সর্বশেষ আপডেট : ৪১ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ই ইউ ছাড়ার কারণে বৃটেনের অর্থনীতিতে প্রভাব পড়বে না : সিলেটে ডেপুটি হাই কমিশনার

Britishনিজস্ব প্রতিবেদক :: ঢাকায় নিযুক্ত ডেপুটি বৃটিশ হাই কমিশনার মার্ক ক্লেইটন বলেছেন, সদ্য সমাপ্ত গণভোটের ফলাফল বৃটেনের অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব ফেলবেনা। কারণ, বৃটেনের অর্থনীতি মৌলিকভাবে শক্তিশালী। ইতোমধ্যে ব্যাংকগুলো নতুন পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনাকে স্বাভাবিক রাখতে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

তিনি রোববার বিকেলে সিলেট নগরীর একটি হোটেলে বৃটিশ হাই কমিশন ও বৃটিশ কাউন্সিলের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এক ইফতার মাহফিল পূর্ব আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছিলেন।

ঢাকাস্থ বৃটিশ হাই কমিশনের কনস্যুলার সেকশনের প্রধান হাসিনা রহমানের সঞ্চালনায় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বৃটিশ কাউন্সিলের হেড অব বিজনেস জিম পোলার্ড।

বৃটিশ ডেপুটি হাই কমিশনার মার্ক ক্লেইটন আরো বলেন, ইতোমধ্যে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন, বৃটিশ নাগরিকরা ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের এই ইচ্ছার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা হবে এবং তা বাস্তবায়িত হবে। বর্তমানে যুক্তরাজ্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগের আলোচনার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী এও ঘোষণা দিয়েছেন যে, এই প্রক্রিয়া বাস্তবায়িত হবে নতুন নেতৃত্বের মাধ্যমে। তবে, এ জন্য এখনই কোন সময়সূচি ঘোষণা করা হয়নি।

মার্ক ক্লেইটন বলেন, বাংলাদেশের সাথে বৃটেনের দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক অত্যন্ত সুদৃঢ়। বাংলাদেশের অন্য কোন অঞ্চলের চেয়ে সিলেটের সাথে এই সম্পর্ক আরো নিবিড়। প্রায় ৪০ হাজার বৃটিশ নাগরিক বাসিন্দা সিলেটে বসবাস করছেন। যুক্তরাজ্যে বসবাসরত ৫ লাখ বৃটিশ-বাংলাদেশীর ৯৭ শতাংশই সিলেটের আদি বাসিন্দা। সিলেট অঞ্চলেও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, এইচএসবিসি, ইউনিলিভার, ডানকান ব্রাদার্স ও জেম্স ফিনলের মত অনেক বৃটিশ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখছে।

মার্ক ক্লেইটন জানান, ভিএফএস-এর মাধ্যমে সিলেটবাসীকে প্রথম শ্রেণীর ভিসা সংক্রান্ত গ্রাহক সেবা প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া, বৃটিশ হাই কমিশনের কনস্যুলার টিম সিলেটে বসবাসরত বৃটিশ-বাংলাদেশীদেরকে যে কোন পরিস্থিতিতি সহায়তা প্রদান করছে। বৃটিশ কাউন্সিলও সিলেটে আইইএলটিএস পরীক্ষা সংক্রান্ত সেবা, কানেকটিং ক্লাসরুম প্রকল্পসহ অনেকগুলো প্রকল্পের মাধ্যমে বৃটেনের সাথে সিলেটের সম্পর্ক উন্নয়নে কাজ করছে। সিলেটের ৪ জেলায় প্রায় ১ হাজার অংশগ্রহণকারী রযেছেন একটিভ সিটিজেন প্রকল্পে।

এছাড়া, দারিদ্র বিমোচনেও বৃটেনের সহায়তা সংস্থা ইউকে এইড কাজ করছে। ইতোমধ্যে সিলেট অঞ্চলের ৭৩ হাজার হতদরিদ্র পরিবার, ৬ লাখ ২৫ হাজার পরিবারকে নিরাপদ জ্বালানী সুবিধা, ৯৩ হাজার প্রাথমিক শিক্ষার্থীকে আর্থিক সহায়তা এবং ১ লাখ ৬ হাজার লোককে কর্মসংস্থান সংক্রান্ত সেবা প্রদান করেছে বৃটিশ সহায়তা সংস্থা।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকাস্থ বৃটিশ হাই কমিশনের পলিটিক্যাল এফেয়ার্স অফিসার এজাজ আহমেদ, প্রেস এন্ড কমিউনিকেশন অফিসার ফারোহা সোহরাওয়ার্দী, বৃটিশ হাই কমিশনের সিলেট অফিস প্রধান রাহিম মঈন চৌধুরী, বৃটিশ কাউন্সিলের সিলেট অফিস প্রধান কফিল হোসাইন চৌধুরী প্রমুখ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: