সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে সবজির ব্যাপক ক্ষতি

Kurigram14ডেইলি সিলেট নিউজ: গত কয়েকদিনের বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে কুড়িগ্রামে পটল, ঢেঁড়স, করলাসহ বিভিন্ন প্রকারের গ্রীষ্মকালীন সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। নদী-তীরবর্তী ও নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে প্রায় ৫০০ হেক্টর জমির সবজি পানিতে তলিয়ে গেছে। এ অবস্থায় উঠতি ফসল বিক্রি করতে না পারায় ক্ষতির মুখে পড়েছেন কৃষকরা।

কুড়িগ্রামের ধরলা, তিস্তা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় নদ-নদী-তীরবর্তী ও নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে পড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ধরলা নদীর পানি সেতু পয়েন্টে ৬০ সেন্টিমিটার, তিস্তার পানি কাউনিয়া পয়েন্টে ২৩ সেন্টিমিটার ও ব্রহ্মপুত্রের পানি চিলমারী পয়েন্টে ৫৬ সেন্টিমিটার ও নুনখাওয়া পয়েন্টে ৫৩ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ৪৮ ঘণ্টায় ধরলার সেতু পয়েন্টে ৩৫ মিলিমিটার, তিস্তার কাউনিয়া পয়েন্টে ৪৫ মিলিমিটার ও ব্রহ্মপুত্রের চিলমারী পয়েন্টে ৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

ফলে সদর উপজেলার পাঁচগাছি ও যাত্রাপুর, রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা এবং চিলমারী উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের প্রায় ৫০০ হেক্টর জমির পটল, ঢেঁড়স, করলাসহ গ্রীষ্মকালীন সবজি পানিতে তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে সদর উপজেলায় তলিয়ে গেছে প্রায় ৩০০ হেক্টর জমির সবজি। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন কৃষকরা।

বৃষ্টি ও নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধির ফলে কুড়িগ্রামে সবজির ব্যাপক ক্ষতি হওয়ায় এর প্রভাব কাঁচাবাজারে পড়বে বলে আশংকা করছেন ব্যবসায়ীরা।

সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের কৃষক আমজাদ জানান, দেড় একর জমিতে পটল চাষ করেছেন। হঠাৎ নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় তার পটল খেত তলিয়ে গেছে। পটল বেচেই সংসার চলত, এখন তার আর কোনো উপায় নেই।

সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের কৃষক মজিবর রহমান জানান, বাণিজ্যিকভাবে সবজি চাষে পুঁজি বিনিয়োগ করে লাভ তো দূরের কথা আসলটাই ঘরে তুলতে পারলাম না। এখন কী হবে আল্লাহ জানেন।

সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান জানান, টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে নদ-নদী তীরবর্তী এলাকার নিচু জমির কিছু সবজি খেত তলিয়ে গেছে। লতানো জাতীয় সবজি খেতে পানি ঢুকলে তা নষ্ট হয়ে যায়। আমরা ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পানি নামার পর স্বল্পকালীন সবজি চাষের পরামর্শ দেব।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: