সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ৫৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেটে যৌতুকের বলি হয়ে পরপারে গৃহবধু, মামলা নেয়নি পুলিশ

Joutukডেইলি সিলেট ডেস্ক :: সিলেট সদরের জালালাবাদে যৌতুকের বলি হয়েছে এক গৃহবধূ। ঘটনার তিনদিনেও মামলা নেয়নি এসএমপির জালালাবাদ থানা পুলিশ। গত বুধবার বিকালে স্বামীর বাড়ি থেকে পুলিশ তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে। মৃত সাজনা বেগম (২৩) জালালাবাদ থানার দিঘলবাক নোয়াগাওঁয়ের লিয়াকত আলীর স্ত্রী ও একসন্তানের জননী। তার পিতার বাড়ি পার্শ্ববর্তী পূরান কালারুকা গ্রামে। সে ওই গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা তজ¤মূল আলী মখই ময়ার মেয়ে।
পরিবারের অভিযোগ, সাজনাকে তলপেটে লাথি মেরে হত্যা করার পর আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিতে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। পুলিশ বলছে মৃত্যুর ঘটনাটি রহস্যজনক হওয়ায় থানায় সাধারণ ডায়েরী করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ মর্গে প্রেরণ করা হয়।
জানা গেছে, তিনবছর আগে দিঘলবাক নোয়াগাঁওয়ের রইছ আলীর পুত্র প্রবাসফেরত লিয়াকত আলীর সাথে বিয়ে হয় সাজনা বেগমের। বিয়ের পর তাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়।
সাজনার পিতার পরিবারের অভিযোগ, যৌতুক দাবিতে লিয়াকত ও তার পরিবার সবসময় সাজনাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতো। বুধবার দিনদুপুরে লিয়াকত ও তার পরিবারের লোকজন সাজনাকে মারধর করে।
এক পর্যায়ে লিয়াকত সাজনার তলপেটে জোরে লাথি মারলে সাজনা মাটিতে লুটে পড়ে ও তার যোনী দিয়ে রক্ত ঝরতে শুরু ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। এসময় স্বামী লিয়াকত পরিবারের লোকজন গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঘরে খাটে ভর করে তীরের সাথে তাকে ঝুলিয়ে রেখে পুলিশকে খবর দেয়।
খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকের কলেজ মর্গে প্রেরন করে। বৃহস্পতিবার ময়না তদন্ত শেষে বিকেলে লাশ দাফন করা হয়।
এ ব্যাপারে সাজনার স্বজনরা মামলা দিতে চাইলে মামলা নেয়নি জালালাবাদ থানা পুলিশ। এসময় পুলিশ ময়না তদন্তের কথা বলে সাদা কাগজে মৃতার বড়বোন নেহার বেগমের স্বাক্ষর গ্রহণ করে সাজনার লাশ সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ মর্গে প্রেরন করে।
স্বজনরা অবিলম্বে ঘাতকদের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ ও তাদের গ্রেফতারে উর্র্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এ ব্যাপারে সিলেটের জালাবাদ থানার অফিসার ইনচার্জ আক্তার হোসেন জানান, সাজনাকে হত্যা নাকি সে নিজে আত্মহত্যা করেছে তা পরিষ্কার নয়। থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করে ময়না তদন্ত সম্পন্ন করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর হত্যা না আত্মহত্যা এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: