায়িত্ব আপনাকেই (প্রধানমন্ত্রী) নিতে হবে। আজ নয়তো কাল, ২০৪১ সালের পরে হলেও তা নিতে হবে, মাফ হবে না।’

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমানের সভাপতিত্বে এবং সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, গুম হওয়া ছাত্রদল নেতা নিজাম উদ্দিন মুন্নার বাবা শামসুদ্দিন প্রমুখ।

সংবাদ সূত্র : বাংলামেইল

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: