সর্বশেষ আপডেট : ১১ মিনিট ৭ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘পাখি’ ভুলে এবার ‘বাজিরাও মাস্তানী’র প্রেমে সিলেটীরা!

eid bazar sylhet news daily sylhetজীবন পাল::
বিগত কয়েক বছর বাংলার মেয়েরা মজেছিল পাখির প্রেমে । শিশু থেকে প্রায় বয়সীদের কাছে পরিচিত একটা নাম হয়ে উঠেছিল পাখি। কিন্তু এবার সবাই মজেছেন নতুন প্রেমে । তাই ভুলতে বসেছেন কয়েক বছর মজে থাকা ‘পাখি’কে । এবার সবাই যেন মজেছেন ‘বাজিরাও মাস্তানী’র প্রেমে। শপিং সেন্টারগুলো ঘুরে এরকম একটা কিছুই আঁচ করা গেল ।

এতক্ষণ ধরে যে পাখির কথা বলা হয়েছে সেই পাখি হচ্ছে কয়েক বছর ধরে আমাদের দেশের তরুনীদের হৃদয়ে ঠাঁয় করে দেওয়া তরুনীদের পছন্দের পোশাক পাখি। সারা দেশের ব্যবসায়ীরা যে পাখি পোশাক দিয়ে বিগত বছরগুলোর উৎসবের মৌসুমটা বাম্পার ব্যবসা করে সারা বছরের অনেকের মন্দার কালেমাটা এক প্রকার কাটিয়ে নিয়েছিল বলে অভিমত ব্যবসায়ীদের । সেই আঙ্গিকেই এবার ঈদ উৎসবে ব্যবসায়ীরা এবারের ঈদ আয়োজনে তরুনীদের চাহিদা মাথায় রেখে প্রায় সব শপিং সেন্টারেরমার্কেটগুলোতেই তুলেছেন পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত থেকে সংগৃহীতে আলোচিত নতুন ধারার পোশাক ‘বাজিরাও মাস্তানী’ । যে পোশাকটি এবারের ঈদের তরুনীদের পছন্দের প্রথম পর্যায়ে রয়েছে বলে জানায় সিলেট সিটি সেন্টার শপিং কমপ্লেক্সের ‘রায়হানস’ এর ব্যবসায়ী কবির আহমদ । তিনি জানান, গত কয়েক বছর যে ‘পাখি’ পোশাকে তরুনীরা আকৃষ্ট ছিল সেই তরুনীরাই এখন ঝুঁকতে দেখা যাচ্ছে নতুন পোশাক ‘বাজিরাও মাস্তানী’র দিকে ।

তুরুনীদের চহিদা মাথায় রেখেই এবারের ঈদ বাজারের আয়োজনে এই পোশাকটি সংগ্রহে রাখা হয়েছে । ‘বাজিরাও মাস্তানী’র পোশাকের পাশাপাশি এবারের সংগ্রহে আরো অনেক ব্র্যান্ডের পোশাকের মধ্যে ‘সাহারা’, ‘ফ্লোর টাচ’ও উল্লেখ্যযোগ্য হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন তিনি। পোশাকগুলোর দাম রাখা হচ্ছে, ‘বাজিরাও মাস্তানী- ৪ হাজার থেকে ৭ হাজার টাকা, ‘সাহারা’ ৪ হাজার থেকে ৬ হাজার ৫০০ মত টাকা। ‘ফ্লোর টাচ’ বোম্বে রাখা হচ্ছে ৯ হাজার টাকা,’ফ্লোর টাচ’ কলকাতা রাখা হচ্ছে ৫ হাজার টাকা ও ‘ফ্লোর টাচ’ লকাল রাখা হচ্ছে ৩ হাজার টাকা। এখানে ১ বছর থেকে শুরু করে ৫৫ বছরের বয়সীদের কাপড় সংগ্রহে রয়েছে বলে জানান তিনি।

ঈদ বাজারের আমেজ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান, ৭ রোজা থেকেই এবারের ঈদ বাজারের আমেজ শুরু হয়ে গেছে । ব্যবসা খুব একটা খারাপ হচ্ছেনা। তবে সিলেটে শো-রুম গুলো বৃদ্ধি পাওয়ায় সিলেট সিটি সেন্টারে কাষ্টমারদের চাপ আগের তুলনায় কমে গেছে। তাছাড়া সিলেট নগরীতে কয়েকদিন ধরে বৃষ্টিপাতের কারণে তেমনভাবে মার্কেট জমে উঠেনি এখনও। তবে রোজার শেষ ১০ দিন কাষ্টমারদের চাপ বাড়বে বলে জানান তিনি ।

তাছাড়া দুপুর ২টার পর থেকে ইফতারের আগ মুহূর্ত ও ইফতারের পর থেকে রাত ১২ টা পর্যন্ত কাস্টমারদের ভীড় থাকে বলে জানান ব্যবসায়ীরা। মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে প্রায় সব কাপড়ের দোকানগুলোতে কিছু কিছু কাস্টমারদের আনাগোনা।

সিলেটের জিন্দাবাজারস্থ্য ‘ব্লো-ওয়াটার শপিং সিটির দৃশ্যটা ছিল চোখে পড়ার মত । সেখানের মেয়েদের পোশাকের দোকানগুলোর প্রায় সবগুলোতেই ছিল কাষ্টমারদের ভীড়। সেখানে থেকে শপিং শেষ করে ফেরা ‌আমেনা বেগম জানান, নিজের জন্য শাড়ি ও বাচ্ছাদের কাপড় কিনতে এসেছিলাম । নিজের জন্য একটা শাড়ি ও বাচ্ছাদের জন্য জামা-কাপড় কিনছি। তবে মনে হলো গতবারের তুলনায় এবারের বাজারে কাপড়ের দাম অনেকাংশে বেড়েছে।

তবে ব্লো-ওয়াটারে পুরুষদের কাপড়ের দোকানগুলোতে ঈদ বাজারের এবারের আমেজটা নেই বলে জানান রিটাচ দোকানের ইমন আহমেদ। চায়না, ইন্ডিয়ান এর নিত্য-নতুন কালেকশন থাকলেও ব্যবসা এখনও জমেনি বলে এবারের ঈদ বাজারে নিয়ে তার মত অনেকেই সংশয়ে আছেন বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, গতবার যেখানে ১০ রোজা দথকেই ঈদ বাজারের আমেজটা চাংগা ছিল সেই তুলনায় এবার ১৮ রোজা পার হয়ে যাওয়ার পরেও বাজারের অবস্থা খারাপ দেখে তারা প্রায় নিরাশ। ছেলেদের এবারের ঈদ কালেকশন সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ছেলেদের জন্য তাদের এবারের আয়োজনের মধ্যে রয়েছে বজরাঙ্গি ভাইজান, সাবওয়ে,ডিজেল ও ছেলেদের চাহিদা সম্মত গ্যাভার্ডিন প্যান্ট। আর শার্টের মধ্যে রয়েছে ইন্ডিয়ান, চায়না প্রিন্ট ও চেক শার্ট। সংগৃহিত এখানের কাপড়গুলো বিক্রি করা হচ্ছে সর্বনিম্ন ১ হাজার থেকে সবোচ্চ্য ২৬০০ টাকায়। তবে চাকুরীজীবিদের বেতন-বোনাস হওয়ার পর ঈদ বাজারের দৃশ্যটা অনেকাংশেই পাল্টে জাবে বলে এখানের ব্যবসায়ীদের ধারনা।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: